Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭, ১৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

রাঙামাটি ও নরসিংদী ২ ইউপি চেয়ারম্যানকে গুলি করে হত্যা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ মে, ২০১৮, ১২:০০ এএম

 পাহাড়ে সশস্ত্র সংঘাতের জের ধরে উপজেলা চেয়ারম্যান ও নরসিংদীর রায়পুরায় ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। 

রাঙামাটি থেকে সৈয়দ মাহাবুব আহামেদ জানান, পাহাড়ে সশস্ত্র সংঘাতের জের ধরে একটি আঞ্চলিক দলের শীর্ষ নেতা খুন হওয়ার ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে গোটা পার্বত্য চট্টগ্রামে। এই ঘটনার জেরে যেকোন মুহূর্তে ঘটতে আরো বড় ধরনের সহিংস সংঘাতের আশঙ্কা করছে জনসাধারণ।
বৃহস্পতিবার বেলা এসারটায় জেএসএস সংস্কারের শীর্ষ নেতা ও নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের নির্বাচিত চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমাকে প্রকাশ্য দিবালোকে তার কার্যালয়ের সামনে গুলি করে হত্যা করার পর এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এসময় তাকে বহনকরা মোটর সাইকেল চালক ও নানিয়ারচর উপজেলা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক রূপম চাকমার উপরও গুলি করে সন্ত্রাসীরা।
রাঙামাটির পুলিশ সুপার মো. আলমগীর কবির সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই শক্তিমানের মৃত্যু হয়। এসময় তার সঙ্গে থাকা রূপম চাকমাও আহত হন। আহত রূপমকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে জানিয়ে পুলিশ সুপার বলেন, কে বা কারা এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা নাগেলেও ঘটনাস্থল থেকে তিন পাহাড়ি যুবককে পালিয়ে যেতে দেখে নানিয়ারচর থানা পুলিশ তাদের লক্ষ্য করে গুলিও ছুড়লেও দূরত্ব বেশি হওয়ায় তারা পালিয়ে যায়। এই ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার। এদিকে বৃহস্পতিবার বিকেলে পৌনে চার টার সময় নিহত চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমার লাশ ময়নাতদন্তের জন্যে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেনাবাহিনী ও পুলিশের দুইটি গাড়ি দিয়ে পাহারার মাধ্যমে লাশটি রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।
জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকালে ছদ্মবেশি তিন পাহাড়ি যুবক হাতে তিনটি ব্যাগ নিয়ে উপজেলা পরিষদের নীচে অবস্থান নেয়। এসময় বেলা এগারোটার সময় নিজ বাসা থেকে উপজেলা পরিষদের কার্যালয়ে আসলে সহকর্মীসহ চেয়ারম্যানের উপর গুলি চালায় ছদ্মবেশি তিন যুবক। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে সাধারনের কাতারে মিশে সটকে পড়ে উক্ত তিন যুবক। এসময় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উপজেলা চেয়ারম্যান ও তাকে বহনকরা মোটর সাইকেল চালককে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় স্থানীয়রা। সেখানে পুরো শরীরে অন্তত ২০টি বুলেট বিদ্ধ অবস্থায় উপজেলা চেয়ারম্যান শক্তিমানকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। অপরজনকে প্রাথমিক সার্পোট দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্যে রেফার্ড করা হয়েছে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল সূত্র। নানিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
নরসিংদী থেকে সরকার আদম আলী জানান, নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার বাঁশগাড়ি ইউনিয়নের চারবারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা সিরাজুল হককে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার বাঁশগাড়ি ইউনিয়নে এ হত্যার ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহরিয়ার আলম।
জানা যায়, চেয়ারম্যান সিরাজুল হককে উপজেলা সদর থেকে বাড়ি ফেরার পথে বাঁশগাড়ি এলাকায় পৌঁছালে একদল দুর্বৃত্ত পথরোধ করে। এরপর তাকে গুলি করে এবং কুপিয়ে ফেলে রেখে যায় দুর্বৃত্তরা। এ সময় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে অবস্থার অবনতি হলে সেখান থেকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।
নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহরিয়ার আলম বলেন, তার লাশ জেলা হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। সেখান থেকে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। প্রাথমিকভাকে ধারণা করা হচ্ছে, বিরোধের জের ধরে তাকে হত্যা করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত কাউকে প্রেফতার করা যায়নি। আশা করছি খুব শিগগিরই হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হত্যা

২২ জানুয়ারি, ২০২১
২১ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ