Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ০৫ মাঘ ১৪২৭, ০৫ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ প্রসঙ্গ ও প্রতিবেদকের বক্তব্য

প্রকাশের সময় : ১৮ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

দৈনিক ইনকিলাবে গত ১৩ এপ্রিল ‘পাঁচবিবিতে খাল পুনঃখনন প্রকল্পে অনিয়মের অভিযোগ’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটির প্রতিবাদ জানিয়েছেন জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলা প্রকৌশলী মো: আব্দুল কাইয়ূম। তিনি প্রতিবাদ লিপিতে উল্লেখ করেন, ১৫/২০ দিনে কাজ শেষ করার অভিযোগ ঠিক নয়। চুক্তি মোতাবেক কাজটি ১৪ ডিসেম্বর ২০১৫ শুরু হয়ে গঠনকৃত ১২টি এলসিএস (লেবার কন্ট্রাংকটিক সোসাইটি) এর মাধ্যমে ২৪ মার্চ ২০১৬ শেষ হয়। প্রকৃতপক্ষে কাজটি বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত কোন প্রকার অনিয়ম, দুর্নীতি, টাকা লুটপাট ও আত্মসাৎ করা হয়নি। কে বা কারা সংবাদদাতাকে ভুল তথ্য দিয়ে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করিয়ে আমার ডিপার্টমেন্ট ও আমার ভাবমূর্তি ক্ষুণœ করার চেষ্টা করা হয়েছে। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও বিভ্রান্তিকর। আমি উক্ত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
প্রতিবেদকের বক্তব্য
সরেজমিন প্রকল্পটি দেখতে গিয়ে সেখানে কোন শ্রমিক দেখা যায়নি। খনন মেশিন দিয়ে খননের কাজ চলছিল। শ্রমিকের বিষয়ে প্রকল্পের সভাপতি ফজলুর রহমান জানান, শ্রমিক সংকটে শ্রমিক না পেয়ে তড়িঘড়ি করে খাল খনন করার জন্য খনন মেশিন দিয়ে কাজ করা হয়েছে। স্থানীয় শ্রমিকদের অভিযোগ, মজুরী কম দেয়ায় তারা কাজ করতে অস্বীকৃতি জানায়। এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল কাইয়ুম খনন মেশিন দিয়ে কাজ করার কথা স্বীকার করে বলেছেন, কাজটি এলজিইডির জয়পুরহাটের মাধ্যমে হচ্ছে, আমরা শুধু তদারকির দায়িত্বে আছি। অর্থ আত্মসাতের বিষয়ে তিনি বলেন, কোন ধরনের অনিয়ম হয়নি। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, শ্রমিক ব্যবহার না করে খনন মেশিন দিয়ে তড়িঘড়ি করে কাজ শেষ করা হয়। তারা আরো বলেন, প্রকল্প সভাপতি ও এলজিইডির অসাধু কিছু কর্মকর্তার যোগসাজশে লোক দেখানো কাজ করে প্রকল্পের অর্থ লুটপাট করা হয়েছে। উল্লেখিত তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরী করা হয়। প্রতিবেদনে প্রতিবেদকের নিজেস্ব কোন বক্তব্য স্থান পায়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ প্রসঙ্গ ও প্রতিবেদকের বক্তব্য
আরও পড়ুন