Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫, ১৫ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

পদাবলি

| প্রকাশের সময় : ১৩ জুলাই, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

পল্লব গোস্বামী
আমার রবীন্দ্রনাথ ও তুমি

তোমার বার্গান্ডি রঙের চুলে
আস্ত একটা বিকেল ভেঙে
উড়ে যাচ্ছে তেইশ বলাকা ।

কালোকিত চোখের কোপাইয়ে
মিশে যাচ্ছে উড়ো ভাবনাদের মতো মেঘ ।
খোয়াইয়ের খোয়াব হাওয়া ।
আশরীর ছাতিম গন্ধে
জেগে উঠছে শান্তিনিকেতন ।

অচ্ছুত উপমা থেকে
অনেক দূরে আজ তোমার পারাবার ...

সূর্যকে আড়ালে রেখে -
তাই,তোমার কাছে দাঁড়াতেই ;
অখÐ গীতবিতান হয়ে উঠছো তুমি ।

 

জাফর পাঠান

স্পন্দন
আকাশের চুম্বনে- কেঁপে উঠে ভূমি
অপ্সরী বাতাসের কাঁকালে হিন্দোল
ময়ূরের পেখম মেলা নকশি আঁচল
ক্ষোভের অর্ণব বুকে প্রেমোরসের দোল।
কণায় কণায় অদৃশ্য প্রেমের হাতছানি
বহে ধমনির প্রতি রন্ধ্রে রন্ধ্রে
অণুর প্রতি অণুর প্রেম দেয় মহাকাশ পাড়ি
দেহ আর ভোগপ্রেমের নিউক্লিয়াস ছাড়ি।
ভয়াল রাক্ষুসে চেহারায় দেখি হাসি মুক্তা রাশি রাশি
মানুষ সৃষ্ট বলয়ে- মানুষ কারাবাসী।
জোয়ারের সাথে ভাটা, অমাবশ্যার সাথে পূর্ণিমা
দুখের সাথে খেলে সুখ হাসির সাথে খেলে কান্না,
নিজকে লুকিয়ে রাখে প্রেকাশ্য ইচ্ছা
পোষণ করে সুপ্ত কাঙ্খিত তামান্না ।
খেলে প্রেম খেলে বাঁধনহীন মহাসৃষ্টিসম,
আড়ালে হৃদ্যতার ও করুণার হাসি হাসে প্রেমিক
এই প্রেমোসুখ- সৃষ্টি ও স্রষ্টার অন্যতম।

 

ফখরুল হাসান
অশ্রæ লুকায় মূর্তি

পারিপার্শ্বিক দৃশ্যাবলীতে অশ্রæ লুকায় মূর্তি
বন্দন নির্মাণে দ্বিধা দ্ব›েদ্ব সোনালী ভোর
ভুল নিয়মের ধারাপাতে অগ্রগামী প্রতিনিধি
অকস্মাৎ ক্ষ্যাপা অজগর ফুসফুসিয়ে
ত্যাড়ে এসে ছোবল মারতে স্বজাতির...

 

উজ্জ্বল দত্ত
যখন ভুলেই যাবে

যখন ভুলেই যাবে
তখন কি আর হবে
তিথি নক্ষএের কুষ্ঠি জেনে!
কৃষ্টি কালচার জাত ধর্ম নিয়ে,
কবে অমাবস্যা আর কবে পূর্ণিমা
একাদশী কিবা দ্বাদশী,
কি আর হবে জেনে
যখন ভুলেই যাবে !
রাতের পাহাড় ডিঙ্গিয়ে
ভোরের শুভ্র আকাশ পাপড়ি মেলে
কতটা নীলে নীল হয়েছে,
কতটা ছুঁয়ে গেছে স্বপ্নময় নদী
কক্ষ পথ ভেদ করে,
কি আর হবে জেনে
যখন ভুলেই যাবে!



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর