Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৩ জুন ২০১৮, ৯ আষাঢ় ১৪২৫, ৮ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী

পৃথক দুর্ঘটনায় ৪ জেলায় নিহত ১১

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ মে, ২০১৮, ১২:০০ এএম

দেশের পৃথক স্থানে দুর্ঘটনায় ১১ জন নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনার মধ্যে সড়ক দুর্ঘটনায় চট্টগ্রাম, ফেনী, গাজীপুর, পাবনায় ২ জন এবং চট্টগ্রাম বিদ্যুৎস্পৃষ্ট ৩ জন নিহত হয়েছেন। আমাদের সংবাদদাতাদের পাঠানো তথ্য নিয়ে রিপোর্ট:

চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, নগরীর কোতোয়ালী থানায় পৃথক দুর্ঘটনায় তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার গভীর রাতে খাতুনগঞ্জে পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় মোঃ কামাল (৪০), গতকাল (বৃহস্পতিবার) পাথরঘাটা এলাকায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মোঃ বেলাল (২২ ) ও ফৌজদারহাটে সড়ক দুর্ঘটনায় ট্রাকচালক মারা যায়। পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় নিহত কামাল কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর থানার জারু মিয়ার ছেলে। তিনি নগরীর বাকলিয়ায় মিয়া সওয়াদগরের ভাড়া বাসায় থাকতেন। বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহত বেলালের বাড়ি বাঁশখালী উপজেলায়। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক আমির হোসাইন জানান, পাথরঘাটা এলাকায় গণেশ বাবু নামে এক ব্যক্তির ভবনের তিন তলায় এসির কাজ করার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে বেলালের মৃত্যু হয়। এছাড়া ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সীতাকুÐ ফৌজদারহাট জলিল টেক্সটাইল গেট এলাকায় একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কার্ভাড ভ্যানের পিছনে ধাক্কায় নিহত ট্রাকচালকের নাম মোহাম্মদ আরিফ (৪৬)। তার বাড়ি টাঙ্গাইল জেলায়। এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন দুইজন। ফৌজদারহাট পুলিশ ফাড়ির ইনর্চাজ রফিক আহম্মদ মজুমদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এছাড়া, চট্টগ্রামের সীতাকুÐে বন্য শূকর ধরার জন্য নিজেদের পাতানো তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছেন বেসরকারি একটি আবাসন প্রতিষ্ঠানের দু’জন নিরাপত্তারক্ষী। তারা হলেন ক্যাসাচিং মারমা (৪০) ও উবাচিং মারমা (৪০)। তাদের বাড়ি রাঙামাটি জেলার চন্দ্রঘোনায়। গতকাল (বৃহস্পতিবার) উপজেলার ভাটিয়ারি এলাকার একটি পাহাড় থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। সীতাকুÐ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইফতেখার হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি বলেন, বুধবার রাতেও শূকর ধরার জন্য ফাঁদ পেতেছিলেন তারা। রাতের কোনো একসময় অথবা গতকাল ভোরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দু’জন মারা যান। সকালে অন্যান্য নিরাপত্তা রক্ষীরা তাদের খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। একপর্যায়ে তাদের লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।
গাজীপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, গাজীপুরের মাজুখান এলাকায় টঙ্গী-ঘোড়াশাল সড়কে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে যাত্রীবাহী একটি বাস উল্টে সড়কের পাশের খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে এক নারী নিহত এবং আরো অন্তত ১২জন আহত হয়েছে। নিহতের নাম নয়ন তারা (৩৫)। তিনি নরসিংদী জেলা সদরের আল আমিনের স্ত্রী। এর আগে আজ গাজীপুরের তারগাছ এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে বাস চাপায় এক রিকশাভ্যান চালক নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম আবুল হোসেন। তিনি শরীয়তপুর জেলার আবদুর রশিদ মৃধার ছেলে।
জয়দেবপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. সফিকুল ইসলাম ও টঙ্গী ফায়ার স্টেশনের স্টেশন অফিসার মো. আতিকুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। এ ঘটনায় সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায় এবং দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে মহাসড়কে পুনরায় যানবাহন চলাচল শুরু হয়। পুলিশ বাসটিকে আটক করলেও চালক পালিয়ে যান।
সোনাগাজী ( ফেনী) সংবাদদাতা জানান, ফেনীর সদর উপজেলায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুই পথচারী নিহত হয়েছেন। তবে তাদের নাম-পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ। নিহতদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের লালপোল এলাকায় এবং বুধবার রাতে মুহুরীগঞ্জ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। মহিপাল হাইওয়ে থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুল আউয়াল বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
পাবনা জেলা সংবাদদাতা জানান, পাবনায় বাস ও মোটর সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুইজন নিহত ও একজন আহত হয়েছেন। গতকাল দুপুরে পাবনা-চাটমোহর অভ্যন্তরীণ সড়কের আটঘরিয়া উপজেলার উত্তর চক কেরানীর ঢাল নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত দুইজন মটর সাইকেল আরোহীরা হলেন, পাবনা সদর উপজেলার মজিদপুর গ্রামের আব্দুল কাদেরের পুত্র রাফাত হোসেন ও রাজু প্রামানিকের পুত্র রোহান হোসেন। মটর সাইকেলের অপর আরোহী রূপম গুরুতর আহত হয়েছেন। আটঘরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
উল্লেখ্য, পাবনা-চাটমোহর এই সড়কটির ১০ কিলো মিটার জুড়ে খালা-খন্দ, চলাচলের অযোগ্য। সওজের কোন মাথা ব্যথা নেই। সংষ্কার করার পর ৬ মাস না পেরুতেই রাস্তার অবস্থা ফের সাবেক অবস্থায় ফিরে আসে ।

 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
fifa-worldcup-2018
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ