Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ১০ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

মিসরের রাস্তায় দাতব্য সংস্থার ইফতার

| প্রকাশের সময় : ১ জুন, ২০১৮, ১২:০০ এএম


ইনকিলাব ডেস্ক : ইসলামের ৫টি স্তম্ভের অন্যতম সওম। দক্ষিণ এশিয়ার অধিকাংশ দেশে এটি রোযা নামে পরিচিত। কোন একজন মানুষ যখন আল্লাহ তা‘আলার এককত্ব স্বীকার করে এবং তার শ্রেষ্ঠ বান্দা মুহাম্মাদুর রসূলুল্লাহ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে শেষ নবী হিসেবে স্বীকার করে নেয় তখন তার ওপর সর্বপ্রথম সলাত তথা নামায ফরজ হয়ে যায়। একই সঙ্গে সে রমাযান মাস পেয়ে গেলে এ মাসে তার ওপর সওম পালন করা ফরজ হয়ে যায়। সুবহে সাদিক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত পানাহার, যৌন কার্যকলাপ, অন্যায় কর্মকাÐ ও আচরণ থেকে বিরত থাকার নামই হচ্ছে সওম। এ মাস ইসলামিক পঞ্জিকার নবম মাস। এ মাস আসার আগে ১১ মাস ধরে বেহেশতে সাজানো হয়। বেহেশতের দরজাসমূহ এ মাস আসার সাথে সাথে খুলে দেয়া হয়। দোযখের দরজাসমূহ বন্ধ করে দেয়া হয়। শয়তানকে শৃঙ্খলাবদ্ধ করে ফেলা হয়। মহানবী সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন, ‘যে ব্যক্তি পরিপূর্ণ ঈমান ও সওয়াব লাভের আশা নিয়ে রমাযানের সওম পালন করে আল্লাহ তার পূর্বের সব গুনাহ ক্ষমা করে দেন। অনুরূপ যে ব্যক্তি পরিপূর্ণ ঈমান ও সওয়াব লাভের আশা নিয়ে রমাযানের রাতে কিয়ামুল লাইল করে তারও পূর্বের সব গুনাহ ক্ষমা করে দেয়া হয়। সহীহুল বুখারী।
রমাযান কুরআন নাযিলের মাস। আর ইবাদাতের মধ্যে সর্বোত্তম বলা হয়েছে কুরআন তেলাওয়াতকে। আল্লাহর নবী সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, ‘যে ব্যক্তি আল্লাহর কিতাবের একটি হরফ পড়বে তার জন্য একটি নেকি লেখা হবে। আর একটি নেকিকে ১০ দিয়ে বর্ধিত করা হবে। আমি বলি না, আলিফ-লাম-মীম একটি হরফ। বরং আলিফ একটি হরফ, লাম একটি হরফ এবং মীম একটি হরফ। এ ফযিলত অর্জিত হবে সারা বছর। তবে রমাযানের ফযিলত হিসেবে এ সওয়াব সাত শত গুণ পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়।
সওম পালনকারীকে ইফতার করানো অনেক সওয়াবের কাজ। মহানবী সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, যে ব্যক্তি সওম পালনকারীকে ইফতার করাবে সেও সওম পালনকারীর সমান সওয়াবের অধিকারী হবে। তবে সওম পালনকারীর সওয়াব কমানো হবে না। এ ফযিলত অর্জনের জন্য মানুষ আপ্রাণ চেষ্টা চালায় ইফতার করাতে। এর জন্য গড়ে উঠেছে অনেক দাতব্য প্রতিষ্ঠান। তারা সওম পালনকারীকে ইফতার করানোর পাশাপাশি নানা ধরনের নসিহত করে থাকে -যা তাদের দৈনন্দিন জীবনে অনেক উপকারে আসে। এরূপ একটি দাতব্য সংস্থার ইফতার আয়োজন দেখা যায় মিসরের রাজধানী কায়রোর একটি সড়কে। লম্বা টেবিলের দুই পাশে বসে সওম পালনকারীগণ ইফতার গ্রহণ করেন। এসময় রয়টার্সের পক্ষে এ ইফতারের ছবি তোলেন আসমা ওয়াকীহ। সূত্র : হাফিংটন পোস্ট।

 

প্রবাস জীবন বিভাগে সংবাদ পাঠানোর ঠিকানা
probashjibon.inqilab@gmail.com



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ