Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫, ১২ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

বিড়ি শিল্প রক্ষার দাবীতে শেরপুরে মানববন্ধন ও গণস্বাক্ষর কর্মসূচি

শেরপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৫ এপ্রিল, ২০১৮, ২:২১ পিএম

অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যে আগামী ২০২০ সালের মধ্যে বিড়ি শিল্প বন্ধের ঘোষণার প্রতিবাদে এবং অতিরিক্ত কর আরোপ না করে বিড়ি শিল্পকে রক্ষা ও এর সাথে জড়িত হাজার হাজার শ্রমিককে বেকারত্বের হাত থেকে রক্ষার দাবীতে শেরপুরে বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ, মানববন্ধন ও গণস্বাক্ষর কর্মসূচি করেছে বিড়ি শ্রমিক ইউনিয়ন।
আজ ২৫ এপ্রিল দুপুরে শহরের নারায়ণপুর রসিদা বিড়ি ফ্যাক্টরীর সামনের সড়কে এই কর্মসূচি পালিত হয়। এসময় বিড়ি ও সিগারেটের বৈষম্য বন্ধে বিড়ি শ্রমিক- কর্মচারী, ব্যবসায়ী, তামাকচাষী, ভোক্তা সাধারণ ও বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর ব্যানারে এই কর্মসূচিতে রসিদা বিড়ি ফ্যাক্টরীতে কর্মরত শ্রমিকরা অংশগ্রহণ করেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সারা দেশের বিভিন্ন বিড়ি শিল্প প্রতিষ্ঠানে বিড়ি তৈরীতে প্রায় ৫০ লাখ অসহায় দরিদ্র মানুষ জীবিকা নির্বাহ করলেও সরকারের কর নীতির ফলে আজ তারা বেকার হয়ে পড়ছে। ব্রিটিশ আমেরিকা টোবাকোর মত কোম্পানীর চেয়ে আনুপাতিকহারে বিড়িতে অতিরিক্ত কর ধার্য করা হচ্ছে। ব্রিটিশ আমেরিকান ট্যোবাকো কর্তৃক কর ফাঁকি ও ৩৫ টাকার মূল্যের সিগারেট ২৭ টাকায় বিক্রি করার ব্যপারে অর্থমন্ত্রী কোন গুরুত্ব না দিয়ে তিনি শ্রমঘন বিড়ি শিল্পকে বন্ধের জন্য বিভিন্নভাবে কৌশল অবলম্বন করছেন। দিন আনা দিন খাওয়া এসব শ্রমিকদের কথা মাথায় রেখে ও প্রতিবেশী দেশ ভারতের উদাহরণ টেনে বক্তারা এ শিল্পকে বন্ধ না করে কুটির শিল্প ঘোষণার দাবি জানান।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, শেরপুর জেলা সংযুক্ত শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি কবি তালাত মাহমুদ, শেরপুর জেলা আইনজীবি সমিতির সভাপতি এডভোকেট রফিকুল ইসলাম আধার, টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি মেরাজ উদ্দিন ও শ্রমিক নেতা লুৎফর রহমান ঠান্ডা প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ