Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

সময় হলে তারেক রহমান বীরের বেশে দেশে ফিরবে -ড. মোশাররফ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ এপ্রিল, ২০১৮, ১২:০০ এএম

সময় হলেই বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বীরের বেশে দেশে ফিরে আসবেন বলে জানিয়েছেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। তিনি বলেন, তারেক রহমান যুক্তরাজ্যে রাজনৈতিক আশ্রয়ে আছেন। এই রাজনৈতিক আশ্রয়ের ব্যক্তি যতদিন না সেখানকার হোম মিনিস্ট্রিকে বলবেন যে নিজের দেশে যাওয়ার জন্য তার পরিবেশ হয়েছে। তার আগে তাকে দেশে ফিরিয়ে আনার কোনো ক্ষমতা কারও নেই। তাকে দেশে ফেরানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সামনে ৭ দিন ধরে অবস্থান করলেও তাকে ফেরত আনতে পারবেন না। তারেক রহমান বীরের বেশেই দেশে ফিরে আসবেন। জনগণ যখন চাইবে, তখন তাকে দেশে ফিরিয়ে আনবে। গতকাল (শুক্রবার) বেলা ১১টায় খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুস্থতা কামনা করে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।
খন্দকার মোশাররফ বলেন, সরকার আতঙ্কে আছে। এ দেশের জনগণ তাদের সমর্থন করে না। যদি সুষ্ঠু নির্বাচন হয়, এই আওয়ামী লীগ আস্তাকুঁড়ে চলে যাবে। জনগণের কাছে তাদের কোনো পাত্তা থাকবে না- এই ভয়ে তারা আতঙ্কিত। কারাবন্দি খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে মুক্তি দিয়ে সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, দেশনেত্রীকে একটি মানবেতর পরিবেশে রাখা হয়েছে, একটি পরিত্যক্ত বিল্ডিংয়ে রাখা হয়েছে। এ অবস্থায় আমরা শুনতে পাচ্ছি আমাদের নেত্রীর শারীরিক অবস্থার দিন দিন অবনতি হচ্ছে। তিনি বলেন, আইনের মারপ্যাঁচে নানা অজুহাতে দেশনেত্রীর জামিন বিলম্বিত করা হচ্ছে। আমাদের দাবি অবিলম্বে আমাদের নেত্রীকে মুক্তি দিন, যাতে তিনি পছন্দমত হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে পারেন। খালেদা জিয়া মুক্তি না পেলে দেশে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হবে না বলেও মন্তব্য করেন খন্দকার মোশাররফ।
তিনি বলেন, আমাদের নেত্রীকে বাইরে রেখে এই সরকার আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচন করতে চায়। এটা হতে দেয়া হবে না। খালেদা জিয়ার মুক্তি ও একাদশ সংসদ নির্বাচন একইসূত্রে গাঁথা। তাই খালেদা জিয়ার মুক্তি ব্যতিত নির্বাচন অসম্ভব, আমরা কষ্টে আছি আর আওয়ামী লীগ আতঙ্কে আছে। কারণ তারা জানে, সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে কোনভাবেই জিততে পারবে না। কারণ জনগণ তাদের সঙ্গে নেই।
এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নুরী আরা সাফা, মহিলা দলের মহিলা দলের সভানেত্রী আফরোজা আব্বাস, সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন