Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

ইরাক-কুয়েতে নতুন মার্কিন ঘাঁটি

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ১৬ জুলাই, ২০১৮, ১২:০২ এএম

 মার্কিন সরকার ইরাক ও কুয়েতে নতুন সামরিকঘাঁটি বানাতে যাচ্ছে। মধ্যপ্রাচ্য থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের দাবি অগ্রাহ্য করে সিরিয়ার সীমান্তবর্তী দেশটির পশ্চিমাঞ্চলীয় আনবার প্রদেশের আল-কায়িম শহরের কাছে যুক্তরাষ্ট্র তার তৃতীয় সেনাঘাঁটি স্থাপন করতে যাচ্ছে। ইরাকে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের দুটি স্থায়ী ঘাঁটি রয়েছে। এসব ঘাঁটি আনবার প্রদেশেরই আইন আল-আসাদ ও হাব্বানিয়া এলাকায় অবস্থিত। আনবার প্রদেশের বেশ কিছু এলাকার পাশাপাশি বাগদাদ-দামেস্কো মহাসড়ক পর্যবেক্ষণের দায়িত্ব পালন করবে নয়া মার্কিন সামরিকঘাঁটি। খবর বাসনিউজের। এদিকে কুয়েতের আর-রাই পত্রিকা জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র খুব শিগগির পারস্য উপসাগরীয় ছোট্ট এই দেশটির একমাত্র আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে একটি বড় ধরনের বিমানঘাঁটি স্থাপন করবে। চলতি মাসের গোড়ার দিকে ইরাকে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত ডগলাস সিলিম্যান ও কুর্দিস্তান আঞ্চলিক সরকারের প্রধানমন্ত্রী নেচিরভান বারজানি ইরবিল শহরে যুক্তরাষ্ট্রর বৃহত্তম কনস্যুলেট ভবনের নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। দুই লাখ বর্গমিটার এলাকাজুড়ে এই মার্কিন কনস্যুলেট স্থাপন করতে ৬০ কোটি ডলার খরচ হবে। আগামী চার বছরে এটির নির্মাণ কাজ শেষ হবে। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর জনগণ তাদের দেশে মার্কিন সেনা উপস্থিতির ঘোরবিরোধী। কিন্তু এসব দেশের তাবেদার রাজা-বাদশাহরা ক্ষমতা টিকিয়ে রাখার জন্য তাদের দেশে যুক্তরাষ্ট্রকে যা খুশি তাই করার অনুমতি দিয়ে রেখেছে। পার্সটুডে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইরাক

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন