Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

আমিরাতে প্রবাসী সাংবাদিক সমিতির ইফতার মাহফিল

| প্রকাশের সময় : ৬ জুন, ২০১৮, ১২:৫৬ এএম

ছালাহউদ্দিন, আরব আমিরাত থেকে : আরব আমিরাত প্রবাসী সাংবাদিক সমিতি (প্রসাস)-এর উদ্যোগে গত রোববার শারজাহ আল-ইয়াসমিন রেস্টুরেন্টের হলরুমে বিশিষ্ট ব্যক্তি, রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ প্রবাসীদের সম্মানে ইফতার ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। প্রসাসের আহŸায়ক মুহাম্মদ নূরুল আবছার তৈয়বীর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব সাইফুল ইসলাম তালুকদারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে প্রধান বক্তা ছিলেন প্রবাসী কমিউনিটি নেতা মাওলানা ফজলুল কবীর চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ সমিতি শারজাহ শাখার সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব শরাফত আলী, জনতা ব্যাংক শারজাহ শাখার ম্যানেজার মাহবুবুর রহমান, প্রবাসী কমিউনিটি নেতা ইঞ্জিনিয়ার আবু নাছের, প্রবাসী মিরসরাই সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ মাজহারুল্লাহ মিয়া, দুবাই বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি কাজী মুহাম্মদ আলী, জাহেদ পারভেজ ইমাম, প্রকৌ: জাহাঙ্গীর আলম রুপু ও মেহেদি হাসানসহ অতিথিবৃন্দ। সাংবাদিকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রসাসের সাবেক সভাপতি শিবলি আল সাদিক, সাবেক সহ-সভাপতি এম আবদুল মান্নান, সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি নাসিম উদ্দিন আকাশ, মোহাম্মদ ওসমান চৌধুরী, গিয়াস উদ্দিন সিকদার, আবদুল্লাহ আল শাহীন, মোহাম্মদ ইসতিয়াক, মোহাম্মদ নুরুল্লাহ খান, ওবায়দুল হক, আজিমুল গনি প্রমুখ।

প্রবাস জীবন বিভাগে সংবাদ পাঠানোর ঠিকানা
probashjibon.inqilab@gmail.com



 

Show all comments
  • মোঃ এমদাদউল্লাহ ২৮ আগস্ট, ২০১৮, ৯:৪০ এএম says : 0
    আমি প্রবাস সাংবাদিক ভাইদের কে অনুরুধ করছি যদি আবুধাবি আপনাদের মিডিয়ার লোক থাকে।তাহলে একবার মাফরাক চায়না ক্যাম্প এর পশ্চিমে কমডোর কন্ট্রাকটিং কম্পানিতে একবার হলেও খুজ খবর নিয়ে দেখুন।আপনারা কি আরাম আয়েশে ঘুমানোর জন্যই ওই দেশে গিয়েছেন ভাই।কারন এ কোম্পানিতে বিভিন্ন কান্ট্রির প্রায় ৫ হাজারের মত লোক ছিলাম আমরা।আমি আল্লাহর রহমতে প্রায় ৭ মাস আবদি হয়ে গেছে দেশে আল্লাহ এনেছেন এ জন্য আল্লাহর দরবারে লাখ লাখ শুকরি। কারন কি যানেন প্রায় ৯ মাস মারাত্তক কস্টে ছিলাম।৯ মাস যদি কোন বেতন না দেয় কে কাজ করবে বলুন।এ দিকে দেশেও পাঠাচ্ছিল না আমাদেরকে।আমরা বাধ্য হয়ে ট্রাক রোড ব্লক করেছি যেন মিডিয়াতে এ খবর প্রচার হয় কিন্ত না কিছুই হয়নি।প্রতিদিন পুলিশের সাথে কমপক্ষে ৫/৭ বার সংঘর্ষ হত।পুলিশ আমাদের ক্যাম্পের গেইটের সামনে তাবু গেরে প্রায় ৭ মাস ধরে অবস্থান করছে এখনো অনেক ভাইয়েরা আছেন।সে কাহিনি বলতে গেলে সারাদিন রাত্র লাগবে সেস হবেনা।তবে একটা কথা না বললেই নয় আরব দেশের মানুষ হল দুনিয়ার অ মানুষ তাদের যবান একদম ঠিক নাই।এরা আমাদের কে মানুষ মনে করে না গরু ছাগল মনে করে।৯ মাসের মদ্দে কত হাজার আরবি এসে ওয়াদা করে গেল তার কোন হিসাব নাই।যাই হক মিডিয়ার ভাইদের কে অনুরোধ করছি মিথ্যা হলে একবার খোজ নিয়েই দেখুন।মাফরাক চায়নাক্যাম্প বর মদিনা মারকেটের পশ্চিমে কমডোর কম্পানি।এখনো অনেক লোক আছে এরা মনে চাইলে কয়েকজন কয়েকজন করে দেশে পাঠাচ্ছে।সামান্ন কিছু টাকা হাতে ধরিয়ে দিচ্ছে এটাই তাদের মানবতা আই হেট ইউ দুবাই। আল্লাহ হাফেজ
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।