Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬, ১২ শাবান ১৪৪১ হিজরী

‘বন্দুকযুদ্ধ’ ও ‘গোলাগুলিতে’ ৮ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ মে, ২০১৮, ১০:০৩ এএম | আপডেট : ৫:০৭ পিএম, ২৮ মে, ২০১৮

চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে গত কয়েকদিনের মতো রোববার রাতেও রাজধানীসহ সারাদেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধ’ ও নিজেদের মধ্যে ‘গোলাগুলিতে’ ৮ মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।

কুমিল্লা : কুমিল্লায় মাদকবিরোধী অভিযান চলাকালে পুলিশের সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। রোববার মধ্যরাতে জেলার দেবিদ্বার উপজেলা সদরের অদূরে পশ্চিম ভিংলাবাড়ি এবং সদর দক্ষিণ উপজেলার গলিয়ারা এলাকায় এ দুটি বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- এনামুল হক ভূইয়া ওরফে দোলন (৩৫) এবং নুরু (৫৫)। এর মধ্যে দোলন পুলিশের ও নুরু স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ঢাকা : রাজধানীর মিরপুরে মাদক বিক্রির সময় ডিবি পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে অজ্ঞাত পরিচয় (আনুমানিক বয়স ৪০ বছর) এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। রোববার রাত ৩টার দিকে মিরপুরের রূপনগর ‘ট’ ব্লকে সরকারি কর্মচারীদের নির্মাণাধীন ভবনের পাশে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ৪-৫ হাজার পিস ইয়াবা ও ১টি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে।

রূপনগর থানার এসআই মিজানুর জানান, ওই এলাকায় মাদক কেনাবেচা হবে এমন গোপন তথ্যের ভিত্তিতে ডিবি (পশ্চিম) বিভাগের একটি দল রাত ৩টার দিকে সেখানে অভিযান চালায়। ডিবি পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা তাদের ওপর গুলি চালায়। এসময় ডিবিও পাল্টা গুলি চালালে ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় একজনকে পড়ে থাকতে দেখেন। তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

চাঁদপুর : চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আবু সাঈদ বাদশা ওরফে লাল বাদশা নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। রোববার মধ্যরাতে ফরিদগঞ্জের গুপ্টি ব্রিজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

লাল বাদশা ফরিদগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের আবদুর রশিদ ছৈয়ালের ছেলে। তার বিরুদ্ধে ১০টি মাদকের মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, পুলিশের একটি দল অভিযানে বের হয়ে ফরিদগঞ্জের গুপ্টি ব্রিজ এলাকায় গেলে মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশের উপর হামলা ও গুলি চালায়। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এতে বাদশা গুলিবিদ্ধ হন। আহত অবস্থায় তাকে ফরিদগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে ১১১ পিস ইয়াবা, ১টি একনলা বন্দুক, ৪ রাউন্ড গুলি ও ১টি ককটেল উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মুন্সীগঞ্জ : মুন্সীগঞ্জের মীরকাদিম পৌরসভায় দু’পক্ষের গোলাগুলিতে সুমন বিশ্বাস (৩৬) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ওসি (তদন্ত) গাজী সালাউদ্দিন জানান, রোববার রাত পৌনে ২টার দিকে মীরকাদিম পৌরসভার মুড়মা এলাকায় দুই গ্রুপ মাদক ব্যবসায়ীদের গোলাগুলিতে সুমন বিশ্বাস (কানা সুমন) গুলিবিদ্ধ হন। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে সুমনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে। নিহত সুমন মাদকসহ ২০-২৫টি মামলার আসামি। ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় অস্ত্র (ছুরি) ও বিপুল পরিমাণে ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, নিহত সুমন মাদকসহ ২০ থেকে ২৫টি বিভিন্ন মামলার আসামি।

সোমবার (২৮ মে) দুপুরে মুন্সীগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে সাংবাদিকদের বিস্তারিত অবহিত করবেন বলেও জানান তিনি।

ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহ সদর উপজেলায় দু'দল মাদক ব্যবসায়ীর গোলাগুলিতে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। রোববার দিবাগত রাত ২টার কিছু পরে ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা মহাসড়কের পাশে জাড়গ্রাম নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। তবে পুলিশ নিহতের নাম-পরিচয় জানাতে পারেনি।

ঝিনাইদহ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমদাদুল হক শেখ জানান, রাত ২টার দিকে ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা মহাসড়কের পাশে জাড়গ্রাম এলাকায় দুদল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে সেখান থেকে অজ্ঞাত পরিচয় যুবকের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করে। ঘটনাস্থল থেকে ১টি পিস্তল, ২ রাউন্ড গুলি, ২০ বোতল ফেনসিডিল ও ১টি কার্তুজ উদ্ধার করা হয় বলেও জানান তিনি।

পিরোজপুর : পিরোজপুরে পুলিশের সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। এ সময় ডিবি ও থানা পুলিশের ৮ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

পুলিশ জানায়, রোববার দুপুরে উত্তর কৃষ্ণনগর এলাকা থেকে মো. অহিদুজ্জামান (৪০) নামে এক শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে পিরোজপুর ডিবি পুলিশ। তার দেয়া তথ্য অনুযায়ী রাত ১টার দিকে সদর উপজেলার কলাখালী ইউনিয়নের টোনা ব্রিজ সংলগ্ন কৈবর্তখালী গ্রামে অস্ত্র ও মাদক উদ্ধারে গেলে সেখানে অহিদুজ্জামানের সঙ্গীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছুড়ে অহিদুজ্জামানকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। এতে দুই সদস্য আহত হলে ডিবি পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় অহিদুজ্জামান পালাতে গেলে ডিবি পুলিশের গুলিতে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়।

ঘটনাস্থল থেকে ডিবি পুলিশ ১টি পাইপ গান, ৫ রাউন্ড গুলি, ২টি দা, ১৭৫টি ইয়াবা, ৫০ গ্রাম গাঁজা, অস্ত্র তৈরি ও মাদক সেবনের সরঞ্জামাদি উদ্ধার করেছে। নিহত অহিদুজ্জামান স্বরুপকাঠী উপজেলার দক্ষিণ কৌরিখাড়া গ্রামের মৃত আ. রহমানের ছেলে। তার বিরুদ্ধে মাদক, সন্ত্রাসী, অস্ত্র মামলাসহ মোট ৮টি মামলা রয়েছে।

অন্যদিকে রাত ২টার দিকে মাদক উদ্ধার অভিযানের অংশ হিসেবে জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার বড় মছুয়া এলাকার খায়ের গনিপাড়া গ্রামে গেলে স্থানীয় ডাকাত ও মাদক ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান (৩৬) ও তার সঙ্গীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। সেসময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে ঘটনাস্থলেই মিজানুর রহমান মারা যায়। এতে মঠবাড়িয়া থানা পুলিশের ৬ সদস্য গুরুতর আহত হন।

মিজানুর মঠবাড়িয়া আঞ্চলিক ডাকাতদের নেতা ও স্থানীয় শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী বলে জানায় পুলিশ। তার বিরুদ্ধে মাদক ও ডাকাতিসহ ৬টি মামলা রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ