Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫, ১২ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

সমাবেশে ইসরাইলের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার দাবি

সরকারকে আরো কঠোর ভুমিকা নেয়ার আহ্বান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ মে, ২০১৮, ৩:৪০ পিএম | আপডেট : ৭:৫৩ পিএম, ১৮ মে, ২০১৮

ফিলিস্তিনে মুসলিম গণহত্যা ও জেরুজালেমে দূতাবাস স্থাপনের প্রতিবাদে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর গতকাল বাদ জুম’আ রাজধানীর বাইতুল মুকাররম উত্তরগেটে সমাবেশশেষে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে পল্টন মোড় ঘুরে দৈনিক বাংলা ক্রীড়া পরিষদের সামনে এসে শেষ হয়। এছাড়া খেলাফত মজলিস একই দাবিতে বাইতুল মুকাররম উত্তর এলাকায় প্রতিবাদ সমাবেশ ও মিছিল বের করেছে।
ইসলামী আন্দোলন ঢাকা মহানগর
ইসলামী আন্দোলনের মিছিল পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথি মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন ও মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলমসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ বলেছেন, ফিলিস্তিনে হত্যা ও দূতাবাস স্থাপনের জনক হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র্রের ডোনাল্ড ট্রাম্প। আমেরিকা এবং যুক্তরাজ্য যৌথভাবে জারজরাষ্ট্র ইসরাইলকে প্রতিষ্ঠিত করেছে। তারা বলেন, বিশ্বে অশান্তি সৃষি।টর মূলহোতা আমেরিকাকে একঘরে করে বয়কট, কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন, পণ্য বর্জন করতে হবে। তারা বলেন, ফিলিস্তিনে গণহত্যা বন্ধে জাতিসংঘ ব্যর্থ হয়েছে। তাই মুসলিম বিশ্বকে ইসরাইলের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করতে হবে, নতুবা শান্তি আসবে না। নেতৃবৃন্দ ইসরাইলের সাথে সউদী যুবরাজ সালমানের বিশেষ সম্পর্কেল তীব্র সমালোচনা করেন। নেতৃবৃন্দ এ বিষয়ে সরকারের ভুমিকার প্রশংসা করে আরো কঠোর ভুমিকা নেয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, এ ক্ষেত্রে দেশবাসী আপনার সাথে থাকবে।
প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, নগর সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুর রহান, আনোয়ার হোসেন, মাওলানা এবিএম জাকারিয়া, মাওলানা আরিফুল ইসলাম, ছাত্রনেতা এমদাদুল্লাহ ফাহাদ, মাওলানা এইচ এম সাইফুল ইসলাম, শেখ নুরউন নাবী, যুবনেতা নুরুল ইসলাম নাইম, ছাত্রনেতা আল-আমিন সিদ্দিকী প্রমুখ।

খেলাফত মজলিস
খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেছেন, আমাদের সামনে মাহে রমজান যখন উপস্থিত ঠিক সেই মুহূর্তে অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইল, সন্ত্রাসী রাষ্ট্র ইসরাইল হাজার হাজর ফিলিস্তিনীকে হতাহত করেছে। ইসরাইলের মদদদাতা ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি চায় না। জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে আমেরিকা মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রক্রিয়াকে বন্ধ করে দিয়েছে। খেলাফত মজলিস ঢাকা মহানগরী আয়োজিত স্বাগত মিছিল পরবর্তী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
বাদ জুম্মা বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটের সামনে ঢাকা মহানগরী সভাপতি শেখ গোলাম আসগরের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আজীজুল হকের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন এডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসাইন, মুহাম্মদ মুনতাসির আলী , মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, মাওলানা নোমান মাযহারী, অধ্যাপক মোঃ আবদুল জলিল, মাওলানা তোফাজ্জল হোসেন মিয়াজী।
সমাবেশের পূর্বে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররম উত্তর গেট থেকে বিরাট মিছিল বের করা হয়।

ইসলামী ঐক্য আন্দোলন
ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ বলেছেন, জেরুসালেম থেকে মার্কিন দূতাবাস প্রত্যাহার করতে হবে। আন্তর্জাতিক আদালতে ট্রাম্প ও নেতানিয়াহুর বিচার করতে হবে। ফিলিস্তিন সমস্যার সমাধানের জন্য মুসলিম রাষ্ট্র গুলোকে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহন করতে হবে।
বাদ জুমআ জাতীয় মসজিদ বায়তুল মুকাররম থেকে ইসলামী ঐক্য আন্দোলন ঢাকা মহানগরীর উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মহানগরী আমীর মোস্তফা বশীরুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক মোস্তফা তারেকুল হাসান, ডা সাখাওয়াত হুসাইন,মহানগরী নায়েবে আমির মাওলানা ফারুক আহমদ, মওলানা আবু বকর সিদ্দিক ও মওলানা মুহব্বিুল্লাহ ভূইয়া।

ইসলামিক বুদ্ধিজীবী ফ্রন্ট
ইসলামিক বুদ্ধিজীবী ফ্রন্ট আহ্বায়ক ও কসরে হাদী খানকা শরীফের পীর সাহেব আদুল হান্নান আল-হাদী গতকালএক বিবৃতিতে ইসরাইলের বিরুদ্ধে গোটা মুসলিম বিশ্ব ঐক্যবদ্ধভাবে আমেরিকা ও ইহুদিদের বিরুদ্ধে আল্লাহর সাহায্য যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়া উচিত। তিনি বলেন, আমেরিকাকে একঘরে করে দিতে না পারলে বিশ্বে শান্তি আসবে না।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ