Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

গোদাগাড়ীতে একাডেমিক ভবনসহ কোটি কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ এগিয়ে চলেছে

মো: হায়দার আলী, গোদাগাড়ী রাজশাহী থেকে | প্রকাশের সময় : ২২ জুলাই, ২০১৮, ৪:১০ পিএম

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে চলছে। দেশের প্রতিটি ক্ষেত্রে চলছে উন্নয়ন। সরকারের এই উন্নয়নের ধাবাহিকতায় রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে লেগেছে উন্নয়নের ছোঁয়া। উন্নয়নের অংশ হিসেবে গোদাগাড়ী উপজেলা জেলায় ২০১৭ - ২০১৮ ইং অর্থ বছরে প্রায় ২৫ কোটি ব্যয়ে ১০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৪ তলা একাডেমিক ভবন নির্মানের জন্য কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রকৌশলীগণ জায়গা নির্ধারণ, জরিপ কাজ শেষ করেছেন। আগামী মাসে টেন্ডার প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে। প্রতিটি ভবনে ব্যয় হবে ২ কোটি ৫০ লাখ টাকা। ১২ টি বিশাল শ্রেণী কক্ষ, টয়লেট, বাথরুম, সিঁড়ি, আসবাবপত্রসহ আধুনিক সুযোগ সুবিধা থাকবে। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের বাস্তবায়নে, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর একাডেমিক ভবন গুলি নির্মান করবেন। একাডেমিক ভাবন যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নির্মান করা হবে সে গুলি হলো গোদাগাড়ী উপজেলার মহিশালবাড়ী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, মাটিকাটা উচ্চ বিদ্যালয়, ভাগাইল উচ্চ বিদ্যালয়, রিশিকুল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, চম্পক নগর উচ্চ বিদ্যালয়, লস্করহাটি উচ্চ বিদ্যালয়, বাসুদেবপর শাহীদুন্নেসা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, দিগরাম উচ্চ বিদ্যালয়, চন্দলাই পরগনা উচ্চ বিদ্যালয়, মাছমারা উচ্চ বিদ্যালয়,
এদিকে রাজাবাড়ী হাট উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রায় ১ কোটি ৫০ লাখ টাকা ব্যয়ে এবং ভাটোপাড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে একই পরিমান আর্থে ব্যয়ে উর্ধ্বমুখী ভবন নির্মানের জন্য জরিপের কাজ শেষ পর্যায়ে। মাটিকাটা আদর্শ ডিগ্র কলেজে ৭৫ ব্যয়ে ও ব্রাহ্মণগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ে একই পরিমান অর্থ ব্যয়ে ৪ তলা ভিত এক তলা ভবনের নির্মান কাজের কিছুদিন পর টেন্ডার প্রক্রিয়া শুরু হবে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে। কাঁকনহাট মহাবিদ্যালয়ের ঝুকিপূর্ণ ভবন সংস্কার ও মেরামতের জন্য ২৫ লাখ টাকা, এ ছাড়া সংস্কার ও মেরামতের জন্য আরও ৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ৫ লাখ টাকা করে উন্নয়ন বরাদ্ধ পেয়েছে। এ দিকে গুলগফুর স্কুল এন্ড কলেজের ৪তলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবনের নির্মান কাজ শেষ পর্যায়ে। এ ব্যয় করা হচ্ছে ২ কোটি ৪০ লাখ টাকা। সোনাদীঘি উচ্চ বিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন ৪ তলা ভিত একতলা ভবনের নির্মান কাজ চলছে। সোনাদিঘী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাইনুল ইসলাম জানান, এতে ব্যয় হবে ৭০ লাখ ৫০ হাজার টাকা। পিরিজপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮২ লাখ, ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে, চর আষাড়িয়াদহ কানাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ৭৮ টাকা, আল-জামিয়াতুস সালাফিয়া আলিম মাদ্রাসায় ৭৮ লাখ টাকা ব্যয়ে ৪ তলা ভিতের ১ তলা একাডেমিক ভবনের টেন্ডার প্রক্রিয়াধীন বলে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর গোদাগাড়ীর উপসহকারী প্রকৌশলী আব্দুস সামাদ মন্ডল এ প্রতিবেদককে জানান। তিনি আরও জানান গোদাগাড়ী উপজেলায় ১০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৪ তলা একাডেমিক ভবনের জরিপ প্রক্রিয়া শেষ পর্যায়ে, আগামী মাসে টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ হবে। প্রতিটি একাডেমিক ভবনে ব্যয় হবে প্রায় ২ কোটি ৫০ লাখ টাকা। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের বাস্তবায়নে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর নির্মান কাজগুলি করবেন বলে তিনি জানান। আগামী ১৮ মাসের মধ্যে একাডেমিক ভবনের নির্মান কাজ শেষ হবে বলে আশা করা যায়। পিরিজপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহাফুজুল আলম তোতা বলেন, ৮২ হাজার ৫০ লাখ টাকা ব্যয়ে একাডেমিক ভবন পাওয়ায় রাজশাহী -১ আসনের এমপি আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধুরীকে ধন্যবাদ জানিয়ে, ৫০০ শিক্ষার্থী উপকৃত হবে। শিক্ষার পরিবেশ পরিবেশ ভাল হবে, গুনগত মান বৃদ্ধি পাবে। মহিশালবাড়ী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: হায়দার আলী বলেন, ছাত্রী, শিক্ষক ও এলাকাবাসীর দীর্ঘ দিনের দাবীর পরিপ্রেক্ষিতিতে সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী, রাজশাহী- আসনের সংসদ আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধুরী ৪ তলা একাডেমিক ভবন দেয়ায় আমারা দারুন খুশি। উনার দীর্ঘায়ু ও সুস্থতা কামনা করি। বর্তমান সরকার ও এমপি মহোদয় শিক্ষা বান্ধব আবারও প্রমান হলো। তিনি আরও বলেন নির্মান কাজ শেষ হলে ৭০০ শতাধিক শিক্ষার্থীর শিক্ষার গুনগতমান বৃদ্ধি পাবে দীর্ঘদিনের অবকাঠামোর সমস্যার সমাধান হবে এবং পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল আরও ভাল হবে।
রাজশাহী Ñ১ আসনের সংসদ আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, বর্তমান শেখ হাসিনার সরকার উন্নয়নের সরকার, শিক্ষা বান্ধব সরকার, শেখ হাসিনা প্রধান মন্ত্রী হলে দেশের উন্নয়ন হয় এটা তার প্রমান। আর অন্য কেউ প্রধান মন্ত্রী হলে দেশের ক্ষতি হয় দেশ পিছিয়ে যায়, দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ান হয়। আগামীতে দেশের উন্নয়ন করতে হলে শেখ হাসিনা কে পুনঃরায় প্রধান মন্ত্রী বানাতে হবে। এটা আমার দেশ বাসীর নিকট অনুরোধ।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: শিমুল আকতার বলেন, বর্তমান সরকার শিক্ষা বান্ধব সরকার, উন্নয়নের সরকার, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন লক্ষে সরকার উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছে। শিক্ষা, স্বাস্থ্যসহ সার্বিক ক্ষেত্রে উন্নয়ন কাজে আমরা প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা হিসেবে বাস্তয়নের জন্য সরকারকে সময় সহযোগিতা করবো বলে তিনি জানান। এমপি মহোদয় কঠোর পরিশ্রম করে এলাকার সার্বিক উন্নয়ন করছেন, উনকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাই।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গোদাগাড়ী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ