Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৮ মার্চ ২০২০, ১৪ চৈত্র ১৪২৬, ০২ শাবান ১৪৪১ হিজরী

যারা পহেলা বৈশাখের বিরুদ্ধে বলে তারা জঙ্গি রাজাকার : তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ১৩ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ময়মনসিংহ আঞ্চলিক অফিস : পহেলা বৈশাখ পালন করলে ঈমানও নষ্ট হয় না, মুসলমানিত্বও যায় না বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। তিনি বলেন, যারা বলে পহেলা বৈশাখ ঠিক না তারা বাংলাদেশের লোক না। তারা জঙ্গি, রাজাকার।
মঙ্গলবার দুপুরে ময়মনসিংহের ত্রিশালের কালিরবাজার স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান শেষে স্থানীয় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।
যে সব জঙ্গি, নারী উত্যক্তকারীরা কিংবা বখাটেরা পহেলা বৈশাখে মানুষের উপর আক্রমণ করার চেষ্টা করে, উৎসব ভ-ুল করার চেষ্টা করে তারা কুলাঙ্গার বলে মন্তব্য করেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, তাদের জন্য পহেলা বৈশাখ বসে থাকবে না। পহেলা বৈশাখ জাতীয় উৎসব। সরকারের দায়িত্ব এ উৎসবকে নিরাপদে রাখা। এ উৎসবে আমরা নিরাপত্তা দেবো।
এর আগে কালিরবাজার স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমি নিরপেক্ষ নই। আমি সমাজতন্ত্র, গণতন্ত্র ও ধর্মনিরপেক্ষতায় বিশ্বাস করি। সুতরাং আমার পক্ষ আছে।
শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আঠার বছর আগে বিয়ে নয়, বিশের আগে সন্তান নয়। শিক্ষকরা হলো মোমবাতির মতো। মোমবাতি যেমন আলো দেয় শিক্ষকরাও তেমনি আলো দিতে থাকে। শিক্ষকের ঋণ শোধ দেয়া যায় না। পৃথিবীতে ভাল থাকার জন্য শিক্ষকের কাছে সবাই ঋণী।
মন্ত্রী বলেন, যারা জঙ্গি ও খুনিদের কাঁধে নিয়ে গণতন্ত্র খুঁজে বেড়ায় তাদের গণতন্ত্রের ঘরে ঢুকার কোন অধিকার নেই। বাংলাদেশ কখনো তালেবানের পথে যাবে না। বাংলাদেশ বাংলাদেশের পথেই থাকবে।
ময়মনসিংহ জেলা জাসদের সহ-সভাপতি ও কালিরবাজার স্কুল এন্ড কলেজের গভর্নিং বডির সহ-সভাপতি রতন সরকারের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ময়মনসিংহের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শিক্ষা ও আইসিটি শারমিন জাহান, জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সাদিক হোসেন, মহানগর জাসদের সভাপতি ও সাবেক প্যানেল মেয়র শফিকুল ইসলাম মিন্টু, ময়মনসিংহ শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী ইউসুফ খান, কেন্দ্রীয় জাসদ নেতা ও তথ্যমন্ত্রীর এপিএস আব্দুল্লাহিল কাইয়ুম, ত্রিশাল উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান লুৎফুন্নাহার বিউটি।
এ সময় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন জাসদ ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ও তরুণ জাসদ নেতা আমিনুল ইসলাম আমিনসহ দলটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে দুপুর পৌনে ১২টার দিকে ত্রিশাল উপজেলা পরিষদের ডাকবাংলোতে এসে পৌঁছেন। পরে বিশ্রাম শেষে তিনি ওই স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

জেলা আইন-শৃঙ্খলা সভা
রংপুরে ৩ মাসে ১৮ খুন, ৩৫ ধর্ষণ ও ১৩২ নারী-শিশু নির্যাতন
রংপুর জেলা সংবাদদাতা : রংপুরে খুন, ধর্ষণ ও নারী-শিশু নির্যাতনের ঘটনা বেড়েছে। গত ৩ মাসে খুন হয়েছে ১৮টি। ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ৩৫টি। জানুয়ারী ও ফেব্রুয়ারী মাসের চেয়ে মার্চে খুন, ধর্ষণ ও নারী শিশু নির্যাতনের সংখ্যা বেড়েছে। গতকাল মঙ্গলবার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আইন শৃঙ্খলার সভায় এই তথ্য জানানো হয়।
জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ারের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুলাহ আল ফারুক, জেলা পরিষদের প্রশাসক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ,সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান, পিপি এ্যাড আব্দুল মালেক প্রমুখ।
সভায় জানানো হয় জানুয়ারী মাসে রংপুর জেলায় খুন হয়েছে ৩ টি, ফেব্রুয়ারীতে ৭ টি এবং মার্চ মাসে খুন হয়েছে ৮টি। জানুয়ারী মাসে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ১১টি, ফেব্রুয়ারীতে ৮টি এবং মার্চ মাসে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ১৬টি। ৩মাসে নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে ১৩২টি। এর মধ্যে জানুয়ারীতে নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে ৩৮টি,ফেব্রুয়ারীতে ৩৮টি এবং মার্চ মাসে নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৬টিতে।
এছাড়া জানুয়ারীতে চুরি হয়েছে ১২টি,ফেব্রুয়ারীতে ১৪টি এবং মাচে চুরি হয়েছে ১৪টি। সিধেল চুরির ঘটনা ঘটেছে জানুয়ারীতে ৩টি, ফেব্রুয়ারীতে ৭টি এবং মার্চে ২টি। তিন মাসে অস্ত্র আইনে মামলা হয়েছে ৩টি। তিন মাসে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা হয়েছে ১৬৯টি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন