Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২০ আগস্ট ২০১৮, ০৫ ভাদ্র ১৪২৫, ০৮ যিলহজ ১৪৩৯ হিজরী‌

মামলা হয়নি গ্রেফতার ও অস্ত্র উদ্ধার নেই

রাজধানীর বাড্ডায় আওয়ালীগের দু’গ্রæপের সংঘর্ষে নিহতের ঘটনা

| প্রকাশের সময় : ২৪ এপ্রিল, ২০১৮, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : রাজধানীর বাড্ডায় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে গুলিতে একজন নিহত হওয়ার ঘটনায় গতকাল সোমবার পর্যন্ত থানায় মামলা হয়নি। হত্যাকান্ডের ঘটনায় পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। দু’পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্সেল ঘটনা ঘটলেও উদ্ধার হয়নি কোন অস্ত্র। এ ঘটনার পর এলাকায় আতংক বিরাজ করছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বাড্ডা থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ আলী জানিয়েছেন, যেকোনো সময় মামলা দায়ের করা হবে, তদন্ত চলছে।
বাড্ডা থানার এসআই মাহমুদ দৈনিক ইনকিলাবকে বলেন, দু’গ্রæপের সংঘর্ষে নিহত কামরুজ্জামান দুখুর লাশ রাতে দাফনের প্রস্তুতি নিচ্ছে নিহতের পরিবারের সদস্যরা। থানায় কোন মামলা হয়নি। অস্ত্র উদ্ধার বা জড়িতদের কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।
পুলিশের বাড্ডা-ভাটারা জোনের সহকারী কমিশনার আশরাফুল করিম জানান, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে অনেক ধরেই এ দুই গ্রæপের মধ্যে ঝামেলা চলছিল। সেই জের ধরেই সংঘর্ষ হয়।
স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, গত রোববার বাড্ডায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রæপের সংঘর্ষে একজন নিহতসহ কমপক্ষে ১০-১২ জন আহত হয়েছেন। নিহতের নাম কামরুজ্জামান দুখু। তিনি ভাটারা থানার বেরাইদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও বাড্ডা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমের চাচাতো ভাই। এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের জের ধরে বেরাইদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য রহমতউল্লাহ এর পক্ষের কর্মীদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই বিরোধ চলে আসছিলো। জমি দখল ও চাঁদাবাজিসহ নানা বিষয়ে দু’গ্রæপের সশস্ত্র ক্যাডাররা দীর্ঘ দিন ধরে অস্ত্রের মহড়া দিয়ে আসছিলো। এ নিয়ে এলাকার সাধারন মানুষের মধ্যে আতংক থাকলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ