Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ সফর ১৪৪১ হিজরী

‘আপনাদেরও ওই জায়গায় যেতে হবে’

স্টাফ রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ৪ জুলাই, ২০১৮, ১২:০২ এএম

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি করে তাঁর জামিন নিয়ে রাজনীতি চলছে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সভাপতি আ স ম আবদুর রব। গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে নাগরিক সমাবেশে ক্ষমতাসীনদের এবং প্রধানমন্ত্রীকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেছেন, ‘একটা কথা মনে রাখবেন, তিনবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া আজীবন জেলে থাকবেন না। একসময় ঠিকই বেরিয়ে আসবেন। ওই জায়গায় আপনাদেরকেও যেতে হবে।’
বাংলাদেশ গণসংস্কৃতি দল আয়োজিত সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহহ চৌধুরী, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, জেএসডি’র সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, জাগপা সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান, ডিএল সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন মনি, , এস আল মামুন, সাবেক এমপি হুমায়ূন কবির হিরু প্রমূখ।
গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোট ডাকাতির অভিযোগ তুলেছেন জেএসডি সভাপতি। তার ভাষায়- ‘গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে জনগণকে আটকে রেখে ধীরে ধীরে নৌকা প্রতীকে সিল মারা হয়েছে। ডাবল ব্যালট পেপার ছাপিয়ে আগের দিন রাতেই সিল মেরে বাক্স ভর্তি করা হয়। জনগণের ট্যাক্সের অর্থে বেতনভুক্ত পুলিশ বাহিনীকে দিয়েও সেই সিল দেওয়া হয়েছে। এভাবে পুলিশ দিয়ে সিল বসানোর কথা কোনও দিন শুনিনি। এ দেশে নীরবে ভোট ডাকাতি হয়।’
আ স ম আবদুর রব আরও বলেন, ‘নির্বাচনের আগের রাতে বিএনপির নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি তল্লাশি চারিয়েছে পুলিশ। ভয়ে কেউ ভোটকেন্দ্রের আশপাশ দিয়ে যেতে পারেনি। অধিকাংশ জনগণও ভোট দিতে যেতে পারেনি। মুখে গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকারের কথা বলে; অথচ এই সরকার জনসভা, নাগরিক সমাবেশ, মিছিল কিছুই করতে দেয় না। তাদের ভয় কীসে?’
কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীদের সঙ্গেও বর্বর আচরণ করা হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন। তার ভাষায়, ‘আন্দোলনকারীরা চাইলো সংস্কার, আর আপনারা কোটাই বাতিল করে দিলেন। আপনারা যা ইচ্ছে তা করতে পারেন না। আপনাদের এর জবাবদিহি করতে হবে জনগণের কাছে। আপনাদের যা ইচ্ছে তা করতে দেওয়া হবে না। মানুষের দাবি আমরা আদায় করে ছাড়বো। আমাদের দাবি মানতে হবেই।’ তিনি আওয়ামী লীগের গণবিরোধী মুখোশ খুলে দিতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানান।
নাগরিক ঐক্যের আহŸায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না সরকারের কড়া সমালোচনা করে বলেন, ‘দেশে প্রতিনিয়ত সড়কে মৃত্যুর মিছিল চলছে। আর সরকার বলছে দেখেশুনে সড়কে চলাচল করা উচিত। এত বড় নির্লজ্জ সরকার বাংলাদেশের ইতিহাসে আর কখনও আসেনি। কিছুদিন আগে মাদক নির্মূলের নামে ১৭৬ জনকে বিচারবহির্ভূতভাবে হত্যা করা হয়েছে। সরকার ভিন্ন ধরনের খেলা খেলছে। এই খেলা বন্ধ করতে হবে।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: খালেদা জিয়া

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন