Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ৩ কার্তিক ১৪২৫, ০৭ সফর ১৪৪০ হিজরী

পাবনায় নিজ বাড়িতে মা-ছেলেকে গলা কেটে হত্যা : স্বামী আটক

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ জুলাই, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

পাবনায় নিজ বাড়িতে মা-ছেলের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার রাত ৮টার দিকে সদর চরতারাবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।
নিহতরা হচ্ছেন, চরতারাবাড়িয়া গ্রামের সুমন জোয়ার্দারের স্ত্রী রুশি (২৫) ও তাদের দুই বছরের ছেলে ইরফান জোয়ার্দার রোহান। নিহত রুশি (২৫) সুজানগর উপজেলার হেমরাজপুর গ্রামের মোনাম সেখের মেয়ে। ইরফান জোয়ার্দার রোহান (২) নিহতের ছেলে।
গ্রামবাসীরা জানান, চার বছর আগে নিহত রুশির (২৫) বিয়ে হয় পাবনা সদর উপজলোর চরতারাবাড়িয়া গ্রামের গফুর জোয়ার্দারের ছেলে সুমন জোয়ার্দারের (৩০) সঙ্গে। বিয়ের পর তাদের সংসারে একটি ছেলেসন্তান জন্ম নেয়। এক সপ্তাহ আগে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে রুশি ছেলে ইরফান জোয়ার্দার রোহানকে নিয়ে বাপের বাড়িতে চলে যায়। সুমন তাকে অনেক বুঝিয়ে আবার নিজ বাড়িতে নিয়ে আসে। এরই মধ্যে শনিবার সন্ধ্যায় সুমনের ঘরে স্ত্রী রুশি এবং ছেলে রোহানের গলাকাটা লাশ দেখে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দেয়।
পাবনা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইবনে মিজান, সদর থানার ওসি ওবাইদুল হক, পরিদর্শক (তদন্ত) জালাল উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। পাবনা থানার পরিদর্শক (তদন্ত ) জালাল উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, কে বা কারা এবং কেন এই হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রুশির স্বামী সুমনকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস জানান, স্বামী সুমন ঢাকায় মাইক্রোবাস চালাত। কিছুদিন হলো সে ওই কাজ বাদ দিয়ে বাড়িতে এসে মাছের ব্যবসা শুরু করেন। সুমন এই হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত নয় বলে দাবি করছে। কিন্ত যেই জড়িত থাকুক তা তদন্তে বেরিয়ে আসবে।
এদিকে রুশির বাবা-মা অভিযোগ করেন স্বামী সুমনই তাদের মেয়ে এবং নাতিকে হত্যা করেছে। তবে এলাকাবাসী জানান, সুমন এর আগে ২টি বিয়ে করে। কিন্ত ওই দুটি স্ত্রীকেই সে কিছুদিন সংসার করার পর তালাক দেয়। রুশি তার তৃতীয় স্ত্রী। তারাও এই হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু তদন্ত এবং বিচার চান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ