Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮, ১১ আষাঢ় ১৪২৫, ১০ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী

মাহাথিরের পাঁচ হাতে নতুন হবে মালয়েশিয়া

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ মে, ২০১৮, ১২:৪৫ পিএম

৯২ বছর বয়সে এসে আবার নতুন করে মালয়েশিয়ার দায়িত্ব নিয়েছেন মাহাথির। ১০০ দিনের নির্বাচনী প্রচারে যেসব প্রতিশ্রুতি তিনি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়ার পরপরই তা পূরণে দ্রুত পদক্ষেপ নেন তিনি।

এ ক্ষেত্রে সহযোগিতার জন্য পাঁচজনের এক উপদেষ্টা দল নিয়োগ দিয়েছেন তিনি। মাহাথিরের দুই দশকের শাসনকালে তার বিশ্বস্ত দোসর ছিলেন তারা। পুরনো এই পাঁচ সঙ্গীকে নিয়েই মালয়েশিয়ার অর্থনীতি নতুন করে সাজাবেন মাহাথির।

পাঠকদের জন্য মাহাথিরের পাঁচ অর্থনৈতিক উপদেষ্টার পরিচয় তুলে ধরা হল-

ডায়িম জয়নুদ্দীন : ৮০ বছর বয়সী ডায়িম জয়নুদ্দীন মাহাথিরের দীর্ঘদিনের এক বিশ্বস্ত সহযোগী। সংকটকালে অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে মাহাথির যাদের ওপর ভরসা রাখতেন জয়নুদ্দীন তাদের একজন। পেশায় যুক্তরাজ্যে প্রশিক্ষিত একজন আইনজীবী তিনি।

তবে প্রথম পেশা জীবনের অনেকটা সময় তিনি রিয়েল এস্টেট ও ব্যাংক খাতে ব্যয় করেন। প্রথমবার ১৯৮৪-১৯৯১ পর্যন্ত মালয়েশিয়ার অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। এশিয়ায় আর্থিক সংকট-পরবর্তী ১৯৯৯-২০০১ পর্যন্ত দ্বিতীয়বার অর্থমন্ত্রী হিসেবে কাজ করেন।

জেতি আখতার আজিজ : ৭০ বছর বয়সী জেতি আখতার আজিজ মালয়েশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রথম এবং একমাত্র নারী গভর্নর। ২০১৬ সালে অবসরে যাওয়ার আগে দীর্ঘ ১৬ বছর এ দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভেনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে ডক্টরেট ডিগ্রিধারী জেতি আখতার একজন ঝানু ব্যাংকার। ব্যাংক নেগারা মালয়েশিয়ার বিশ্বস্ততা ও স্বাধীনতা শক্তিশালী করার ক্ষেত্রে বিরাট কৃতিত্ব রয়েছে তার।

হাসান ম্যারিকান : ৬৫ বছর বয়সী হাসান ম্যারিকান ১৯৯৫ থেকে ২০১০ সালে অবসর নেয়া পর্যন্ত জাতীয় তেল কোম্পানি পেট্রলিয়া ন্যাশিয়নাল বরহাদের প্রধান নির্বাহী ছিলেন। তার নেতৃত্বেই একটি ছোট্ট তেল কোম্পানি থেকে বিশ্বের ৫০০ শীর্ষ কোম্পানির কাতারে উঠে আসে পেট্রোনাস।

মালয়েশিয়ার এই তেল কোম্পানি এখন বিশ্ববাজারে অন্য বড় কোম্পানিগুলোর সঙ্গে প্রতিযোগিতা করছে। জ্বালানি শিল্পে তিন দশকের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন হাসান ম্যারিকানের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়েছে সিঙ্গাপুর সরকার। সেমবিকর্প মেরিন লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

জোমো কোয়ামে সুন্দরম : ৬৫ বছর বয়সী জোমো কোয়ামে সুন্দরম একজন খ্যাতনামা অর্থনীতিবিদ। এক সময় জাতিসংঘের অর্থনৈতিক উন্নয়নবিষয়ক সহকারী মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েল ও হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া জোমো কোয়ামে মালয়েশিয়ার রাজনৈতিক অর্থনীতি নিয়ে অনেক বই লিখেছেন। তার লেখা বইয়ের মধ্যে ‘এম ওয়ে : মাহাথির’স ইকোনমিক পলিসি লিগেসি’ বেশ জনপ্রিয়। সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের অর্থনৈতিক নীতির কঠোর সমালোচক তিনি।

রবার্ট কুক : ৯৪ বছর বয়সী রবার্ট কুক একজন ঝানু ব্যবসায়ী। ব্রিটেন থেকে স্বাধীনতার পরপরই চিনির ব্যবসা করে প্রচুর সম্পদের মালিক হওয়ায় মালয়েশিয়ায় তাকে ‘সুগার কিং’ বলা হয়। মালয়েশিয়ার পাশাপাশি পরবর্তী সময় সিঙ্গাপুর ও হংকংয়ে ব্যবসা বিস্তার করেন তিনি।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় পাম তেল কোম্পানি থেকে শুরু বেইজিংয়ের সবচেয়ে উঁচু ভবনেও তার বিনিয়োগ রয়েছে।

 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
fifa-worldcup-2018