Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ০১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম

| প্রকাশের সময় : ৮ জুন, ২০১৮, ১২:০০ এএম

প্রশ্নঃ হানাফী যদি মালেকী ইমামের পিছনে নামায শুরু করার পর দেখে যে, যে আয়াতে তার উপর সিজদাহ ওয়াজিব হয় সে আয়াত তিলাওয়াত করেও মালেকী ইমাম সিজদাহ করেনি, তখন সে কী করবে?
উত্তরঃ তাকেও সিজদাহ করতে হবে না। কারণ, ইমাম সিজদাহ করলেই কেবল মুক্তাদীর উপর সিজদাহ ওয়াজিব হয়। এমনকি হানাফী ইমামও যদি সিজদার আয়াত সিজদাহ না করে তাহলে মুক্তাদির উপর সিজদাহ ওয়াজিব হবে না। (গায়াতুল আওতার)
প্রশ্নঃ সিজদায়ে তিলাওয়াত কার উপর ওয়াজিব হয়?
উত্তরঃ প্রাপ্তবয়স্ক ও বুদ্ধিসম্পন্ন প্রত্যেক মুসলমান এর উপর সিজদাহর আয়াত পড়া বা শোনার কারণে সিজাদয়ে তিলাওয়াত ওয়াজিব হয়।
প্রশ্নঃ সিজদাহর আয়াত পড়া বা শোনার পরও কাদের উপর সিজদাহ ওয়াজিব হয় না?
উত্তরঃ অমুসলিম, পাগল, নাবালক ও হায়েজ-নিফাসী মহিলা। তবে এদের কাছ থেকে অন্য মুসলমান শুনলে তার উপর ওয়াজিব হবে।
প্রশ্ন: সিজদাহর আয়াত বানান করে পড়লে বা শুনলে সিজদাহ ওয়াজিব হবে কি?
উ: না ওয়াজিব হবে না।
প্রশ্ন: নামাযের বাইরে সিজদাহ ওয়জিব হলে কিভাবে আদায় করতে হবে?
উ: হাত না উঠিয়ে দাঁড়ানো থেকে আল্লাহু আকবার বলে সোজা সিজদায় চলে যেতে হবে এবং সুবহানা রাব্বিয়াল আ’লা তিনবার পড়ে আল্লাহু আকবার বলে দাঁড়াতে হবে।
প্রশ্ন: সিজদায়ে তিলাওয়াতে শর্ত কি কি?
উ: পবিত্রতা, সতরে আওরাত, কিবলামুখী হওয়া এবং নিয়ত করা।
-মুফতী ওয়ালীয়ুর রহমান খান



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর