Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

সড়কে শৃঙ্খলা চাই

| প্রকাশের সময় : ১২ মে, ২০১৮, ১২:০০ এএম

বর্তমানে দেশের একটি প্রতিবন্ধকতার নাম যানজট। দেশের সমগ্র উন্নয়নের পথে বিভিন্ন বাধা সৃষ্টি করে চলেছে। যানজটের ফলে মানুষ সঠিক সময়ে কর্মস্থলে যেতে পারছে না। ভোগান্তিতে পড়ছেন বিভিন্ন কারখানার মালিকরা। দেশি অর্থনীতির এক বিরাট অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এ অসহনীয় যানজটে। মহাসড়কের যানজটে স্কুল-কলেজের শিক্ষকরা সঠিক সময়ে প্রতিষ্ঠানে পৌঁছতে পারছেন না। ফলে শিক্ষাক্ষেত্রেও ভোগান্তি বাড়ছে শিক্ষার্থীদের। এ ছাড়াও শিল্পের কাঁচামাল বহনকারী পরিবহন ঠিক সময় কারখানায় পৌঁছতে না পারায় শিল্প প্রতিষ্ঠানের সঠিকভাবে উৎপাদন চালানো অসহনীয় ব্যাপার হয়ে পড়ছে, যা অর্থনীতির ওপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলছে। এ ছাড়া সড়কে অসহনীয় যানজটে সাধারণ মানুষ সড়কে থেকেই দিন শেষ করছে। জীর্ণ ও পুরনো গাড়ি সড়কে নামানোতে ক্ষণিকের মধ্যেই যানজট তীব্র আকার ধারণ করছে। তাই পুরনো গাড়ি ভালোভাবে সংস্কার করে মাঠে নামাতে হবে। ফুটপাতের ওপর থেকে সড়কের জায়গা দখল করে থাকা দোকানপাট উচ্ছেদ করতে হবে। এ ছাড়া অতিরিক্ত গাড়ি যখন সড়কে একের পর এক চলমান থাকে, তখন এমনিতেই যানজট হয়ে থাকে। তাই যানবাহন চলাচলে একটি নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দেওয়া দরকার। এ ছাড়া সঠিক ট্রাফিক আইন প্রয়োগের অভাবে যানজট সমস্যা কমছে না। ব্যস্ততম সড়কে ফ্লাইওভার ব্রিজের ব্যবস্থা করতে পারলে যানজট অনেকাংশে নিরসন সম্ভব। সড়ক আইন অমান্যকারীদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে, যা যানজট সমস্যা সমাধানের একটি কৌশল। যানজট নিরসনকল্পে সঠিক পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
তাইফুর রহমান মুন্না
কাছিকাটা, মোরেলগঞ্জ, বাগেরহাট



 

Show all comments
  • গনতন্ত্র ১২ মে, ২০১৮, ৪:০৫ এএম says : 0
    জনগন বলছেন, গনতন্ত্র “ নিরাপদ- ২০১৮ “ রমজানে আল্লাহতালা শয়তান বন্ধি করেন মানুষ একনিষ্ঠ ভাবে আল্লাহর বন্দেগী যেন করে, দেশে নিরাপত্তা আজ কারাবন্ধি মানুষের অনিষ্ট করার তরে ৷ রক্ষক এখন ভক্ষকের ভূমিকায় ছত্রাকের মত গেছে ছেয়ে, নারী / শিশুর নেই নিরাপদ ধর্ষন বেড়েছে মাদক খেয়ে খেয়ে ৷ রাস্তা এখন নয় নিরাপদ যখন- তখন গাড়ী চাপায় পড়বে, হেলপার এখন চালকের সিটে র্দুঘটনায় কখন জানি মরবে ? ঔষধে ভেজাল, খাদ্যে ভেজাল পানিও এখন নয় নিরাপদ, মলম পার্টি, অপহরন চক্র ঘরে /বাহিরে বিপদ আর বিপদ ৷ বিদুৎতের তারে হয়তঃ ঝুলবে নয়তো আঘাত হানবে বজ্রপাত, ভূয়া চিকিৎসকের কবলে পড়লে যেতে হবে সাড়ে তিন হাত ৷ বাবার কাছেও নিরাপদ নয় মেয়ে ভাগ্নিও নয় মামার কাছে , চাচা / ফুফা / খালু সবই এক বিবেক কি আর আছে ? ব্যাংকে টাকা নয় নিরাপদ শেয়ার বাজার গোল্লায় গেছে, ছেলের হাতে মা খুন কিয়ামত কি কাছে ? স্বামীর কাছে স্ত্রী নয় নিরাপদ স্ত্রীর কাছেও নয় স্বামী, বিপদের সমদ্রে সাতার কাটছি কখন প্রান যায় জানি ??
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন