Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

নিরাপত্তা ব্যবস্থায় অবশ্যই ভিভিআইপিদের জনসম্পৃক্ততা ক্ষতিগ্রস্ত করা যাবে না -প্রেসিডেন্ট

বাসস | প্রকাশের সময় : ৪ জুলাই, ২০১৮, ৭:৩৬ পিএম | আপডেট : ১০:৩০ পিএম, ৪ জুলাই, ২০১৮
প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ অকি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের (ভিভিআইপি) জনসম্পৃক্ততা বিনষ্ট না করে এবং সাধারণ লোকদের থেকে বিচ্ছিন্ন না করে তাদের পূর্ণ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রেসিডেন্ট গার্ড রেজিমেন্টের (পিজিআর) প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
তিনি আজ নগরীর ঢাকা সেনানিবাসে প্রেসিডেন্ট গার্ড রেজিমেন্টের (পিজিআর) ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে ভাষণদানকালে বলেন, ‘গণমানুষের সঙ্গে জনপ্রতিনিধিদের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক থাকে- সাধারণ লোকদের থেকে বিচ্ছিন্ন না করে ভিভিআইপিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন।’
প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ পূর্ণ আস্থার সঙ্গে অর্পিত দায়িত্ব ও কর্তব্য পালন এবং এই বাহিনীর চেইন অব কমান্ডের প্রতি যথাযথ শ্রদ্ধাশীল থাকার জন্য পিজিআর সদস্যদের নির্দেশনা দেন। তিনি আরো বলেন, একই সঙ্গে আপনারা (পিজিআর) এই বাহিনীর অর্জিত গৌরব সমুন্নত রাখতে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করবেন।
তিনি বলেন, নিরাপত্তার মতো পবিত্র গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালনে গভীর দেশপ্রেম, কর্তব্যবোধ, শৃঙ্খলা ও একনিষ্ঠতার কোন বিকল্প নেই। বিভিন্ন কঠিন পরিস্থিতিতে ও প্রতিকূল আবহাওয়া মোকাবেলা করে এই শৃঙ্খলাবাহিনী তাদের দায়িত্ব পালন করায় প্রেসিডেন্ট পুনরায় পিজিআর-এর পেশাদারী কার্যক্রমের প্রশংসা করেন।
তিনি বলেন, ‘সামরিক জীবনে দক্ষতা অর্জনে প্রশিক্ষণের কোন বিকল্প নেই। প্রশিক্ষণ সকলকে পেশাগত জ্ঞান ও দক্ষতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে এবং সর্বোপরি সহমর্মিতা ও আনুগত্য শেখায়। তাই আপনাদের নিয়মিত প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে।’
বৈশ্বিক নানা কারণে বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাসী কার্যকলাপ ও জঙ্গি তৎপরতা বৃদ্ধি পেয়েছে উল্লেখ করে প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ বলেন, ‘সন্ত্রাস এখন আার কোনো একক দেশের সমস্যা নয়। এটি বৈশ্বিক সমস্যা। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির বিকাশের সাথে সাথে বিশ্ব জুড়ে সন্ত্রাস ও অপরাধের ধরনও পাল্টাচ্ছে।’
তিনি বলেন, ভিআইপিদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে পিজিআরকেও যুগোপযোগী প্রশিক্ষণ গ্রহণসহ তথ্যপ্রযুক্তি ও কৌশলগত উৎকর্ষ অর্জন করতে হবে।
আবদুল হামিদ বলেন, ‘নিরাপত্তার ধরন হবে সর্বাত্মক, সমন্বিত।’
জাতির পক্ষ থেকে পিজিআর-এর ওপর অর্পিত দায়িত্ব গৌরবের বিষয় উল্লেখ করে তিনি আশা প্রকাশ করেন যে, পিজিআর সদস্যরা এই বাহিনীর মর্যাদা ও মান সমুন্নত রাখবে এবং ইতিহাস ও অতীতের ঘটনাসমূহ থেকে শিক্ষা গ্রহণ করবে।
পরে পিজিআর-এর একটি চৌকস কন্টিজেন্ট রাষ্ট্রপতিকে অভিবাদন জানায়। এ সময় তিনি পিজিআর অফিসার ও জুনিয়র কমিশন্ড অফিসারগণের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।
রাষ্ট্রপতি পরিদর্শন বইয়েও স্বাক্ষর করেন, কেক কাটেন এবং পিজিআর কর্মকর্তাদের সঙ্গে ফটোসেশনে অংশ নেন।
এর আগে প্রেসিডেন্ট পিজিআর সদর দফতরে পৌঁছলে সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ ও পিজিআর কমান্ডেন্ট ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জাহাঙ্গীর হারুন তাকে স্বাগত জানান।
অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্টের সংশ্লিষ্ট সচিবগণ এবং ঊর্ধ্বতন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।


 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: প্রেসিডেন্ট

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ