Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৬, ১৪ শাবান ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

তারেক রহমান যেদিন বলবেন বাংলাদেশে যাব, সেদিনই কেবল ফিরবেন -খন্দকার মোশাররফ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ এপ্রিল, ২০১৮, ২:৫৭ পিএম | আপডেট : ৭:১৩ পিএম, ২৭ এপ্রিল, ২০১৮

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডন থেকে সময়মতো স্বেচ্ছায় দেশে ফিরবেন বলে জানিয়েছেন স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।
তিনি বলেন, তারেক রহমান যেদিন বলবে আমি বাংলাদেশে যাব, বাংলাদেশ আমার জন্য নিরাপদ; সেদিনই কেবল তিনি ফিরবেন- তার আগে নয়।

বিএনপির এই নেতার আরও বলেন, তারেক রহমান ব্রিটিশ আইন মোতাবেক সে দেশে অবস্থান করছেন। বাংলাদেশ সরকার তার লন্ডনে অবস্থান নিয়ে ভুল বোঝানোর চেষ্টা করেছে। সরকার তাকে সহ্য করতে পারছে না।

শুক্রবার বেলা ১১টায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল আয়োজিত খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুস্থতা কামনায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মোশাররফ এ কথা বলেন।

এ সময় তিনি অভিযোগ করেন, খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে সাজা দেয়া হয়েছে। নির্জন কারাগারে রাখা হয়েছে। তার শারীরিক অবস্থা দিন দিন অবনতি হচ্ছে।

বিএনপির এ নীতিনির্ধারক সুচিকিৎসার স্বার্থে খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান। অন্যথায় কারাবাস দীর্ঘায়িত হলে খালেদা জিয়াকে ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থার পক্ষে মত দেন তিনি।

তারেক রহমানের লন্ডনে অবস্থানের বিষয়ে ড. মোশাররফ বলেন, বাংলাদেশে সাজা হওয়ায় তারেক রহমান ব্রিটিশ সরকারের কাছে রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছেন।

তিনি বলেন, সেখানে তারেক রাজনৈতিক আশ্রয় আছেন। কেউ রাজনৈতিক আশ্রয়ে থাকলে তার পাসপোর্ট ওই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জমা রাখতে হয়। তাকে একটি ট্রাভেল ডকুমেন্ট দেয়া হয়। এটি ব্রিটিশ নিয়ম।

রাজনৈতিক আশ্রয় পেলে ওই ব্যক্তি যতদিন না বলবেন আমার নিজের দেশে যাওয়ার পরিবেশ হয়েছে, ততদিন পর্যন্ত আশ্রয়দাতা দেশ তাকে জোর করে ফেরত পাঠাবে না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

‘যে কোনো মূল্যে তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে’ বলে স্থানীয় সময় শুক্রবার সকালে অস্ট্রেলিয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া বক্তব্যের সমালোচনা করেন ড. মোশাররফ। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা যেভাবে তাকে আনতে চান সেভাবে আনা যাবে না।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, মহিলা দলের সভানেত্রী আফরোজা আব্বাস, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, মহিলা দলের সাবেক সভাপতি ও বিএনপির মহিলাবিষয়ক সম্পাদিকা নূরে আরা সাফা, ওলামা দলের সভাপতি হাফেজ মাওলানা মো. মালেক প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তারেক রহমান


আরও
আরও পড়ুন