Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ মে ২০১৮, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ৬ রমজান ১৪৩৯ হিজরী

স্বল্প ও মধ্যম আয়ের মানুষের জন্য ফ্ল্যাট নির্মাণ করবে সরকার

ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

| প্রকাশের সময় : ২৬ এপ্রিল, ২০১৮, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : ঢাকার মিরপুরে স্বল্প ও মধ্যম আয়ের মানুষের কাছে বিক্রয়ের জন্য ১৫৪৫ বর্গফুট আয়তনের ফ্ল্যাটের আট ইউনিট বিশিষ্ট দু’টি ১৪তলা ভবন নির্মাণ করবে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়। এছাড়া রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে সউদী থেকে ২৫ হাজার টন ইউরিয়া সার আমদানিসহ ৩৬০ কোটি আট লাখ টাকা ব্যয়ে সাতটি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। গতকাল বুধবার কমিটির বৈঠকে এসব প্রস্তাবের অনুমোদন দেয়া হয়।
সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভাপতি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সরকারি সফরে দেশের বাইরে থাকায় বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। বৈঠকে কমিটির সদস্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণলয়ের সচিব ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠকে শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, বৈঠকে ঢাকার মিরপুরস্থ ১৬ নম্বর সেকশনে স্বল্প ও মধ্যম আয়ের লোকদের কাছে বিক্রয়ের জন্য আবাসিক ফ্ল্যাট নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ভবন নম্বর-১ ও ৬ (১৫৪৫ বর্গফুট আয়তনের আট ইউনিট বিশিষ্ট দু’টি ১৪তলা ভবন) নির্মাণ কাজের ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়েছে। প্রকল্পে ব্যয় হবে ১১৫ কোটি ২৭ লাখ টাকা। দেশ উন্নয়ন লিমিটেড প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে।
বৈঠকে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) বাস্তবায়নাধীন ‘পূর্বাচল নতুন শহর’ শীর্ষক প্রকল্পের ৫ নম্বর সেক্টরের অভ্যন্তরে এক দশমিক ৪৫ কিলোমিটার লেক উন্নয়ন কাজের ভেরিয়েশন প্রস্তাবও অনুমোদন দেয়া হয়েছে বলে অতিরিক্ত সচিব জানান। প্রকল্পের প্রাক্কলিত দর ছিল ১৭ কোটি ৩৪ লাখ টাকা। অতিরিক্ত কাজে সাত কোটি ৫৬ লাখ টাকা বেড়ে প্রকল্পের মোট ব্যয় দাঁড়িয়েছে ২৪ কোটি ৯১ লাখ টাকা।
মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বরিশাল বিভাগের বরিশাল-ভোলা সড়কে কালাবদর ও তেঁতুলিয়া নদীর উপর পটুয়াখালী, আমতলী-বরগুনা সড়কে পায়রা নদীর উপর বাকেরগঞ্জ-বাউফল উপজেলা সড়কে কারখানা নদীর উপর এবং ঢাকা বিভাগের আড়াইহাজার-বানছারামপুর সড়কে মেঘনা নদীর উপর সেতু নির্মাণ প্রকল্পের ফিজিবিলিটি স্ট্যাডি কাজের ভেরিয়েশন প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। প্রকল্পের প্রাক্কলিত দর ছিল ৩৯ কোটি ৭০ লাখ টাকা। প্রকল্পে অতিরিক্ত ১৬ কোটি ৬৪ লাখ টাকার কাজ হওয়ায় প্রকল্পের ব্যয় দাঁড়িয়েছে ৫৬ কোটি ৩৪ লাখ টাকা। কমিটি অতিরিক্ত ব্যয়ের অনুমোদন দিয়েছে।
তিনি আরও বলেন, বৈঠকে ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে চুক্তির মাধ্যমে সউদী বেসিক ইন্ডাষ্ট্রিজ কর্পোরেশন (এসএবিআইসি) থেকে ১ম লটে ২৫ হাজার টন ব্যাগড গ্রানুলার ইউরিয়া সার আমদানির ভূতাপেক্ষ অনুমোদন পেয়েছে। প্রতি টন সারের দাম ২৬১ দশমিক দুই ডলার হিসেবে মোট খরচ হবে ৫৪ কোটি ৫৩ লাখ টাকা।
বৈঠকে বাংলাদেশ রেলওয়ে ‘ঢাকা-চট্টগ্রাম ভায়া কুমিল্লা/লাকসাম দ্রæতগতির রেলপথ নির্মাণের জন্য সম্ভাব্যতা সমীক্ষা এবং বিশদ ডিজাইন’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় সংশ্লিষ্ট কাজের জন্য পরামর্শক নিয়োগের ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়। চায়না রেলওয়ে অ্যান্ড ডিজাইন নামের একটি প্রতিষ্ঠান যৌথ ভাবে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। এতে সরকারে ১০২ কোটি ১০ লাখ টাকা ব্যয় ধরা হয়েছে বলে জানান মোস্তাফিজুর রহমান।

 

 

 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ