Inqilab Logo

সোমবার, ০২ আগস্ট ২০২১, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮, ২২ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

ঢাকার সমস্যা নিরসনে নগর সরকারের বিকল্প নেই সাঈদ খোকন

প্রকাশের সময় : ৮ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা দক্ষিণের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন ঢাকার পুঞ্জিভূত সমস্যা নিরসনে নগর সরকারের কোন বিকল্প নেই উল্লেখ করে বলেছেন, রাজধানী ঢাকাকে একটি বাসযোগ্য আধুনিক সবুজমÐিত পরিচ্ছন্ন নগরীতে পরিণত করার ক্ষেত্রে একটি সমন্বিত কর্তৃপক্ষ গঠন অত্যন্ত জরুরী। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে নগরীর ৮নং ওয়ার্ড গোপীবাগ সমবায় সোসাইটি মাঠ প্রাঙ্গনে সিসি ক্যামেরার উদ্বোধন ও এলাকাবাসীর সাথে বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে জবাবদিহিতামূলক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।
সাঈদ খোকন বলেন, নগরীতে বিভিন্ন সেবাদানকারী সংস্থা থাকলেও একটির সাথে অন্যটির কার্যতঃ কোন সমন্বয় নেই। এই সমন্বয়হীনতার কারণে কাজ করার ক্ষেত্রে সমস্যা হচ্ছে। এজন্য এখন থেকেই একটি সমন্বিত কর্তৃপক্ষ গঠন শুরু করা দরকার। এটি খুব জরুরী। এসময় এলাকাসী তাদের বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরেন। মেয়র সেই সমস্যা সমাধানের লক্ষ্য কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন পাশাপাশি মেয়র নিজেই এলাকাবাসীর প্রশ্নের উত্তর দেন। গোপিবাগ এলাকার বাসিন্দা মাসুম আলী বলেন, এই এলাকায় বিভিন্ন স্থানে মতিঝিলের অফিসের স্টাফ বাস ছড়িয়ে ছিটিয়ে পার্কিং করা থাকে এতে এই এলাকাবাসীর দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়। তার এমন অভিযোগের জবাবে মেয়র ওয়ার্ড কমিশনারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে এই বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন। মাফুজা বেগম বলেন, এই এলাকার সুইপার কলনির পাশে রিকশা সারি করা থাকে আর এখানে মাদক সেবীরা প্রকাশ্যে মাদক সেবন করে, এতে এলাকার পরিবেশ নষ্ট হয়। পাশাপাশি এর পাশের গলিতেই প্রতিনিয়ত ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে থাকে।
তার এই অভিযোগের সমাধানে মেয়র সভায় উপস্থিত থাকা পুলিশ কর্মকর্তার দৃষ্টি আকর্ষণ করে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করলে, পুলিশ কর্মকর্তা পুলিশ টহল বাড়ানোর আশ্বাস দেন। শাহাদাত হোসেন বলেন, এলাকার মসজিদ গলিতে বৃষ্টি হলেই ভয়াবহ পানিবদ্ধতার সৃষ্টি হয়, এখানে পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা খুব খারাপ। তার এ অভিযোর জবাবে মেয়র সভায় উপস্থিত থাকা ওয়াসা কর্মকর্তার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, এই বিষয়ে কবে ব্যবস্থা নেবেন? উত্তরে ওয়াসা কর্মকর্তা আগামীকাল ( আজ শুক্রবার) থেকেই কাজ করার আশ্বাস দেন। ওই এলাকার গৃহবধু ফাতেমা আক্তার বলেন, এই এলাকায় ডিপ টিউবওয়েল পানির সমস্যা, ঠিকমতো পানি পাওয়া যায় না এবং ওয়াসার পানিতে প্রচুর পরিমাণে আর্সেনিক রয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। তার এ বক্তব্যেও জবাবে মেয়র ওয়াসা কর্মকর্তার দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি ১৫ দিনের মধ্যে কাজ শুরু করে ১ মাসের মধ্যে এই সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন।
এছাড়াও এলাকাবাসী বিভিন্ন সমাস্যার কথা তুলে ধরলে সমস্যাগুলোর সমাধানের জন্য মেয়র সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ প্রদান করেন মেয়র। পরবর্তীতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বেলাল ৮ নং ওয়ার্ডের জন দুর্ভোগ-ভোগান্তি ও জন সমস্যাগুলো শুনে নথিভুক্ত করে এলাকাবাসীকে পড়ে শোনান। এসময় মেয়র সাঈদ খোকন এলাকাবসীর উদ্দেশ্যে বলেন, এই সমস্যাগুলো সমাধান আপনাদের কাছে বেঁধে দেয়া সময়েরর মধ্যেই শেষ হবে, আর যদি তা না হয়, আপনারা আমাদের জানাবেন তাহলে আমরা সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব। পরে মেয়র এলাকাবাসীর নিরাপত্তা রক্ষার্থে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর কর্তৃক স্থাপিত সিসি ক্যামেরার উদ্বোধন করেন। তিনি বলেন, ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের নিজস্ব উদ্যোগে বিভিন্ন ওয়ার্ডে ইতোমধ্যে পাঁচ শতাধিক সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। ছিনতাই, সন্ত্রাসী এবং অসামাজিক কার্যকলাপরোধে এটি ইতিবাচক ভূমিকা রাখছে।
ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের আয়োজনে ও ৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সুলতান মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জন প্রতিনিধি, ‘জনতার মুখোমুখি’ সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ ওমর আলী, কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিলাল, সংস্থার উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, ওয়াসা ও পুলিশের প্রতিনিধিসহ এলাকাবাসী।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঢাকার সমস্যা নিরসনে নগর সরকারের বিকল্প নেই সাঈদ খোকন
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ