Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫, ৮ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

পবিপ্রবিতে পটুয়াখালী-বরিশাল দ্বন্দ্বে অর্ধশত রুম ভাংচুর, আহত ৮

পটুয়াখালী জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৭ জুন, ২০১৮, ৭:২১ পিএম

ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ২টার দিকে একদল মুখোশধারী সন্ত্রাসী বিশ্ববিদ্যালয়ের এম কেরামত আলী হল ও শেরে -বাংলা হলে এ হামলা চালায়।পবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মোশায়েদুল ইসলাম সাদি জানান,গতরাতে বিশ্বকাপের খেলা শেষে একদল মুখোশধারী সন্ত্রাসী বিশ্ববিদ্যালয়ের এম ,কেরামত আলী হলের তৃতীয় তলায় বরিশালের ছাত্র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অমিত চন্দ্র রয় তপুর ৪০১ নম্বর রুমের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার মাথায় একাধিক কোপ দেয়।এ সময় সন্ত্রাসীরা বরিশাল অঞ্চলের কেরামত আলী হলের ২৫ থেকে ৩০ টিরুমে ভাংচুর করে। এসময় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মোহাইমিনুল ইসলাম মুনান, আতিকুর রহমান, যুগ্ম- সাধারণ সম্পাদক সুদীপ্ত কর্মকার ও মেহেদী হাসান শুভ,গৌরব সরকার,মিঠুন দাস সহ ৭ জন গুরুতর জখম হয়েছেন। আহতরা বর্তমানে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। আহত ও প্রত্যক্ষদর্শী নিরপেক্ষ ছাত্রদের বরাত দিয়ে তিনি জানান, পটুয়াখালী অঞ্চলের নেতা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সম্পাদক রাকিবুল ইসলামের অনুসারী ক্রীড়া সম্পাদক মো. মহসিন, অর্থ সম্পাদক বাকিবুল ইসলাম রোমিও, সহ সম্পাদক মো. ফাহাদ ও সাইফ এর নেতৃত্বে দেশীয় অস্ত্রসহ তাদের উপর হামলা চালানো হয়। হামলাকারীরা মুখে গামছা বেঁধে দলগতভাবে আকস্মিক হামলাকারীরা এ সময় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলামের নামে শ্লোগান দেয়।
পরবর্তীতে সন্ত্রাসীরা শেরেবাংলা হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সভাপতির রুমে ভাংচুর চালায়,এ ছাড়াও তারা হলের বরিশাল অঞ্চলের ২০ থেকে ২৫ টি রুমে ভাঙচুর চালিয়ে একাধিক ল্যাপটপ,মানিব্যাগ,ঘড়ি নিয়ে যায় বলে সভাপতি সাদি জানান। এ সময় সৌমিক নামে এক ছাত্রের মাথা ফাটায় সন্ত্রাসীরা।
পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডি দুমকী থানা পুলিশকে অবহিত করলে রাত আনুমানিক সাড়ে তিনটার দিকে পুলিশ বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।দুমকী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দিবাকর চন্দ দাস জানান,মাস খানেক আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের বরিশাল অঞ্চলের ছাত্রদের হামলায় পটুয়াখালী অঞ্চলের ছাত্রদের রুম ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছিল এর পাল্টা হিসেবে এ ঘটনা। বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় অতিরিক্ত ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে।পরিস্থিতি বর্তমানে শান্ত।্
এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর স্বদেশ সামন্ত বলেন,রাতের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭জন ছাত্র আহত হয়েছে,একাধিক রুম ভাংচুর হয়েছে,তদন্ত কমিটি গঠন করা হচ্ছে,জড়িতদের সনাক্ত করে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে ।
অভিযোগের বিষয়ে পবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবের নম্বরে একাধিক বার ফোন করা হলেও অপর প্রান্ত থেকে কেউ ফোন রিসিভ করেননি।
উল্লেখ্য পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে পটুয়াখালী ও বরিশাল অঞ্চলের দ্বন্দ্ব নিয়ে একাধিকবার ভাঙচুর ও হামলার ঘটনা ঘটেছে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ