Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫, ৮ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

আশুগঞ্জে সেলফি তুলতে গিয়ে মেঘনা নদীতে নিখোঁজ দুই শিক্ষার্থীর মধ্যে একজনের লাশ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৫ জুলাই, ২০১৮, ৪:০০ পিএম

সেলফি তুলতে গিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার মেঘনা নদীতে ঢাকার নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী নিখোঁজ হওয়া সানজিদা বিনতে তানভীর লাশ উদ্ধার হয়েছে। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অপর শিক্ষার্থী ইশরাকুল মেহরাব এর লাশ উদ্ধার হয়নি। গতকাল রবিবার দুপুরে নৌবাহিনী সদস্যের চৌকস দল ও ফায়ার সার্ভিসের সমন্বয়ে দুটি ইউনিটের ডুবুরি দলের যৌথ চেষ্টায় রেল ব্রিজের কাঁঠপট্টি নদীতে ভাসমান অবস্থায় মরদেহটি উদ্ধার কর হয়। আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌসুমী বাইন হিরা এক শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বাকি আরেক শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
নৌবাহীনির ১২ সদস্যের ও ফায়ার সার্ভিসের ৯ সদস্যের দুটি ইউনিটে সকাল সাড়ে ৮টা থেকে উদ্ধার কাজ শুরু করে। ডুবুরি দল গুলো শনিবার রাতে ঘটনাস্থলে পৌছলে বৈরী আবহাওয়া ও প্রবল স্রোতের কারণে উদ্ধার কার শুরু করতে পারেনি। শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার চরসোনারামপুর এলাকার জাতীয় গ্রীডলাইনের বৈদ্যুতিক টাওয়ারের কাছে সেলফি তুলতে গিয়ে নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সানজিদা বিনতে তানভীর (২১) ও ইশরাকুল মেহরাব (২২) নামে নদীর পানিতে ডুবে যান তারা।
উল্লেখ্য, শনিবার সকালে ঢাকা থেকে নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স ও বিবিএ বিভাগের তৃতীয় বর্ষের সাত শিক্ষার্থী মেঘনা নদীতে ঘুরতে আসেন। পরে তারা সারাদিন রেলসেতু ও আশপাশ এলাকায় ঘুরে বিকেলে আশুগঞ্জের চর সোনারামপুর এলাকায় যান। সেখানে নদীর পাড়ে সেলফি তুলেন তারা। সেলফি তুলার একপর্যায়ে সানজিদা পা পিছলে নদীতে পড়ে যায়। এ সময় তিনি পানিতে ডুবে গেলে তাকে উদ্ধারের জন্য মেহরাবও পানিতে নেমে ডুবে যান। তাদের উদ্ধারের জন্য পর্যায়ক্রমে বাকি পাঁচজন পানিতে নামলে তারাও ডুবে যান। পরে স্থানীয় লোকজন নদীতে নেমে পাঁচজনকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে। তবে সানজিদা ও মেহরাব এখনো নিখোঁজ রয়েছেন। ঘটনার পর থেকে শনিবার সন্ধ্যা থেকেই আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌসুমী বাইন হিরা ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বদরুল আলম তালুকদার ঘটনাস্থলে উদ্ধার কাজের তদারকি করছেন। ঘটনার পর থেকে ফায়ার সার্ভিস আশুগঞ্জ ও ভৈরবের ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ শুরু করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ