Inqilab Logo

সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮, ১৯ সফর ১৪৪৩ হিজরী

সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের অর্থ কমেছে

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ৫ জুলাই, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

 সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের জমানো অর্থের পরিমাণ ২৭ শতাংশ কমেছে। ২০১৭ সালে সুইজারল্যান্ডের ব্যাংকগুলোতে বাংলাদেশিদের জমানো অর্থের পরিমাণ ছিল ৪ হাজার ৫৩ কোটি টাকা। আগের বছর ২০১৬ সাল পর্যন্ত সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের অর্থের পরিমাণ ছিল ৫ হাজার ৫৭৪ কোটি টাকা। গত বৃহস্পতিবার সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংক সুইস ন্যাশনাল ব্যাংক (এসএনবি) প্রকাশিত বার্ষিক প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৬ সালের তুলনায় ২০১৭ সালে এসে সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের আমানত কমেছে দেড় হাজার কোটি টাকা। তবে কোনো নাগরিক তার নাগরিকত্বের তথ্য গোপন করে অর্থ জমা রাখলে ওই অর্থ এ হিসাবে অন্তর্ভুক্ত নয়। এছাড়া গচ্ছিত স্বর্ণ বা মূল্যবান সামগ্রীর আর্থিক মূল্যমানও হিসাব করা হয়নি প্রতিবেদনে। যদিও ২০১৬ সালে সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের অর্থের পরিমাণ আগের বছরের চেয়ে ২০ শতাংশ বেড়েছিল।
গোপনীয়তার জন্য সুইস ব্যাংকে সারাবিশ্বের ধনীদের অর্থ রাখার প্রবণতা দীর্ঘদিনের। কিন্তু সা¤প্রতিক বছরগুলোতে অফশোর লিকস, পানামা পেপার্স ও প্যারাডাইস পেপার্সে বিশ্বের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ধনীদের বিপুল বিনিয়োগের তথ্য বেরিয়ে আসে। বিষয়টি নিয়ে সুইজারল্যান্ড সরকারের কঠোর অবস্থানের কারণে ২০১৭ সালে সুইস ব্যাংকে আমানত কমেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাছাড়া অনেকেই এখন অবৈধ অর্থ জমা রাখার জন্য লুক্সেমবার্গ, কেম্যান আইল্যান্ড, ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ড, পানামা, বারমুডা, এমনকি সিঙ্গাপুরের মতো দেশের দিকে ঝুঁকছেন। সে কারণেও সুইস ব্যাংকে আমানতের পরিমাণ কমেছে। -ওয়েবসাইট



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সুইস ব্যাংক
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ