Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫, ১৩ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

গ্রাহকসেবায় শৈথিল্য : রূপালী ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক বরখাস্ত

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ জুন, ২০১৮, ১২:০০ এএম

গ্রাহক সেবায় শৈথিল্য প্রদর্শন করার কারণে রাষ্ট্রায়ত্ত রূপালী ব্যাংকের এক শাখা ব্যবস্থাপককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।
রূপালী ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি রূপালী ব্যাংক উত্তরা মডেল টাউন কর্পোরেট শাখায় সেবা শৈথিল্যের জন্য গ্রাহক ও ক্যাশিয়ারের মধ্যে এক অপ্রীতিকর অবস্থার সৃষ্টি হয়। গত মঙ্গলবার ব্যাংকের একজন গ্রাহকের জমাকৃত টাকার পরিমান নিয়ে গ্রাহক ও ক্যাশিয়ারের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি হয় ও এক পর্যায়ে কথা কাটাকাটি হয়।
গ্রাহক অভিযোগ করেন, তিনি ভাউচারসহ এক লক্ষ বিশ হাজার টাকা ক্যাশ কাউন্টারে জমা দেন। টাকা গণনা করে ক্যাশিয়ার দশ হাজার টাকা কম আছে এবং আরও দশ হাজার টাকা জমা দিতে হবে বলে জানান।
বিষয়টি নিয়ে উত্তরা মডেল টাউন কর্পোরেট শাখার ক্যাশিয়ারকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, ওই গ্রাহক কয়েক বান্ডিলে ভাগ করে টাকা জমা দেন। আমি গণনা করে এক লক্ষ দশ হাজার টাকা বুঝে পাই এবং ক্যাশ বাক্সের অন্যান্য টাকার সঙ্গে মিলিয়ে ফেলি। আমি গ্রাহককে বোঝানো চেষ্টা করি আমার ভুল হতে পারে তবে, লেনদেন শেষ হওয়ার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে। সে পর্যন্ত আপনাকে একটু কষ্ট করে অপেক্ষা করতে হবে। শাখার ব্যবস্থাপক মো. আমিনুল ইসলামকে জিজ্ঞাসা করা হলে, ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে তিনি বলেন, টাকা জমা দেয়া নিয়ে গ্রাহকের সাথে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। বিষয়টি আমার নজরে এলে তাৎক্ষণিক সুরাহা করার চেষ্টা করি। তবে যেহেতু ক্যাশ কাউন্টারে বহু গ্রাহকের টাকা লেনদেন হয় তাই তাৎক্ষনিক হিসাব কষে টাকা উদ্বৃত্ত আছে কিনা তা জানা সম্ভব নয় বিধায় গ্রাহককে বিনয়ের সহিত লেনদেন শেষ হওয়া অবধি অপেক্ষা করতে বলি। তারপরও সংক্ষুদ্ধ গ্রাহক ঘটনাটি মোবাইলে ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করে দেয়।
রূপালী ব্যাংক জানায়, এই বিষয়টি ব্যাংকের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নজরে এলে ঘটনার পরের দিনই ব্যাংকের এমডি ও জিএম কর্তৃক শাখা পরিদর্শন করে। গ্রাহকের অভিযোগ আমলে নিয়ে গ্রাহকের স্বার্থকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে শাখার ব্যবস্থাপক (ডিজিএম) কে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় এবং এ বিষয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।
এ ধরনের ঘটনা শুধু রূপালী ব্যাংকেই প্রথম নয়। উন্নত ও মানসম্মত সেবা প্রদানের লক্ষে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তাদের কর্মে দক্ষ হওয়া খুবই জরুরী। এক্ষেত্রে রূপালী ব্যাংকের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের উদ্যোগ প্রশংসনীয় বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ