Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ০৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

পানামাকে নিয়ে খেলল ইংল্যান্ড

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ জুন, ২০১৮, ১১:২৮ পিএম

বিশ্বকাপে প্রথমবারের মত খেলতে আসা পানামাকে নিয়ে রিতিমত খেলেছে ইংলিশরা। প্রথমার্ধেই স্কোরলাইন ৫-০! আত্মতুষ্টিতে ভোগা ইংল্যান্ড দ্বিতীয়ার্ধে গোল পায় মাত্র একটি। তাতেই ৬-১ গোলের বিশাল জয়ে বেলজিয়ামকে সঙ্গী করে আসরের শেষ ষোলয় উঠেছে ইংল্যান্ড। বিদায় নিশ্চিত হয়েছে ‘জি’ গ্রæপের বাকি দুই সদস্য তিউনিসিয়া ও পানামার।
৬২ মিনিটেই হ্যাটট্রিক পূর্ণ করে মাঠ ছাড়েন হ্যারি কেইন। প্রথম দুই গোল করেন পেনাল্টি থেকে। তৃতীয় গোলটি ছিল আরো ভাগ্য প্রসূত; রুবেন লফটাস-চেকের দুরপাল্লার বুলেটগতির শট ভাগ্যক্রমে কেইনের পায়ে লেগে গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে জালে জড়ায়। এই গোলের মাধ্যমে জিওফ হার্স্ট (১৯৬৬) ও গ্রে লিনেকারের (১৯৮৬) পর তৃতীয় ইংলিশ হিসেবে বিশ্বকাপে হ্যাটট্রিকের কৃতিত্ব গড়েন কেইন। একই সঙ্গে ৫ গোল করে রোমেলু লুকাকু ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে ছাড়িয়ে উঠে এসেছেন আসরের সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায়।
গতকাল নিঝনি নভগোরোদ স্টেডিয়ামে স্বপ্নীল শুরু করে গ্যারেথ সাইথগেটের দল। প্রথমার্ধের শেষ ১৫ মিনিট ছিল আরো বিধ্বংসী। এসময় গোল আসে তিনটি। সব মিলে পানামার উগ্র ডিফেন্ডারদের বিপক্ষে প্রথমার্ধে দুটি পেনাল্টি পায় ইংলিশরা। দুটি থেকেই বিদ্যুৎগতির সফল শটে গোল আদায় করে নেন ইংলিশ দলপতি কেইন। জোড়া গোলের মাধ্যমে ইংল্যান্ডের হয়ে গোলের খাতা খোলেন জন স্টোনস; দুটিই হেড থেকে। প্রথমটি আসে ম্যাচের অষ্টম মিনিটে কর্ণার থেকে ভেসে আসা বলে সফল হেডের মাধ্যমে। দ্বিতীয়টি স্টার্লিংয়ের হেড গোলরক্ষক ফিরিয়ে দিলে ফিরতি বল খুব কাছ থেকে সহজ হেডে ব্যবধান ৪-০ করে দেন ম্যানচেস্টার সিটি ডিফেন্ডার।
তবে সৌন্দর্যের বিচারে সব গোলকে হার মানায় এর চার মিনিট আগে জেসে লিঙ্গার্ডের করা ম্যাচের তৃতীয় গোলটি। দারুণ দলীয় বোঝাপড়ার পর ডি বক্সের বাইরে থেকে মাপা বাঁকানো শটে দূরহ কোন দিয়ে বল জালে পাঠান ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড মিডফিল্ডার। অপরদিকে আক্রমণ করবে কি, নিজেদের রক্ষণ নিয়েই তো ব্যস্ত থাকতে হয় পানামাকে। এরপরও তারা যে কয়েকটি পাল্টা আক্রমণ চালায় তা সফলতার মুখ দেখেনি দুর্বল ফিনিশিংয়ের কারণে। প্রথমার্ধের বিশাল এই ব্যবধানই হয়ত ‘গা-ছাড়া’ ভাব এনে দেয় ইয়াং-স্টার্লিং-হেন্ডারসনদের। যে কারণে প্রথমার্ধের ইংল্যান্ডকে বিরতির পর আর পাওয়া যায়নি। আগেই বলেছি কেইনের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করা গোলটি ছিল ভাগ্যপ্রসূত। মাত্র একটি গোলের জন্যে হন্যে হয়ে থাকা পানামা গোলের দেখা পায় ৭৮তম মিনিটে। ফ্রি-কিক ক্রস থেকে ¯øাইডিং করে পানামার হয়ে বিশ্বকাপে প্রথম গোলটি করেন ৩৭ বছর বয়সী ডিফেন্ডার ফিলিপ বালয়। দলের সবচেয়ে বয়সী খেলোয়াড়ই নয়, দলীয় অধিনায়কও তিনি। এই একটি গোলই যে পানামা ভক্তদের জন্য কতটা কাঙ্খিত ছিল তা বোঝা যায় তাদের বাধনছাড়া উদযাপনে। জয় নয়, ইংল্যান্ডকে একটি গোল দেয়াতেই যেন তাদের সন্তুষ্টি।
১৯৬৬ বিশ্বকাপের ফাইনালে জার্মানির বিপক্ষে চার গোলের পর এই প্রথম বিশ্বকাপে চারের অধিক গোল করল ইংল্যান্ড। ২৮ জুন কালিনিনগ্রাদে গ্রæপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লড়াইয়ে ইংল্যান্ডের প্রতিপক্ষ বেলজিয়াম।



 

Show all comments
  • খাইরুল ইসলাম ২৫ জুন, ২০১৮, ২:৩৬ এএম says : 0
    এরকম খেলা দেখে কোন মজা নেই
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর