Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ মে ২০১৮, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ৬ রমজান ১৪৩৯ হিজরী

অচিরেই পারমাণবিক অস্ত্রের তৃতীয় সর্বোচ্চ মজুদকারী হচ্ছে পাকিস্তান

সামরিক ঐতিহাসিক ও বৈশ্বিক সম্পর্ক বিশেষজ্ঞ জোসেফ ভি’র অভিমত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ এপ্রিল, ২০১৮, ১২:০০ এএম

পাকিস্তান খুব শিগগিরই তৃতীয় সর্বোচ্চ পারমাণবিক অস্ত্রের মজুতকারী দেশে পরিণত হচ্ছে বলে মনে করছেন সামরিক ঐতিহাসিক ও বৈশ্বিক সম্পর্ক বিশেষজ্ঞ জোসেফ ভি মিকালেফ। ওয়াশিংটনভিত্তিক সামরিক ওয়েবসাইট মিলিটারি.কমে প্রকাশিত এক নিবন্ধে তিনি দাবি করেছেন, পারমাণবিক অস্ত্র মজুতের পাশাপাশি স্বল্পপাল্লার (৫ থেকে ১০ কিলোমিটার) যুদ্ধাস্ত্র মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি। ইসলামাবাদের এসব নীতির কারণে ভবিষ্যতে দক্ষিণ এশিয়ার স্থিতিশীলতা হুমকির মুখে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন এই বিশেষজ্ঞ। এতে পাকিস্তানসহ বিশ্বের বিভিন্ন স্থানের সশস্ত্র ইসলামি জিহাদি সংগঠনগুলোর হাতে পারমাণবিক অস্ত্র পৌঁছে যেতে পারে বলে প্রকাশিত নিবন্ধে শঙ্কা জানিয়েছেন তিনি। সামরিক ইতিহাস লিখে বিশ্বব্যাপী পরিচিত জোসেফ ভি মিকালেফ। বৈশ্বিক সম্পর্ক বিষয়েও তিনি একজন বিশেষজ্ঞ। ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) সাবেক এই গ্রাজুয়েট এই বিষয়ে অনেক বই লিখেছেন। নির্মাণ করেছে বেশ কয়েকটি ডকুমেন্টারি। মিলিটারি.কমে এক নিবন্ধে তিনি লিখেছেন, আফগান তালেবান, তেহরিক-ই-জিহাদ ইসলামি, জয়েশ-ই মোহাম্মদ, লস্কর-ই তাইয়্যেবা অথবা হিজবুল মুজাহিদিনের মতো সশস্ত্র জিহাদি গ্রুপগুলোর সঙ্গে পাকিস্তানের অতীত সম্পর্ক ভারত-পাকিস্তান সংঘর্ষে নতুন উপাদান যোগ করেছে। তিনি বলেন, পাকিস্তান-যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের টানাপড়েন সৃষ্টিতে ভূমিকা রেখেছে এসব সশস্ত্র গোষ্ঠী। পাকিস্তান পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি অব্যাহত রেখেছে জানিয়ে মিকালেফ বলেন, এটাই তাকে সবচেয়ে বেশি উদ্বিগ্ন রেখেছে। গোপনে আর অবৈধভাবে গত ৪৮ বছর ধরে দেশটি এই কাজ করছে জানিয়ে তিনি বলেন, ১৯৭১ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে ইসলামাবাদ নিজেদের পারমাণবিক অস্ত্রের উন্নতি ঘটিয়েছে। প্লুটোনিয়াম ও সমৃদ্ধ ইউরেনিয়ামভিত্তিক অস্ত্র এর মধ্যে রয়েছে বলেও জানান তিনি। মিকালেফের ধারণা, পাকিস্তানের চারটি প্লুটোনিয়াম উৎপাদন রি-এক্টর ও তিনটি প্লুটোনিয়াম পুনঃপ্রক্রিয়াজাতকরণের প্লান্ট রয়েছে। এছাড়া দেশটি গ্যাসভিত্তিক ইউরেনিয়াম ব্যবহার করে উচ্চমাত্রার ইউরেনিয়াম উৎপাদন করে বলেও জানান তিনি। দ্য ইকোনমিক টাইমস।

 

Show all comments
  • লাভলু ২৬ এপ্রিল, ২০১৮, ৫:৫২ এএম says : 1
    কিন্তু তাদের অভ্যান্তরীণ অবস্থা ভালো নয়
    Total Reply(1) Reply
    • IA ২৬ এপ্রিল, ২০১৮, ৭:৪৪ পিএম says : 0
      This is international efforts to create internal issue in Pakistan.
  • Hannan ২৬ এপ্রিল, ২০১৮, ১:০২ পিএম says : 0
    পাশ্চাত‌্যের ইহুদী প্রভাবিত Media এইসব অতিরন্জিত খবর তৈরী করার উদ্দেশ‌্য হল--- পাকিস্তনের উপর কোন অবৈধ হস্তক্ষেপের ক্ষেত্র প্রস্তুত করা।
    Total Reply(0) Reply
  • Sidra Khan ২৬ এপ্রিল, ২০১৮, ২:১২ পিএম says : 0
    Very good
    Total Reply(0) Reply
  • Rubel ২৬ এপ্রিল, ২০১৮, ২:১৩ পিএম says : 0
    fake report
    Total Reply(0) Reply
  • অর্ণব ২৬ এপ্রিল, ২০১৮, ১১:৪৭ পিএম says : 0
    এসব মিথ্যাচার। ভারতকে ভয় দেখিয়ে আরো বেশি অস্ত্র আমেরিকা থেকে কিনতে উৎসাহী করা এবং বিশ্বের এক মাত্র পরমাণু শক্তিধর মুসলিম রাষ্ট্রটিকে আন্তর্জাতিক ভাবে চাপ সৃষ্টি করে তাদের পরমাণু অস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়া ও আফগান-ইরাক-লিবিয়ার মতো ধ্বংস করে দেওয়া আসল উদ্দেশ্য। এজন্য ভারত-ইস্রাইল -আমেরিকা লাখ লাখ ডলার খরচ করে শত শত জঙ্গি গ্রুপ তৈরী করেছে পাকিস্তানের মাটিতে। জঙ্গি দ্বারা পাক পরমাণু স্থাপনায় হামলা চালিয়ে তার দোষ পাকিস্তানকে দিয়ে অভিযান চালানো ইত্যাদি হচ্ছে ওদের দূরভিসন্ধিমুলক পরিকল্পনা। পাকিস্তান বিশ্বের সব চেয়ে বেশি এন্টি-মুসলিম ষঢ়যন্ত্রের স্বীকার এক মাত্র মুসলিম রাষ্ট্র, ইরান দ্বিতীয়। বিশ্বে জঙ্গি -সন্ত্রাস দমন অভিযানে পাকিস্তানের অবদান সব চেয়ে বেশি। তাই আন্তর্জাতিক মহলের উচিত পাকিস্তানের প্রচেষ্টাকে স্বীকার করা ও দেশটিকে রক্ষায় সব রকম সহযোগিতা করা। কারণ পরমাণু শক্তিধর একটি দেশের মৃত্যু মানে পুরো বিশ্ব ধ্বংস !! ধন্যবাদ।
    Total Reply(1) Reply
    • Sahabuddin ২৭ এপ্রিল, ২০১৮, ১:৪৭ পিএম says : 0
      Apni stop Sundar vabe kothagulo bole6en apnake dhonnobad

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ