Inqilab Logo

ঢাকা, রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০২ পৌষ ১৪২৫, ৮ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

বুন্টনের আন্তঃধর্মীয় ইফতারে ইসলামের সৌন্দর্য্য প্রদর্শন

প্রকাশের সময় : ২৯ মে, ২০১৮, ১২:০০ এএম | আপডেট : ১১:২৪ পিএম, ২৮ মে, ২০১৮


ইনকিলাব ডেস্ক : পবিত্র রমজান ধৈর্য, সহনশীলতা, সৌহার্দ্য ও সহমর্মিতার মাস। এ মাসে মানুষের মাঝে বিভিন্ন গুনাবলীর বিচ্ছুরণ ঘটে। মানুষের মাঝে দেখা দেয় উদারতা ও পরোপকারী মনোভাব। ইসলামের মহান আদর্শ বিভিন্ন ধর্মের মানুষের মাঝে প্রদর্শনের এক অনুপম সুযোগ সৃষ্টি হয় এ মাসে। মুসলিমগণ যেমন নিজেদের ধর্মের প্রকৃত রূপ বিধর্মীদের মাঝে তুলে ধরার জন্য তাদের দাওয়াত দেন, তেমনি তারাও এসব দাওয়াতে শরিক হয়ে ইসলামের বাণী শুনে তাদের ভুল ধারণাগুলো শুধরে নেবার সুযোগ পান।
তাদের ইসলামিক কেন্দ্রে এমনি একটি ইফতারে বিধর্মীদের দাওয়াত দেন নিউ জার্সির বুন্টনের মুসলিমরা। তাদের দাওয়াতে শরিক হন বহু সংখ্যক বিভিন্ন ধর্মের মানুষ। একসঙ্গে ইফতার শেষে মুসলিমরা যখন সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে এক ইমামের নির্দেশনায় মাগরিব সলাত আদায় করেন, তখন পেছনে চেয়ারে বসে গভীর মনোযোগসহকারে নামায দেখেন অমুসলিমরা। এ দেখে তারা মুগ্ধ হন।
ইফতারপূর্ব আলোচনায় অংশ নিয়ে পোয়েট্রোরিকো থেকে আগত ইমাম ওয়েসলি আবু সুমাইয়াহ লেবরন ইসলামের মৌলিক বিষয়গুলো এবং রোযার মাহাত্ব্য ও ফযিলত নিয়ে অতিথিদের সামনে বক্তব্য রাখেন।
তিনি বলেন, ‘আমরা যখন রোযা পালন করি, হতে পারে অন্য জাতি বা ধর্ম থেকে ভিন্ন’। আমাদের রোযায় আমরা খাবার, পানীয় ও যৌন কার্যকলাপ এবং যে কোন ধরনের অনৈতিক কর্মকাÐ থেকে বিরত থাকি। অন্যায় থেকে বিরত রাখতে হয় আমাদের চোখকে, আমাদের কানকে, আমাদের চিন্তাকে, আমাদের দৈনন্দিক কর্মকাÐকে। রমজান আমাদের জন্য একটি প্রশিক্ষণ শিবির। এটা তেমনই যেমন কেউ দিন শেষে জিমে যায় প্রতিদিন। এটা আমাদের জন্য প্রণোদনা সৃষ্টিকারী’ -বলেন তিনি। সূত্র : ওয়েবসাইট।

 

প্রবাস জীবন বিভাগে সংবাদ পাঠানোর ঠিকানা
probashjibon.inqilab@gmail.com



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ