Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার , ২০ নভেম্বর ২০১৯, ০৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

বাগদাদি সিরিয়াতে সক্রিয় রয়েছেন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ মে, ২০১৮, ৮:৫৯ পিএম

বেশ কয়েকবার নিহতের খবর প্রচারিত হলেও মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জিহাদি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) স্বঘোষিত খলিফা আবু বকর আল-বাগদাদি এখনও বেঁচে আছেন বলে আশঙ্কা করছেন যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা। ইরাকে রাক্কা ও মসুলের মতো শক্তিশালী ঘাঁটি ধ্বংস হয়ে গেলেও সন্দেহ করা হচ্ছে, বাগদাদি সিরিয়াতে সক্রিয় রয়েছে এবং সেখানকার আইএস জিহাদিদের পরামর্শ দিচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের ধারণা, বস্তুগত কাঠামোর বাইরে নিয়ে এসে খিলাফতের আদর্শকে তৃণমূল পর্যায়ে ছড়িয়ে দিতে চায় বাগদাদি। এ জন্য শিশুদের নিয়ে নতুন করে পরিকল্পনাও প্রণয়ন করা হয়েছে। বাগদাদি যে খিলাফতের আদর্শ নতুন প্রজন্মের মধ্যে ছড়িয়ে দেয়ার সিদ্ধান্তকে গুরুত্ব দিয়েছিলেন সে বিষয়টি যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্টকে নিশ্চিত করেছে আইএসের সঙ্গে যুক্ত একজন জিহাদি। বাগাদাদি ২০১৪ সালে একবার নিজের ছবি তুলতে দিয়েছিল। জনসমক্ষে বক্তব্য রাখাটাও তার জন্য বিরল ঘটনা। দীর্ঘ সময় ধরে লোকচক্ষুর বাইরে থাকায় বাগদাদি সম্পর্কে একেক সময় একেক গুজব পাখা মেলেছে। কখনও বলা হয়েছে, সে মারা গেছে, কখনও বলা হয়েছে সে ধরা পড়েছে আবার কখনও দাবি করা হয়েছে বাগদাদি মারাত্মকভাবে আহত। কখনওবা সিরীয় বাহিনীর হাতে আটক হওয়া আবার কখনও তাকে বিষ খাইয়ে দেওয়ার কথাও বাতাসে ছড়িয়েছে। গত জুনে বাগদাদির মৃত্যুর খবরকে ‘শতভাগ নিশ্চিত’ দাবি করেছিল রাশিয়ার কর্মকর্তারা। কিন্তু যথেষ্ট প্রমাণের অভাবে পেন্টাগন তা মেনে নিতে পারেনি। স¤প্রতি যুক্তরাষ্ট্র বেশ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই জানিয়েছে, বাগদাদি মসুল ও রাক্কা থেকে জীবিত অবস্থায় বেরিয়ে গিয়েছে এবং এখনও সক্রিয় রয়েছে। মার্কিন সন্ত্রাসবাদবিরোধী কর্মকর্তারা মনে করছেন, বাগদাদি দীর্ঘমেয়াদী কর্মসূচী বাস্তবায়নে পূর্ব সিরিয়ায় টিকে থাকা আইএস জিহাদিদের নেতৃত্ব দিচ্ছে। বাগাদাদির বেঁচে থাকার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের এই ধারণার পক্ষে সমর্থন পাওয়া গিয়েছে আটক জঙ্গিদের জিজ্ঞাসাবাদে দেওয়া তথ্য থেকে। তাছাড়া আইএসের অভ্যন্তরে জিহাদিদের লেখা ও কথাবার্তাতেও বাগদাদির বেঁচে থাকার ইঙ্গিত রয়েছে বলে জানিয়েছে ওয়াশিংটন পোস্ট। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক যুক্তরাষ্ট্রের একজন জঙ্গিবাদ দমন কর্মকর্তা বলেছেন, ‘সবগুলোই ইঙ্গিতই বলছে, বাগদাদি বেঁচে আছে। আমরা মনে করি, সে এখনও সমন্বয় করছে, এখনও সংগঠন পরিচালনায় ভূমিকা রাখছে।’ তুরস্ক ও ইরাকের যৌথ বাহিনীর হাতে গত বছর আটক হওয়া এক আইএস জিহাদি জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, গত বছর সিরিয়ায় ঘনিষ্ঠ নেতাদের নিয়ে সিরিয়ায় বৈঠকে বসেছিল বাগদাদি। দেইর আল জর শহরে অনুষ্ঠিত ওই গোপন বৈঠকে তারা শিশুদের পাঠ্যসূচিতে পরিবর্তন আনার বিষয়ে নতুন পরিকল্পনা করেছে। আবু জাইদ আল ইরাকি নামের ওই আইএস জিহাদির ভাষ্য, ‘শীর্ষ নেতাদের অনেকে ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিল। সেখানে আইএসের শিক্ষাক্রম প্রণয়ন কমিটির সদস্যরাও ছিল।’ তার বক্তব্য দেওয়ার ভিডিও ইরাকের টিভিতে প্রচারিত হয়েছে। ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে। পাঠ্যক্রম নিয়ে ওটা ছিল তৃতীয় বৈঠক। স্কুলগামী শিশুদের মনে জঙ্গিবাদের বীজ বপন করে দিতে বাগদাদি নিজে হাতে শিক্ষা সংক্রান্ত কমিটি তৈরি করেছিল। ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কাছকাছি সময়ে ইরাকের রাক্কা ও মসুল ধ্বংস হয়েছে। এমনকি সিরিয়ার ঘাঁটিও হামলার মুখে। এরকম অবস্থায় আত্মরক্ষার জন্য সভা না ডেকে শিশুদের মধ্যে সংগঠনের আদর্শিক বীজ বুনে দেওয়ার বিষয় নিয়ে বৈঠক ডেকেছিল বাগদাদি। মার্কিন গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের কাছ থেকে পাওয়া এসব খবরের বিষয়ে আরও নিশ্চিত হতে ওয়াশিংটন পোস্ট আইএসের সঙ্গে যুক্ত এক জঙ্গীর সঙ্গে কথা বলেছে। এনক্রিপ্টেড চ্যাটে হওয়া ওই কথোপকথনে ওই আইএস জঙ্গি ওয়াশিংটন পোস্টকে জানিয়েছে, বাগদাদিসহ অন্যান্য শীর্ষ নেতারা ইরাক ও ইরাকের বাইরে শিশু এবং নতুন কর্মীদের ইন্টারনেটের মাধ্যমে জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ করার উদ্যোগকে অগ্রাধিকার দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। আইএসের এলাকাগত দখল যত কমে যাচ্ছিল তত বেশি ওই প্রস্তাব গুরুত্ব পাচ্ছিল। ওই জঙ্গি জানায়, ‘নেতারা এ বিষয়ে একমত হয়েছিলেন যে, খিলাফত যদি ধ্বংস হয়ে গেলেও  শিক্ষাব্যবস্থা প্রভাবিত করার মাধ্যমে পরবর্তী প্রজন্মের মধ্যে খিলাফতের আদর্শ বেঁচে থাকবে।’ ওয়াশিংটন পোস্ট।



 

Show all comments
  • ডা. হারুন অর রশীদ ২৫ মে, ২০১৮, ১০:১৯ পিএম says : 0
    এটা যুক্তরাষ্ট্রের নতুন কৌশল এ এলাকায় আধিপত্য ধরে রাখার জন্য মুসলিম হত্যার নোংরা খেলা।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বাগদাদি

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ