Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

মার্কিন প্রস্তাবে ইহুদিবাদী ইসরাইলের নাগরিকদের সুরক্ষা দেয়ার দাবি তোলা হয়েছে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ জুন, ২০১৮, ২:০৬ পিএম | আপডেট : ৩:৫০ পিএম, ২ জুন, ২০১৮

ইসরাইলের হামলার মুখে ফিলিস্তিনিদের প্রতিরোধকে যুক্তরাষ্ট্র আগ্রাসন বলে অভিহিত করেছে। অথচ ইসরাইল সম্প্রতি গাজার অন্তত ৩৫টি অবস্থানে বিমান হামলা চালিয়েছে।

৭০ বছর আগে তাড়িয়ে দেয়া ভিটেমাটিতে ফিরে যাওয়ার অধিকার দাবিতে গত দুই মাস ধরে চলা নিরস্ত্র ফিলিস্তিনিদের বিক্ষোভে গুলি চালিয়ে অন্তত ১২৩জনকে হত্যা করেছে অবৈধ রাষ্ট্রটির স্নাইপাররা।

১৯৪৮ সালে ইহুদি সশস্ত্র গোষ্ঠীর হামলায় সাড়ে সাত লাখ আরব অধিবাসী নিজেদের ভিটেমাটি থেকে বিতাড়িত হন।

পার্শ্ববর্তী আরব দেশ, অধিকৃত পশ্চিমতীর ও অবরুদ্ধ গাজায় এসব আরবরা শরণার্থী হিসেবে মানবেতর জীবনযাপন করছেন।

চলতে মাসের ১৪ তারিখে ইসরাইলে মার্কিন দূতাবাস তেলআবিব থেকে জেরুজালেমে স্থানান্তরের প্রতিবাদে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন ফিলিস্তিনিরা।

এদিন ইসরাইলি স্নাইপাররা ৬২ নিরপরাধ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করে। এতে এখন পর্যন্ত কোনো ইসরাইলি সেনা হতাহত হয়নি।

গাজা সহিংসতায় হামাসকে দায়ী করে মার্কিন প্রস্তাবের পক্ষে কোন দেশ ভোট দেয়নি।জাতিসংঘে মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিক্কি হ্যালি বলেন, নিরাপত্তা পরিষদ ইসরাইলকে দায়ী করতে আগ্রহী। কিন্তু গাজা সহিংসতায় তারা হামাসকে দোষারোপ করতে অনিচ্ছুক।

তিনি বলেন, আর কোন প্রমাণের দরকার নেই। এটা খুবই পরিষ্কার যে জাতিসংঘ ইসরাইলের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বপূর্ণ আচরণ করছে।
নিরাপত্তা পরিষদে কোনো প্রস্তাব পাশ হতে স্থায়ী সদস্যগুলোর ভেটো ছাড়া নয়টি ভোট পেতে হবে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মার্কিন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ