Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ০৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

নেত্রকোনায় স্কুলছাত্রীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় প্রেমিক আটক

নেত্রকোনা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৬ এপ্রিল, ২০১৮, ৪:২০ পিএম

নেত্রকোনা জেলা শহরের সাতপাই এলাকায় গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় স্কুল ছাত্রী মুরসালিনা দীপ্তির মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় প্রেমিক কায়েস আকন্দকে (২১) গতকাল বুধবার গভীর রাতে ঢাকার তেজগাও এলাকা থেকে আটক করেছে মডেল থানা পুলিশ।

কায়েস নেত্রকোনা সদর উপজেলার লক্ষীগঞ্জ ইউনিয়নের ষাইটকাহ্নিয়া গ্রামের মানিক আকন্দের ছেলে। সে জেলা শহরের আবু আব্বাস ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

নেত্রকোনা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো: বোরহান উদ্দিন জানান, গত ৪ এপ্রিল সকালে জেলা শহরের সাতপাই এলাকার মন্ডল বাড়ির সামনের সড়কের একটি গাছ থেকে স্কুল ছাত্রী মুরসালিনা দীপ্তির ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। দীপ্তি জেলা শহরের কাটলী এলাকার বাসিন্দা কাপড় ব্যবসায়ী নয়ন মিয়ার মেয়ে। সে স্থানীয় একটি স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্রী। মৃতদেহ উদ্ধারের আগে ৩ এপ্রিল দিনগত রাতে বাসা থেকে কাউকে কিছু না বলে বেরিয়ে যায় দীপ্তি। সেদিন কায়েস ও দীপ্তির পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করার কথা ছিলো। রাত বাড়তে থাকলে কায়েসের আসতে দেরি হওয়ায় দীপ্তি ভাবে সে প্রতারিত হয়েছে। এই ভেবে সে একটি চিরকুট লিখে আত্মহত্যা করে। চিরকুটে তার মৃত্যুর জন্য সে তার প্রেমিক কায়েসকে দায়ী করে। পাশাপাশি তাদের প্রেমসহ সব সম্পর্কের কথা কায়েসের ভাবী মুন্নী জানেন বলে চিরকুটে উল্লেখ করে যায় দীপ্তি। মৃতদেহ উদ্ধারের পরদিন দীপ্তির মৃত্যুর ঘটনায় থানায় একটি নিয়মিত মামলা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ