Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ০৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

ইফতার মাহফিলে স্পিকার: ইসলাম মানবতার ধর্ম শান্তির পথ দেখায়

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ জুন, ২০১৮, ১২:০০ এএম

জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেন, ইসলাম মানবতার ধর্ম- ইসলাম শান্তির পথ দেখায়। পবিত্র রমজান সংযমের মাস। এ মাস আত্মশুদ্ধির মাধ্যমে খাঁটি মানুষ হওয়ার শিক্ষা দেয়। রমজানের প্রকৃত শিক্ষা ধারণ করে মানবপ্রেমী হতে তিনি সকলের প্রতি আহবান জানান।
গতকাল শুক্রবার রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকার সূচনা কমিউনিটি সেন্টারে পীরগঞ্জ সমিতি, ঢাকার আয়োজিত ইফতার মাহফিলে স্পীকার এসব কথা বলেন। স্পীকার বলেন, এ ইফতার মাহফিল ঢাকাস্থ পীরগঞ্জবাসী এবং বিভিন্ন পর্যায়ের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে একত্রিত হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে। ফলে উপস্থিত সবার মধ্যে সাক্ষাত ও ভাববিনিময়ের সুযোগ তৈরী হয়েছে। তিনি ভ্রাতৃত্ববোধ ও সেবার মানসিকতা নিয়ে সকলকে উপজেলার উন্নয়নে একযোগে কাজ করার আহবান জানান। তিনি বলেন, পীরগঞ্জ উপজেলার সকল ইউনিয়নে সুষম উন্নয়ন নিশ্চিত করা হয়েছে। স্কুল, কলেজ, বিদ্যুৎ, অবকাঠামো উন্নয়নসহ ইতোমধ্যে সকল নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এ সময় তিনি পীরগঞ্জ উপজেলার সকল কৃতী সন্তানদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। ইফতার মাহফিলে দেশ ও জাতি এবং মুসলিম উম্মাহর সুখ ও সমৃদ্ধি কামনা করে মোনাজাত করা হয়। পীরগঞ্জ সমিতির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছ বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী সেলিনা খাতুন এবং পীরগঞ্জের পৌর মেয়র আবু সালেহ মো: তাজিমুল ইসলাম শামীম।
এদিকে সকালে ঢাকার আশুলিয়ায় বোধিজ্ঞান ভাবনা কেন্দ্রে দু’দিন ব্যাপী আর্ন্তজাতিক বৌদ্ধ শান্তি সম্মেলন ২০১৮ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, সকল ধর্মে শান্তি ও সমপ্রীতিকে সমানভাবে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। বাংলাদেশ শান্তি ও সমপ্রীতির দেশ। এখানে ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সকল মানুষ এক অভূতপূর্ব মেলবন্ধনে সহবস্থান করছে। স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অসামপ্রদায়িক রাষ্ট্র উপহার দিয়েছেন। স্পিকার বলেন, বাংলাদেশের সংবিধানে অসামপ্রদায়িক দেশের কথা উল্লেখ রয়েছে। পরমতের প্রতি শ্রদ্ধা গণতন্ত্রের পূর্ব শর্ত। তিনি বলেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার এই মন্ত্রে দীক্ষিত হয়ে বাংলাদেশের জনগণ সকল ধর্মীয় উৎসব, সার্বজনীন বাংলা নববর্ষ, পহেলা বৈশাখ এবং জাতীয় উৎসব গুলো আড়ম্বরভাবে উদযাপন করে থাকে। এসময় তিনি প্রীতি ও সহমর্মিতার বন্ধন অটুট রেখে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে সকলকে এক সাথে কাজ করে যাওয়ার আহবান জানান। তিনি বলেন, বৌদ্ধজ্ঞান ভাবনা কেন্দ্রের অনুসারীবৃন্দসহ সকল ধর্মের অনুসারীরা মানবাধিকার রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে এবং সবার জন্য শান্তিময় বাসযোগ্য পৃথিবী গড়ে তুলবে। আসিন জেন রক্ষিত থের এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা. এনামুর রহমান এমপি, প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের সচিব ড. সম্পদ বড়ুয়া, প্রতিভা মতসুদ্দি, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া,বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপ সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া ও আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ সম্মেলন উদযাপন পরিষদের আহবায়ক ড. প্রশান্ত ভূষণ বড়ুয়া।

সকল ধর্মের মানুষ শান্তিতে বসবাস করছে
সাভার থেকে স্টাফ রিপোর্টার জানান, আওয়ামী লীগ সরকারের সময় দেশের সকল ধর্মের মানুষ শান্তিতে বসবাস করছে এবং দেশের উন্নয়নের জোয়ার বইছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদ এর স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। গতকাল শুক্রবার দুপুরে সাভারের আশুলিয়ায় বঙ্গবন্ধু রোড এলাকায় বোধিজ্ঞান ভাবনা কেন্দ্র (বৌদ্ধ বিহারে) দুই দিন ব্যাপী আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ শান্তি সম্মেলনে যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।
জাতীয় সংসদ এর স্পিকার এসময় আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন বিশে^র কাছে উন্নয়নের রোল মডেল। দেশের সকল ধর্মের মানুষ শান্তিতে বসবাস করছে।
তিনি বলেন, ধর্মই সকল মানুষকে শান্তির বার্তা পৌছে দেয়। আওয়ামী লীগ সরকার দেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে দিন রাত কাজ করে যাচ্ছে। দেশে এখন কোন দারিদ্র নেই জানিয়ে তিনি আরও বলেন, এবারের বাজেট অনেক বড় বাজেট। দেশে দারিদ্রের হার ৪০ থেকে ২৩ ভাগে নামিয়ে আনা হয়েছে ও অতি দারিদ্র দুর করনে সরকার জোরালো ভ‚মিকা পালন করে আসছে।
বোধিজ্ঞান ভাবনা কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠা পরিচালক আসিন জিন রক্ষিত থের এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন সাভারের সংসদ সদস্য ডা.এনামুর রহমান, আশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন মাদবর, প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের সচিব মি. সম্পদ বড়–য়াসহ আরো অনেকে। দুই দিন ব্যাপী আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ শান্তি সম্মেলনে এসময় প্রায় এক হাজারের বেশী বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা অংশ গ্রহন করেন।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ