Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ৮ কার্তিক ১৪২৭, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

ফ্রান্স দলে বেলজিয়াম, বেলজিয়ামে ফ্রান্স

রেজাউর রহমান সোহাগ, রাশিয়া থেকে | প্রকাশের সময় : ৯ জুলাই, ২০১৮, ৯:৫৯ পিএম

সেমিফাইনালে তারা একে অপরের প্রতিপক্ষ। কিন্তু ম্যাচের আগে প্রতিদ্ব›িদ্বতা ভুলে যেন প্রতিপক্ষের সেরা স্ট্রাইকারের বন্দনায় মেতেছেন এডেন হ্যাজার্ড। বেলজিয়ান অধিনায়ক বলেছেন, এই ১৯ বছর বয়সেই নিজেকে ব্যালন ডি’অরের জন্য যোগ্য প্রতিদ্ব›দ্বী হিসেবে দাঁড় করিয়ে ফেলেছেন কিলিয়ান এমবাপে। বাংলাদেশ সময় রাত বারোটায় এমবাপের ফ্রান্সের মুখোমুখি হবে হ্যাজার্ডের বেলজিয়াম।
আজকের ম্যাচ নিয়ে বেইনস্পোর্টস ফ্রান্সের সাথে আলাপচারিতায় এমবাপের প্রপ্তি নিজের মুগ্ধতা জানিয়েছেন হ্যাজার্ড, ‘ও যেরকম পারফরম্যান্স দেখাচ্ছে, তাতে করে এখনই ব্যালন ডি’অর পাওয়ার যোগ্য দাবিদার হয়ে উঠেছে সে। প্রতিভার সাথে যদি পারফরম্যান্স বিবেচনায় নেই, তাহলে আমি বলব ওর এখনই ব্যালন ডি’অর প্রাপ্য।’ আরও একটি মজার তথ্যও জানিয়েছেন হ্যাজার্ড, ‘আমাদের মধ্যে বেশ কয়েকবার ফোনে কথা হয়েছে। ও আমাকে বলেছিল, ছোট থাকতে ও আমার ভিডিও দেখতো। আমি ঠিক নিশ্চিত নই এখন আমি বুড়ো হয়ে গিয়েছি কি না, খুব সম্ভবত অতটাও বুড়ো হইনি আমি। কিন্তু এখন আমি ওর ভিডিও দেখি। ওর প্রতি আমার অনেক শ্রদ্ধাবোধ আছে। আধুনিক ফুটবলে আর কারোর ক্ষেত্রে এত কম সময়ে এত উন্নতি করতে আর কাউকে দেখিনি আমরা।’
কেন দেখেন সেটিরও একটি যোগসাযোশ পাওয়া যায় হ্যাজার্ডের অতীত ঘাটলেই। নিজের মুখেই শিকার করেছেন, ছোট্টবেলায় ফ্রান্সই ছিল তার প্রথম প্রেম। এমনকি কিশোর বন্ধুদের সঙ্গে ফ্রান্স দলের জার্সি গায়ে তোলা একটি ছবি আজও সযতনে রাখা আছে বেলজিয়ান অধিনায়কের স্মৃতির অ্যালবামে। বড় হয়ে সেটি রূপ নিয়েছে প্যাশনে, পেশাদারী ফুটবলার হিসেবে ১৯৯৮ সালের ফ্রান্স দলটিকে আজও তাই স্বীকৃতি দেন বিশ্বকাপের সেরা দল হিসেবে। এবার শুনুন অন্য আরেক গল্প। রাবণের আপন ছোট ভাই বিভীষণ। কিন্তু সীতাকে অপহরণ করায় ভাইকে সঙ্গ না দিয়ে যোগ দেন রামের সঙ্গে। আর তাতেই লঙ্কার পতন। কারণ নিজ দেশের গোপন কথা যে বলে দিয়েছিলেন তিনি। ঠিক এমন কিছুরই ভয় পাচ্ছে ফ্রান্স। কারণ তাদের ঘরের ছেলে থিয়েরি অঁরি যে যোগ দিয়েছেন বেলজিয়ামের সহকারী কোচ হিসেবে। তবে তাকে ভুল প্রমাণ করতে চান দলের অন্যতম সেরা স্ট্রাইকার অলিভার জিরুদ।
ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য ছিলেন অঁরি। ২০০৬ বিশ্বকাপে দলকে ফাইনালে তোলার অন্যতম নায়ক ছিলেন তিনি। আর ২০১০ বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলাই হতো না অঁরি না থাকলে। বাছাই পর্বে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে তার অ্যাসিস্ট থেকে করা গোলেই যে পার পায় দলটি। সেই ফরাসী তারকা এবার বেলজিয়ামের সহকারী কোচের দায়িত্ব পালন করছেন। এখন পর্যন্ত কাজটা করেও যাচ্ছেন দারুণ।
তবে সেমিফাইনালে এবার নিজ দেশের বিপক্ষে মুখোমুখি হচ্ছেন অঁরি। আর এ ব্যাপারটি ভালো লাগছে না জিরুদের। তাকে ভুল প্রমাণ করার লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামবেন এ ফরোয়ার্ড, ‘এটা খুবই উদ্ভট একটা ব্যাপার থিয়েরি এই ম্যাচে আমাদের বিপক্ষে। আমি খুবই গর্বিত হব থিয়েরিকে দেখিয়ে দিতে পারলে যে সে ভুল ক্যাম্প বেছে নিয়েছে। আমি পছন্দ করব থিয়েরি আমাদের পক্ষে থাকলে। এবং আমাকে এবং আমার ফ্রান্সের ফরোয়ার্ডের পরামর্শ দিলে। কিন্তু এ নিয়ে আমি ঈর্ষান্বিত নই।’
তবে ৩১ বছর বয়সী জিরুদের সঙ্গে সম্পর্কটা খুব একটা ভালো নয় অঁরির। জিরুদ সম্পর্কে মাঝে মধ্যেই সমালোচনা করেছেন অঁরি। তাই এ ম্যাচের মধ্যেও আলাদা একটি দ্বৈরথ দেখছেন অনেকেই। কিন্তু এ সব বিষয়কে পাত্তা দিচ্ছেন না জিরুদ, ‘এটা অনেক বছর হয়ে গেছে সে আমার সম্পর্কে কি বলেছে। আমার কাজ হচ্ছে মাঠে ভালো খেলা। যতটা ভালোভাবে ফ্রান্সের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা। এটা তার জন্যও গুরুত্বপূর্ণ একটা ম্যাচ।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিশ্বকাপ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ