Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

চুনোপুঁটিদের হত্যা করে সমাজকে মাদকমুক্ত করা যাবে না -ড. কামাল হোসেন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ জুন, ২০১৮, ৩:৪৬ পিএম

চুনোপুঁটিদের বিনা বিচারে হত্যা করে সমাজকে মাদকমুক্ত করা যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। তিনি বলেন, দেশের মানুষ মাদকের ভয়াবহতা থেকে মুক্তি চায়। তবে বিচার-বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড কোনোভাবেই সমর্থন করা যায় না। দলমত নির্বিশেষে প্রকৃত মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। বিচারের মাধ্যমে মাদকের শিকড় সমাজের থেকে সমূলে উৎপাটনের আহবান জানান তিনি।

শনিবার এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন। দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মোশতাক আহমেদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে দেয়া বিবৃতিতে ড. কামাল হোসেন আরো বলেন, দেশের মানুষ মাদকের শিকড় সমূলে উৎপাটন চায়। কিন্তু টেকনাফের সরকারী দলীয় সংসদ সদস্য বদিসহ মাদক ব্যবসার গড্ফাদারদের আড়াল করে, মন্ত্রীরা তাদের পক্ষে সাফাই সাক্ষী গেয়ে, অপরাধীদের বিদেশ পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দিয়ে মাদকবিরোধী অভিযানকে প্রশ্নবিদ্ধ করা হয়েছে।

ড. কামাল বলেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে কথিত বন্দুকযুদ্ধে বিচার-বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড কোনোভাবেই সমর্থন করা যায় না। এছাড়া চুনোপুঁটিদের বিনা বিচারে হত্যা করে সমাজকে মাদকমুক্ত করা যাবে না বলে তিনি মত দেন। আইন-বহির্ভূত বিনা বিচারে হত্যাকাণ্ড চালিয়ে পৃথিবীর কোনো দেশেই মাদকবিরোধী অভিযান সফল হয়নি। তিনি বন্দুকযুদ্ধের নামে বিচার-বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড বন্ধ করার দাবি জানান। টেকনাফের কাউন্সিলর ইকরাম হত্যার নিন্দা জানিয়ে দোষীদের আইনের আওতায় আনা এবং বিচারের দাবি জানান তিনি ।



 

Show all comments
  • Mohammed Shah Alam Khan ৯ জুন, ২০১৮, ৬:১৩ পিএম says : 2
    গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বিচারের মাধ্যমে মাদকের শিকড় সমাজের থেকে সমূলে উৎপাটনের আহবান জানিয়ছেন। কামাল হোসেনের এই বক্তব্যের জবাবে আমি বলতে চাই তিনি নিজে একজন আইনজ্ঞ যিনি হাইকোর্টে উকালতি করেন। যুগ যুগ ধরে দেশের লোকজন এই মাদকের বিরুদ্ধে সচ্চোর ছিল এবং পুলিশ আইনের হাতে হাজার হাজার মাদক ব্যাবসায়িকে তুলে দেয়ার পর উকিলরা কিভাবে এসব মাদক ব্যাবসায়িদেরকে বাঁচিয়ে আবার দ্বিগুণ শক্তি নিয়ে মাদক ব্যাবসা করার সুযোগ করে দিচ্ছে সেটা কি আমাদের বিজ্ঞ আইন বিশেষজ্ঞ কামাল সাহেবের নজরে আসেনি?? ওনারা চাইলে অনেক আগেই আইনের মাধ্যমে মাদকে বিদায় দেয়া সম্ভব ছিল তাই না?? কিন্তু ওনারা সেটা এতদিন করেন নি বাঁ বলেন নি এখন যখন সরকার করছেন তখন ওনাদের মুখদিয়ে নীতি বের হচ্ছে তাই না?? কামাল সাহেব আরো বলেছেন, ‘চুনোপুঁটিদের বিনা বিচারে হত্যা করে সমাজকে মাদকমুক্ত করা যাবে না’ তিনি আরো বলেন, ‘দেশের মানুষ মাদকের ভয়াবহতা থেকে মুক্তি চায়। তবে বিচার-বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড কোনোভাবেই সমর্থন করা যায় না’। ওনার মত একজন বিজ্ঞ লোকের মুখ থেকে পরস্পর বিরুধি কথা কি শোভা পায়?? মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করা হয়েছে এখন পেছনে ফেরার সময় নেই দেশ থেকে মাদককে নির্মূল করে বিজয়ীর বেশে যুদ্ধ জয় করে তবেই ঘরে ফিরতে হবে তাই না?? চুনোপুটিরাই সবচেয়ে ভয়াবহ এটাই সত্য, চুনোপুটিদেরকে সমূলে নির্মূল করতে পারলেই রুই কাতলাদের ধরা সহজ হবে এবং মাদক ব্যাবসা বন্ধ হবে এই সহজ দিকটা কামাল সাহেব ভাবতে চান না এটাই আশ্চার্য নয় কি?? আল্লাহ্‌ আমাদের সমাজের নবীন ও প্রবীণ দেরকে মাদকের হাত থেকে রক্ষা করুন। আমীন
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ