Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

‘চাপে’ ছিল ব্রাজিল

| প্রকাশের সময় : ১৮ জুন, ২০১৮, ১০:০৮ পিএম

স্পোর্টস ডেস্ক : ঠোঁটকাটা স্বভাবের জন্য বেশ পরিচিত ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কোচ হোসে মরিনহো। তবে তার ফুটবল জ্ঞান নিয়ে সহজে প্রশ্ন তুলবেন না কেউ। পরশু মেক্সিকোর কাছে হেরে বসে বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানি; রাতের পরের ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে ড্র করে রেকর্ড পাঁচ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। দুই ফেভারিটের এমন হতাশাময় রাতকে মোরিনহো ‘ফুটবলের জন্য অসাধারণ দিন’ বলে অবিহিত করেছেন। জার্মানি ও ব্রাজিলের উদ্দেশ্যে একটু খোঁচা দিয়েই পর্তুগিজ কোচ বলেন, ‘পা মাটিতে রাখার জন্য এটা সম্ভবত তাদের জন্য ভালো হবে।’
ব্রাজিল কোচ তিতে বললেন ভিন্ন কথা। ম্যাচে আধিপত্য ধরে রাখলেও পরিষ্কার কোন সুযোগ তৈরী করতে পারেনি তার দল। যদিও ফিলিপ কুতিনহোর গোলেই ২০তম মিনিটে এগিযে যায় তার দল। এই গোল করার আগে নাকি তার দলে ভীতি ও চাপ কাজ করছিল। ম্যাচ শেষে এমনটিই জানান তিতে, ‘গোল করার আগ পর্যন্ত অনেক চাপ ছিল, অনেক শঙ্কাও ছিল। এসব আমাদের খেলায় প্রভাব ফেলেছে। আমরা নিখুঁত ফুটবল খেলতে পারিনি।’ অংশিক সুযোগগুলোও কাজে লাগাতে পারলে ম্যাচের ফল ভিন্ন হতে পারত; এমনটিই মনে করেন ব্রাজিল কোচ তিতে, ‘আমরা কিছু ভালো ও পরিষ্কার সুযোগ পেয়েছিলাম কিন্তু আমরা আরো বেশি নির্ভুল হতে পারতাম।’ বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচ খেলার ভাবনা থেকেই এই উদ্বেগ এসেছে বলে মনে করেন তিতে।
রস্তভ অ্যারেনায় সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ব্রাজিল উৎসবের প্রস্তুতি সারে কুতিনহোর দুরপাল্লার আচমকা শট থেকে। এখন পর্যন্ত যেটাকে আসরের সেরা গোল বললেও অত্তুক্তি হবে না। মনে হচ্ছিল সহজ জয় দিয়েই বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে সেলেসাওরা। কিন্তু আসরের ফেভারিটদের পরবর্তিতে চুল পরিমান ছাড় না দিয়ে ম্যাচে ফেরে সুইসরা। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে স্টিফেন জুবেরের দারুণ হেডে ম্যাচে ফেরে লাল জার্সিধারীরা। জুবেরের হেডে সমতায় ফেরার পর সুইস ভক্তরা অপেক্ষা করছিল আরো ভালো কিছুর জন্যে। পরে অবশ্য অনেকটা শারীরিক ফুটবলের আশ্রয় নেয় সুইসরা। যে কারণে নেইমার-জেসুস-উইলিয়ানে গড়া আক্রমণভাগ নিয়ে ভয়ঙ্কর বেশ কিছু আক্রমণে আতঙ্ক ছড়ালেও আদম্য সুইসদের রক্ষনাত্মক মনোভাবের কাছে হার মানে ব্রাজিল।
সুইজারল্যান্ডের শারীরিক ফুটবলের সমালোচনা করেছেন ব্রাজিল অধিনায়ক নেইমার। বার বার ফাউলের শিকার হওয়া নেইমার নিজের সুরক্ষার ভার ছেড়ে দিয়েছেন রেফারির উপর, ‘আমাকে ফুটবল খেলতে হয় বা খেলার চেষ্টা করতে হয়। এটা দেখার জন্য রেফারি আছেন। হয়তো এটাই স্বাভাবিকই (নিয়মিত ফাউলের শিকার হওয়া) হয়ে যাবে।’ আঘাত পেয়ে মাঠে বেশ করার কাতরাতে দেখা যায় নেইমারকে। তবে আঘাতগুলো মারাত্মক ছিল না জানিয়ে ভক্তদের আস্বস্থ করেন ২৬ বছর বয়সী তারকা, ‘আমাকে আঘাত করা হযেছিল এবং এটা ছিল বেদনাদায়ক। কিন্তু চিন্তার কিছু নেই। শরীর ঠান্ডা হয়ে গেলে ব্যাথা একটু বেশি লাগে। তবে আমি ঠিক আছি।’ দলের চিকিৎসক রদ্রিগো লাসমারও নেইমারের খেলার ব্যাপারে শতভাগ নিশ্চয়তা দিয়েছেন।
‘ই’ গ্রæপের পরবর্তী ম্যাচ ২২ জুন। ঐদিন ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ কোস্টারিকা। গ্রæপের প্রথম ম্যাচে কোস্টারিকাকে একমাত্র গোলে হারানো সার্বিয়া খেলবে সুইজারল্যঅন্ডের বিপক্ষে।
ম্যাচ স্ট্যাট : এই ম্যাচ দিয়েই সুইজারল্যান্ডের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে চারটি বিশ্বকাপে অংশ নেয়ার গৌরব অর্জন করেছেন ভালন বেহরামি। ২০১৬ জার্মান বিশ্বকাপ থেকে শুরু করে মাঝে ২০১০ দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপ ও ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপের পর এবার রাশিয়া বিশ্বকাপের অংশ নিয়ে ইতিহাসের অংশ হন ৩৩ বছর বয়সী মিডফিল্ডার। একই রাতে বিশ্বাপের মূল পর্বে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ (৮) ম্যাচ খেলা কিকি অ্যান্তেনেন্সের রেকর্ডেও ভাগ বসে। তবে সেই খেলোয়াড়টি বেহরামি নন। কিকির রেকর্ডে ভাগ বসান দলের ৩৪ বছর বয়সী জুভেন্টাস ডিফেন্ডার স্টিফেন লিখটেইনার।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ