Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫, ৯ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

ভালো বন্ধুদের সঙ্গ : শরীর সুস্থ রাখে মনে প্রভাব ফেলে

দি নিউইয়র্ক টাইমস | প্রকাশের সময় : ১৫ জুলাই, ২০১৮, ১১:২০ পিএম

আপনার স্বাস্থ্য ঠিক রাখা ও সুখী থাকার জন্য আপনি কি ভালো লোকদের সাথে সময় কাটাচ্ছেন? বন্ধুদের সাথে সম্পর্ক কি আপনাকে উপরে তুলছে না আপনার ক্ষতি করছে?
স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য যখন আমাদের অনেকেই মূলত খাবার ও ব্যায়ামের প্রতিই প্রধানত গুরুত্ব আরোপ করেন, তখন বিজ্ঞান বলছে যে আমাদের যে সব বন্ধুদের সাথে আমরা থাকি তাদের সঙ্গও আমাদের সুস্থতার উপর প্রভাব ফেলে। ইতিবাচক চিন্তা ও আমাদের চারপাশে ইতিবাচক মানুষের উপস্থিতি আমাদেরকে প্রকৃতই সাহায্য করে। গবেষকরা দেখতে পেয়েছেন যে নির্দিষ্ট কিছু স্বাস্থ্য আচরণ সংক্রামক এবং ব্যক্তি ও অনলাইনে আমাদের সামাজিক নেটওয়ার্ক স্থ‚লতা, উদ্বেগ ও সামগ্রিক সুখকে প্রভাবিত করতে পারে। সাম্প্রতিক এক রিপোর্টে দেখা গেছে যে কোনো ব্যক্তির ব্যায়ামের রুটিন তার (পুরুষ বা মহিলা) সামাজিক নেটওয়ার্ক দ্বারা ভীষণ ভাবে প্রভাবিত হয়।
সম্প্রতি ‘টাইমস জার্নিস’ আয়োজিত এক সুস্থতা ভ্রমণে জনতার শক্তি সম্পর্কে আমাকে স্মরণ করিয়ে দেয়া হয়। ক্যান্সার, দৃষ্টিহীনতা ও সম্প্রতি প্রিয়জনকে হারানোসহ জীবনে বিভিন্ন ধরনের প্রতিক‚লতার শিকার হওয়া সত্তে¡ও আশাবাদী ও প্রাণবন্ত সমমনা পর্যটকদের একটি গ্রæপ এ ভ্রমণে আকৃষ্ট হয়েছিল। তাদের বয়স ছিল ১৭ থেকে ৯০ পর্যন্ত। বয়সে আশির ঘরে পৌঁছা এক উৎসাহী মানুষের সাথে পরিচয় হয় যিনি তার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আনতে নিরামিষ আহার ও কঠিন ব্যায়ামের রুটিন অনুসরণ করেন। ফুসফুসের ক্যান্সার থেকে সেরে ওঠা ৫০-এর ঘরের এক আরেক নতুন মহিলা বন্ধু কথাবার্তায় আমাকে হাসিখুশি রাখলেন ও এক বিশেষ কঠিন কাজ করার সময় আমাকে ক্লান্ত না হতে সাহায্য করলেন।
এ সফরের পর আমরা সবাই পরস্পরের সাথে যোগাযোগ রাখার অঙ্গীকার করলাম। এ অভিজ্ঞতা থেকে উদ্দীপ্ত আমি এক নবায়নকৃত অঙ্গীকার নিয়ে বাড়ি ফিরে এলাম যে শুধু ব্যায়াম ও সুস্থ জীবনই শুধু নয়Ñ আমার সামাজিক জীবনের সম্পৃক্ততাও বাড়াতে হবে এবং সুখী লোকদের সাথে আরো বেশি সময় কাটাাতে হবে।
ন্যাশনাল জিওগ্রাফিকের একজন ফেলো ও লেখক ড্যান বুয়েটনার তথাকথিত বøু জোনগুলোতে বাস করা মানুষদের স্বাস্থ্য অভ্যাস বিষয়ে গবেষণা করেছেন। বøু জোন হচ্ছে সেসব অঞ্চল যেখানে মানুষ গড় আয়ুর চেয়ে বেশিদিন বাঁচে। তিনি উল্লেখ করেন যে বøু জোনগুলোতে ইতিবাচক বন্ধুতা একটি অভিন্ন বিষয়।
বুয়েটনার বলেন, বন্ধুরা আপনার স্বাস্থ্য আচরণের উপর এমন ভাবে পরিমাপযোগ্য ও চলমান প্রভাব বিস্তার করতে পারে যা কোনো খাদ্য কখনোই পারে না।
জাপানের ওকিনাওয়া এমন একটি স্থান যেখানে নারীদের গড় আয়ু ৯০ বছর অর্থাৎ এখানকার নারীদের বয়স সর্বাপেক্ষা বেশি। এখানকার মানুষরা মোয়াই নামে একটি সামাজিক নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেছে। এটা হচ্ছে ৫ জনের একটি গ্রæপ যারা যাদের প্রয়োজন সারাজীবন তাদের সামাজিক, লজিস্টিক, মানসিক এমনকি আর্থিক সমর্থন প্রদান করেন।
বুয়েটনার বলেন, এটা এক শক্তিশালী ধারণা। ঐতিহ্যগত ভাবে তাদের পিতামাতারা তারা যখন জন্ম গ্রহণ করে তখন থেকেই তাদের মোয়াইর মধ্যে রাখেন এবং সারাজীবন তারা এর মধ্যে থাকে।
সব কিছু যখন ভালো থাকে তখন একটি মোয়াইতে গ্রæপটি লাভবান হয় যেমন প্রচুর শস্য উৎপাদন ভাগ করে নিয়ে। গ্রæপের পরিবারগুলো কোনো শিশু অসুস্থ হলে বা মারা গেলে একে অপরকে সাহায্য করে। তারা একে অপরের সারাজীবনের স্বাস্থ্য আচরণের ক্ষেত্রেও প্রভাব বিস্তার করে।
যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক সার্জন জেনারেল বিবেক মূর্থিসহ কেন্দ্রীয় ও অঙ্গরাজ্যগুলোর স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের সাথে দেশব্যাপী দু’ডজন মোয়াজ গড়ে তোলার জন্য কাজ করছেন বুয়েটনার। সম্প্রতি তিনি টেক্সাসের ফোর্ট ওয়ার্থে সময় কাটিয়েছেন। সেখানে কয়েকজন অধিবাসী ওয়াকিং মোয়াজ গড়ে তুলেছেন। এটা হচ্ছে সে সব গ্রæপ যারা হাঁটা ও সামাজিক কাজের জন্য নিয়মিত সভায় মিলিত হন।
তিনি বলেন, আমরা দেখতে পাচ্ছি যে আপনি সে সব লোকদের একত্র করতে পারবেন যারা হাঁটা ও নিরামিষ আহারের মাধ্যমে স্বাস্থ্য আচরণ পরিবর্তন ও নিজেদের সংগঠিত করতে চায়। আমরা তাদেরকে ১০ সপ্তাহ এক সাথে থাকার জন্য তাদের উৎসাহিত করি। আমরা মোয়াজ গঠন করেছি যেগুলো এখন কয়েক বছরের পুরনো এবং সেগুলো সদস্যদের জীবনে এখনো ভালো প্রভাব বিস্তার করছে।
একাট সফল মোয়াই গঠনের জন্য সে সব লোক নিয়ে কাজ শুরু করতে হবে যাদের অনুরূপ আগ্রহ, আবেগ ও মূল্যবোধ আছে। এটা শুরুর জন্য দি বøু জোন দল ভ‚গোল, কাজ এবং পারিবারিক তফসিল ভিত্তিতে লোকজনকে গ্রæপ করার চেষ্টা করছে। এরপর অভিন্ন আগ্রহ খুঁজে বের করতে তাদেরকে একগুচ্ছ প্রশ্ন করছে। যেমন সমুদ্র ভ্রমণ বা ব্যাকপ্যাক নিয়ে ভ্রমণ কোনটা আপনার ছুটি কাটানোর জন্য উপযুক্ত পন্থা? আপনি রক এন রোল না ক্ল্যাসিক্যাল সঙ্গীত পছন্দ করেন? আপনি কি দি নিউইয়র্ক টাইমস না দি ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের গ্রাহক হতে চান?
বুয়েটনার বলেন, দীর্ঘ মেয়াদি সম্পর্কের ভিত্তিতে আপনি অনেক কিছু করতে পারেন।
আমার সঙ্গিনী এক পর্যটক নিউইয়র্ক সিটির ক্যারোল আওয়ারবাখ উল্লেখ করেছেন যে তার চারপাশে ইতিবাচক লোকদের উপস্থিতি কয়েক বছরের মধ্যে তার দু’জন স্বামী হারানোর ক্ষতি সামলে উঠতে সাহায্য করেছে। মিসেস আওয়ারবাখ ৩০ বছর বয়সে বিধবা হন। সে সময় তার সন্তানদের বয়স ছিল ২ ও ৫। পরিবার ও বন্ধুদের সাহায্যে ও নিজের দৃঢ়তায় তিনি তার পরিবারকে সাহায্য করতে সক্ষম হল। পরে তিনি আবার বিয়ে করেন। তারপর ১৯৯২ সালে তার দ্বিতীয় স্বামীও আকস্মিক ভাবে মারা যান। দ্বিতীয় বারের ধাক্কা সামলে উঠতে তিনি স্বেচ্ছাসেবার কাজ নেন এবং নিজ কম্যুনিটির জন্য অবদান রাখতে শুরু করেন।
মিসেস আওয়ারবাখ বলেন, তিনি বিশ^াস করেন যে তিনি ইহুদি নিধন কান্ডের জীবিত রক্ষা পাওয়া মায়ের কাছ থেকে ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি পেয়েছেন। তার মা ১৯ বছর বয়সে জার্মানি ত্যাগ করেন এবং নিজের বাবা-মাকে আর দেখতে পাননি।
তিনি বলেন, আমরা যখন বড় হচ্ছিলাম, সে সময় আমরা স্বচ্ছল ছিলাম না। এক বেডরুমের অ্যাপার্টমেন্টে আমরা চারজন থাকতাম , আর আমার বাবা -মা ঘুমাতেন একটি সোফায়। আমার মা কখনো অভিযোগ করতেন না। আমার মনে হয় তিনি ভালো করেই জানতেন যে খারাপ বিষয়গুলো ঘটবে , কিন্তু আপনাকে আপনার জীবনের পরিস্থিতিকে মেনে নিতে হবে।
মিসেস আওয়ারবাখ আবার ভালোবাসায় পড়েন এবং তৃতীয় বিয়ে করেন। ১৫ বছর এ স্বামীর সাথে সংসার করছেন। তিনি বলেন, জীবন খুব সংক্ষিপ্ত। তাই নেতিবাচক লোকদের সাথে থাকার সময় নেই। আমি আমার চারপাশে এমন লোকদের চাই যারা আমার প্রতি যতœশীল হবে, বিবেচক হবে এবং পৃথিবীকে একটি অর্ধ পূর্ণ গøাস হিসেবে দেখবে , অর্ধ খালি গøাস হিসেবে নয়।
লোকদের তাদের সামাজিক নেটওয়ার্কের ইতিবাচক প্রভাব নিরূপণের জন্য সাহায্য করতে দি বøু জোন টিম একটি কুইজ তৈরি করেছে। কুইজে আপনার বন্ধুদের ও তাদের স্বাস্থ্য, তারা কতটা পান করে, খায় এবং ব্যায়াম করে পাশাপাশি তাদের দৃষ্টিভঙ্গি সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হয়েছে। এ কুইজের উদ্দেশ্য আপনার স্বাস্থ্যবান বন্ধুদের খাটো করা নয়, বরং আপনার জীবনের সেই লোকদের চিহ্নিত করা যারা আপনার সবচাইতে ঘনিষ্ঠ এবং আপনি তাদের সাথে সর্বাপেক্ষা বেশি সময় কাটান।
বুয়েটনার দূরের ফেসবুক ফ্রেন্ডদের চেয়ে তিন থেকে পাঁচজন প্রকৃত বন্ধুর উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি বলেন, সাধারণত আপনি এমন বন্ধুদের চান যাদের সাথে আপনি অর্থবহ কথাবার্তা বলতে পারবেন। আপনার খারাপ সময়ে তাদের ডাকলে তারা সাড়া দেবে। কোনো ওষুধ বা বার্ধক্য রোধক সাপ্লিমেন্টের চেয়ে আপনার বন্ধু গ্রæপ ভালো। অন্য যে কারো চেয়ে তারা আপনার জন্য বেশি কিছু করবে।



 

Show all comments
  • Md Hasan ১৬ জুলাই, ২০১৮, ২:৩৭ পিএম says : 0
    thanks for your news
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ