Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ১০ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

স্বকীয়তা নিয়েই ইনকিলাব আপন গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে, সামনে আরো শক্তিশালী হবে -আলহাজ এ এম এম বাহাউদ্দীন

দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ইফতার ও দোয়া মাহফিল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ জুন, ২০১৮, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব তার আপন গতিতে এগিয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন দৈনিকটির সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন। তিনি বলেন, ইনকিলাব শুধু একটি দৈনিক পত্রিকা নয়; একটি আদর্শ, দর্শন। দেশের সংবাদমাধ্যম জগতে ইনকিলাব ব্যাপক পরিবর্তনের সূচনা করেছে। আগামী দিনেও ইনকিলাব তার স্বকীয়তা বজায় রেখে সামনের দিকে আপন গতিতে এগিয়ে যাবে এবং আরো শক্তিশালী হবে। গতকাল (সোমবার) দৈনিক ইনকিলাবের ৩৩তম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে ইনকিলাব ভবনে আয়োজিত ইফতার ও দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।
দেশের মিডিয়া জগতের অত্যন্ত প্রভাবশালী পত্রিকাটির ৩৩তম বর্ষে পদার্পণ এবং সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালনের জন্য মহান আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া আদায় করেন। তিনি বলেন, আমার জন্য আজকে একটা সৌভাগ্যের দিন। এ জন্য মহান আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করছি। কত পত্রিকা আসছে কত পত্রিকা আবার কালের গর্ভে হারিয়ে যাচ্ছে। আল্লাহর রহমতে আমি ৩৩ বছর ধরে এই ভবনে। ভবনটির গোরাপত্তন আমার হাত ধরেই হয়েছে। সেখানে আমাকে আল্লাহ-তাআলা সম্মানের সাথে একটা ঠিকানায় এতটা বছর বসে থাকার তৌফিক দিয়েছেন। ৩৩ বছর অনেক মানুষের হায়াতও থাকে না, সংসারও টিকে না।
অনেক কিছুই হয় না। কিন্তু ৩৩ বছর আলহামদুলিল্লাহ এক ঠিকানায় বসে একটা কাজকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার সুযোগ হয়েছে। আমার সাথে আরও কতগুলো প্রবীণ মানুষ রয়েছেন যাদেরকে নিয়ে ভবিষ্যতে লেখা হবে। যারা একেকজন একেকটি স্তম্ভ। তারা নিজেরাই পত্রিকার সবকিছু করতে পারে। আমরা সুখে-দুঃখে সবাই মিলে একটি পরিবার হিসেবে সব সময় একসাথে থেকেছি কাজ করেছি। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ইনকিলাব তার অভিষ্ট লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। এ এম এম বাহাউদ্দীন বলেন, ইনকিলাব শুধু একটি সংবাদপত্রই নয়। ইনকিলাব সংবাদপত্র শিল্পে নতুন ধারা সৃষ্টি করেছে। পত্রিকার পাতায় পাতায় এনেছে নতুনত্ব। আমরা অন্যদের কাছ থেকে কিছু নেয়নি। আমরা এমন অনেক ট্রেন্ড সৃষ্টি করছি যা অন্যরা এখন অনুসরণ করছে, অন্যান্য সংবাদমাধ্যমগুলোর জন্য অপরিহার্য হয়ে পড়েছে। আজকে যেসমস্ত কাগজগুলি দেশে ইসলামী সমাজ, ইসলামের প্রভাব বা এই রাষ্ট্রের মধ্যে মুসলিম সমাজের প্রভাব যারা কমিয়ে ফেলতে চান। যারা লাখো কোটি টাকা ব্যয় করে টেলিভিশন-পত্রিকা অনেক রকম কিছু ৩০-৪০ বছর থেকে কাজ করে যাচ্ছেন। আমরা কিন্তু তাদেরটা নেইনি। ইনকিলাব যেই ধারনার সূচনা করেছে, নামাজের সময়সূচি, রমজান কেন্দ্রীক ব্যাপক আলোচনা, বিভিন্ন ধরণের প্রশ্নত্তোর, ইসলামী জীবন সম্পন্ধে আরও অনেক কিছুকে বাংলাদেশের মূলধারার সংবাদমাধ্যমগুলো জন্য এখন অপরিহার্য হয়ে পড়েছে। এই কাজটা ইনকিলাব অতীতে করেছে, এখনো করছে। ইনকিলাবের প্রভাবে সকলে এই ধারাটা বজায় রাখতে বাধ্য হচ্ছেন। বাংলাদেশের রাজনীতিতেও দৈনিক ইনকিলাব অনেক প্রভাব রাখে। ইনকিলাবের এক মিলিয়ন (১০ লাখ) ফেইসবুক ফলোয়ার অন্যান্য কাগজের ১০ মিলিয়ন (এক কোটি) ফেইসবুক ফলোয়ারের থেকেও অনেক বেশি প্রভাবশালী। কারণ ইনকিলাবের ফেইসবুকে কোন পাজল নাই, কোন রসালো আলোচনা নাই, রগরগে ছবি নাই। এখানে ফেইসবুকে যেই পাঠকগুলো আছে তারা সিরিয়াস রিডার। তারা সিরিয়ার কোন বিষয়ে পড়া এবং বোঝার জন্য ইনকিলাবের সাথে রয়েছে। ইনকিলাবের ১০ লাখ মাইন্ডই ১০ লাখ চিন্তাশীল মানুষ। এরাই বাংলাদেশের মূলধারার রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ করে।
গণমাধ্যমে সঙ্কট তৈরি হয়েছে মন্তব্য করে প্রবীণ এই সম্পাদক বলেন, এখন অনেক কাগজ বড় বড় সাংবাদিক নিয়ে জন্ম হচ্ছে কিন্তু ছয় মাসের মধ্যেই ট্রায়াল এডিশনের আগেই বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। এই বছরের মধ্যে আরও কয়েকটা বন্ধ হবে। বড় বড় কাগজগুলো শুধু বাংলাদেশ না আমেরিকা, ইউরোপেও প্রিন্ট মিডিয়া, টেলিভিশনের অবস্থা হতাশার গল্প বলে, বন্ধের গল্প বলে। কিন্তু দৈনিক ইনকিলাব ইনশাআল্লাহ আমরা যেভাবেই আছি আল্লাহর অশেষ রহমতে এটি আগামী দিনে আরও সামনের দিকে এগিয়ে যাবে। অর্থনৈতিক অবস্থা মজবুত হবে। যারা কৃত্রিম পয়সায়, হারাম পয়সায়, রাজনৈতিক প্রভাবে বড় বড় প্রাসাদ করছে এগুলো অনেক কিছুই থাকবে না।
বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের মহাসচিব অধ্যক্ষ শাব্বির আহমদ মোমতাজী বলেন, জমিয়াতুল মোদার্রেছীন ও ইনকিলাব একই পরিবারের সদস্যের মতো। ইনকিলাব সারাদেশে পাঠকদের মধ্যে এমন একটি অবস্থান তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে যে, এটি না পড়লে অনেকের ঘুম হয় না। এখানে এমন অনেক তথ্য পাওয়া যায় যা অন্য কোন পত্রিকায় দেখা যায় না।
সহকারী সম্পাদক ওবায়দুর রহমান খান নদভী বলেন, মানুষের চিন্তাধারাকে পাল্টে দেয়ার জন্য, পরিবর্তন করার জন্য ইনকিলাব প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। নামাজের সময়, কুরআন হাদীসের বাণী, মুসলিম জাতির আন্তর্জাতিক সংবাদ, ইসলাম ধর্ম প্রচারের জন্য ইনকিলাবের পৃথক পাতা এখন সকলের কাছে অনুসরণীয়।
এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন ফিচার সম্পাদক ভাষা সৈনিক অধ্যাপক আব্দুল গফুর, সহকারী সম্পাদক মোবায়েদুর রহমান, সহকারী সম্পাদক মুন্সী আব্দুল মান্নান, সহকারী সম্পাদক একেএম ফজলুর রহমান মুন্সী, চিফ নিউজ কর্ডিনেটর এস এম হাফিজুর রহমান, বার্তা সম্পাদক সাকির আহমদ, ক্রিড়া সম্পাদক রেজাউর রহমান সোহাগ, পরিচালক আব্দুল কাদের, চিফ রিপোর্টার রফিক মুহাম্মদ, আইটি ইনচার্জ সৈয়দ এ রহমান গালিবসহ ইনকিলাবের সকল সাংবাদিক কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং শুভানুধ্যায়ী ইফতার ও দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন।



 

Show all comments
  • Fazlul Haque ৫ জুন, ২০১৮, ২:১৭ এএম says : 2
    আলহামদুলিল্লাহ। ইসলামি তাহজিব তামাদ্দুন রক্ষার মুখপত্র দেশের শীর্ষস্থানীয় দৈনিক ইনকিলাবের জন্য রইল শুভ কামনা।
    Total Reply(0) Reply
  • ওমর সানি ৫ জুন, ২০১৮, ২:১৭ এএম says : 2
    ইনকিলাব যতদিন তার নীতি নৈতিকতায় অটল থাকবে, ততদিন এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ তাদের পাশে থাকবে।
    Total Reply(0) Reply
  • AL Amin Shohag ৫ জুন, ২০১৮, ২:১৮ এএম says : 2
    Ma Sha Allah,Go Ahead The Daily Inqilab
    Total Reply(0) Reply
  • Millat ৫ জুন, ২০১৮, ২:১৮ এএম says : 2
    দৈনিক ইনকিলাব যত দিন ইসলামী আদর্শ, ভাবধারা অর্থাৎ জনগণের আশা-আকাঙ্খা ও চেতনা ধারণ করে দেশ, জাতি, স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বের পক্ষে অবিচল থাকবে তত দিন এ দেশের মানুষ আপনাদের পাশে থাকবে।
    Total Reply(0) Reply
  • রোমান কবির ৫ জুন, ২০১৮, ২:১৯ এএম says : 2
    রোজ কেয়ামত পর্যন্ত যেন দৈনিক ইনকিলাবের এই সিলসিলা জারি থাকে- মহান আল্লাহ রাব্বুল আল আমিনের কাছে সেটাই প্রার্থনা করি।
    Total Reply(0) Reply
  • Junaed Ahmad Emran ৫ জুন, ২০১৮, ২:২০ এএম says : 2
    আল্লাহ তায়ালা যেন আলহাজ্জ এম এ মান্নান (র.) কে জান্নাতে সু-উচ্চ মাকাম দান করেন । আমিন
    Total Reply(0) Reply
  • mafuz alam ৫ জুন, ২০১৮, ২:২০ এএম says : 1
    According to me The Daily Inqilab is the best newspaper of Bangladesh
    Total Reply(0) Reply
  • kasem ৫ জুন, ২০১৮, ২:২১ এএম says : 1
    দেশ ও জনগণের কাগজ দৈনিক ইনকিলাব জিন্দাবাদ।
    Total Reply(0) Reply
  • সফিক আহমেদ ৫ জুন, ২০১৮, ২:২১ এএম says : 1
    ইনকিলাব ছাড়া দেশে শতকরা ৯২ ভাগ মানুষের নিজস্ব কোন কাগজ নেই।
    Total Reply(0) Reply
  • ইমরান ৫ জুন, ২০১৮, ২:২১ এএম says : 1
    দৈনিক ইনকিলাবসহ অসংখ্য সৃষ্টির কারণে মাওলানা এমএ মান্নান (রহ) সাহেবকে যুগ যুগ ধরে এদেশের মানুষ স্বরণ রাখবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Bulbul Ahmed ৫ জুন, ২০১৮, ২:২৩ এএম says : 1
    ৩২ বছর পেরিয়ে গণমানুষের পত্রিকা দৈনিক ইনকিলাব ৩৩ বছরে পদার্পণ করল। আলহামদুলিল্লাহ।
    Total Reply(0) Reply
  • নাজিম ইসলাম ৫ জুন, ২০১৮, ২:২৪ এএম says : 1
    অনেক অনেক শুভ কামনা রইলো দৈনিক ইনকিলাবের জন্য......
    Total Reply(0) Reply
  • Jamal Uddin ৫ জুন, ২০১৮, ২:২৭ এএম says : 1
    জন্মলগ্ন থেকে দৈনিক ইনকিলাব দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব ও ইসলামী আকিদা বিশ্বাসের ব্যাপারে আপোষহীন ভূমিকা পালন করে আসছে। ইনকিলাব কারো পক্ষের বা বিপক্ষের নয় ‘ইনকিলাব শুধুমাত্র দেশ ও জনগণের পক্ষে’ কথা বলে যাচ্ছে। তাই ইনকিলাব এখনো দেশের মানুষের কাছে জনপ্রিয়।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Shah Alam Khan ৫ জুন, ২০১৮, ৯:২৬ এএম says : 0
    ৩২ বছর পারকরে ৩৩ বছরে পা দিয়েছে ইনকিলাব, গতকাল ইনকিলাব ভবনে ছিল পত্রিকার ইফতার অনুষ্ঠান। পত্রিকার সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন এই অনুষ্ঠানে তাঁর এবং পত্রিকার অগ্রযাত্রা নিয়ে বিশদ আলোচনা করেছেন। আমি ওনার কথা অবশ্যই সঠিক বলে মেনেছি তবে ওনার একটা দিক এখনও খুবই দুর্বল। আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা এবং পেশাগত ভাবে সাংবাদিক, আমি ওনার পত্রিকার নিয়মিত পাঠক এবং মন্তব্যকারী। সেই সুবাদে আমি ওনার একজন শুভাকাঙ্ক্ষী বটে। ১৯৯৪ সালে আমি যখন কানাডা বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশীপ সোসাইটির সভাপতি হিসাবে ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন করেছিলাম তখন এই পত্রিকা সবার চেয়ে ভাল ভাবে আমাদের সংবাদটা ছবি সহ প্রকাশ করে আমার মন কেড়ে নেয়। সেই থেক আমি এই পত্রিকার সাথে জড়িত। প্রকৃতপক্ষে পত্রিকা হচ্ছে দেশের জনগণের প্রতিবিম্ব/আয়না। কাজেই পত্রিকা কাওর নিজস্ব হতেই পারেনা এবং হয়না; তবে আমাদের দেশের এটা দেখা যায় না। যদিও কিছু সংখ্যক পত্রিকা চেষ্টা করে তারপরও তারা তাদের নিজস্ব ভাব ধারার মধ্যেই পত্রিকা নিয়ন্ত্রন করে থেকে। আমার মতে দেশে দুটা ভাবধারা বিরাজমান একটা বাঙ্গালী ভাবধারা অপরটা মুসলিম-বাঙ্গালী ভাবধারা। আমি প্রায়ই বাহাউদ্দিন সাহেবের বিভিন্ন বক্তব্যের সাথে আমার পরামর্শ সহ মন্তব্য করে থাকি। এবারো আমি কিছু বলতে চাইঃ প্রথমে আমি ওনাকে একটা প্রশ্ন করব, সেটা হচ্ছে কেন আওয়ামী লীগ ঘরানার সদস্য আপনার পত্রিকা পছন্দ করে না?? আপনি ৩২ বছরে এই সমস্যার সমাধান করতে পারেন নি এটাকি একটা প্রশ্ন নয়?? আমার মনে হয় আপনার এতগুলো জয়ের মধ্যে এটা একটা বড় পরাজয় তাই না?? এই ঘরানা আমার মতে বর্তমানে দেশের ৪০% এর উর্ধে হবে। আমি আপনাকে নিয়ে আমার প্রতিটি লিখায় আপনার ভাল দিক তুলে ধরেছি তবে আজ এই বিষয়ে এসেছি কারন এই দিকটা যদি আপনি জয় করতে পারেন তাহলে দেশের প্রকৃতই সর্বশ্রেষ্ঠ পত্রিকা হিসাবে ইনকিলাব স্বীকৃতি লাভ করবে এটাই সত্য তাই না?? আপনার একজন শুভাকাঙ্ক্ষী হিসাবে আপনার প্রতি বাংলাদেশের একজন প্রতিষ্ঠাতা হিসাবে পরামর্শ থাকবে যত শীগ্র পারেন পত্রিকায় যেমন ইসলামকে এনেছেন সাথে সাথে রাজনীতির একটা অংশকে এনেছেন তেমনি ভাবে দেশের বৃহত্তর রাজনৈতিক মতবাদকে আপনার পত্রিকার অংশ হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করুন দেখবেন আপনার পত্রিকা সারা বাংলাদেশের জনগণের প্রতিচ্ছবি/আয়না হিসাবে চিহ্নিত হয়ে বিকশিত হবে। বাহাউদ্দিন সাহেবের প্রতি আমার অনেক অনেক দোয়া রইল। আল্লাহ্ বাহাউদ্দিন সাহেবকে দীর্ঘায়ু সাথে সাথে সুসাস্থ দান করেন এবং সঠিক ভাবে এগিয়ে যাবার শক্তি দান করেন। আমীন
    Total Reply(0) Reply
  • হাফিজুর রহমান ৫ জুন, ২০১৮, ৩:০২ পিএম says : 0
    দোয়া করছি সম্পাদক আলহাজ এ এম এম বাহাউদ্দীন সাহেবের কথাই যেন সত্যি হয়।
    Total Reply(0) Reply
  • নিঝুম ৫ জুন, ২০১৮, ৩:০৪ পিএম says : 0
    ৩৩ বছর নয় দোয়া করি এই পত্রিকার সম্পাদক হিসেবে আরও অনেক দিন দেশ ও জাতির খেদমত করেন।
    Total Reply(0) Reply
  • সোহরাব হোসেন ৫ জুন, ২০১৮, ৪:৫৫ পিএম says : 0
    ইসলামী মূল্যবোধের ভিত্তিতে সমাজ গঠনে যে দর্শন সেটাতে সবসময় ইনকিলাব দৃঢ় অবস্থানে রয়েছে। তাই আমরা এর পাশে আছি, ভবিষ্যতেও থাকবো
    Total Reply(0) Reply
  • Sanjida ৫ জুন, ২০১৮, ৪:৫৬ পিএম says : 0
    ইনকিলাবের পক্ষে আছি ভবিষ্যতেও থাকবো।
    Total Reply(0) Reply
  • ইমতিয়াজ আলী ৫ জুন, ২০১৮, ৪:৫৭ পিএম says : 0
    ইনকিলাব দেশের মানুষের কাছে জনপ্রিয় এবং ইসলামী জনতার কাছে মূখপত্র হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসছে।
    Total Reply(0) Reply
  • বাবুল ৫ জুন, ২০১৮, ৪:৫৭ পিএম says : 0
    মাওলানা এম.এ আব্দুল মান্নান (রঃ) ও তার সহধর্মিণী হোসনে আরা বেগমের রুহের মাগফিরাত কামনা করছি
    Total Reply(0) Reply
  • বিপ্লব ৫ জুন, ২০১৮, ৪:৫৮ পিএম says : 0
    ইনকিলাব এ দেশ ও দেশের স্বাধীনতার অতন্দ্র প্রহরী।
    Total Reply(0) Reply
  • জাবেদ ৫ জুন, ২০১৮, ৫:১০ পিএম says : 0
    ইনকিলাব পদে পদে নানা প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও এ দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের আকীদা-বিশ্বাসে যে কোনো আঘাতের বিরুদ্ধে সর্বদা সতর্ক, সজাগ। ইসলামকে নিয়ে মস্কারা করা, ইসলাম ও কোরআন হাদীসের অবমাননা করাকে ইনকিলাব কিছুতেই প্রশ্রয় দেয় না। যারা ইসলামের বিকৃতি-অপব্যাখ্যার মাধ্যমে সাধারণ মুসলমানদের বিভ্রান্ত ও বিপদগামী করতে চায়, ইনকিলাব তাদের বিরুদ্ধে দৃঢ় অবস্থান নেয় এবং এসব ব্যাপারে আলেম সমাজকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানায়।
    Total Reply(0) Reply
  • মীর মোর্শেদ ৫ জুন, ২০১৮, ৫:১১ পিএম says : 0
    ইনকিলাব তার ঐতিহ্যকে ধরে রাখুক- এটাই আমাদের প্রত্যাশা। কারণ এই পত্রিকার সাথে জড়িয়ে আছে দেশের গৌরবগাঁথা, অনেক নানা জানা অধ্যায়।
    Total Reply(0) Reply
  • লাভলু ৫ জুন, ২০১৮, ৫:১৩ পিএম says : 0
    এদেশের সংখ্যাঘরিষ্ট মানুষ দেশ প্রেম ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী। আর এটাই সত্যিকার বাংলাদেশের বাস্তবতা। ইনকিলাব মূল ধারার এই চেতনাকে লালন করে আসছে। তাইতো ইনকিলাব খাঁটি বাংলাদেশী পত্রিকা।
    Total Reply(0) Reply
  • এমদাদুল হক ৫ জুন, ২০১৮, ৫:১৫ পিএম says : 0
    দৈনিক ইনকিলাবের মত অসংখ্য ভালো প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করায় দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন সাহেবকে অসংখ্য ধন্যবাদ
    Total Reply(0) Reply
  • রফিকুল ইসলাম ৫ জুন, ২০১৮, ৫:১৬ পিএম says : 0
    দৈনিক ইনকিলাব দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব, নিরাপত্তা এবং জাতীয় স্বার্থ সংরক্ষণের পাশাপাশি ইসলামী ঐতিহ্য মূল্যবোধগুলোকে প্রচারের ক্ষেত্রে যেভাবে প্রাধান্য দিয়ে থাকে, তা অনন্য, অসাধারণ।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ