Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

গাজায় রাতভর ইসরাইলি বিমান হামলা, ২ ফিলিস্তিনি নিহত

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ৩০ জুলাই, ২০১৮, ১২:০২ এএম

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় উত্তেজনা প্রশমনে জাতিসংঘ এবং মিসর উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। গাজা চুক্তির অগ্রগতির জন্য সব পক্ষের ওপর ব্যাপক চাপ প্রয়োগ করছে বলে কূটনৈতিক সূত্রের বরাতে শনিবার জেরুজালেম পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। সূত্র জানায়, চুক্তির বিষয়ে আলোচনা এগিয়ে চলছে কিন্তু ইসরাইল এবং হামাসের মধ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠা না হলে কোনো ফলই আসবে না। এছাড়াও ফাতাহ এবং হামাসের মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি রয়েছে। প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, ‘এটি একটি অভূতপূর্ব উদ্যোগ কিন্তু তা সফল হয় কিনা সেটাই দেখার বিষয়। কেননা এটি একটি উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ কাজ।’ গাজায় ইসরাইলি সেনারা হামাসের সঙ্গে যুদ্ধবিরতি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। হামাস ও ইসরাইলের মধ্যে শান্তি আলোচনা পুনরায় শুরু করার কথা রয়েছে। সূত্র বলছে, গাজা চুক্তির তাৎপর্যপূর্ণ অগ্রগতির জন্য এতে জাতিসংঘ, মিশর, ইসরাইল, ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ ও হামাসকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। এদিকে, গাজা উপত্যকায় শনিবার রাতভর ইসরাইলি বিমানের চালানো হামলায় দুই ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, উত্তর গাজা এলাকার পূর্ব জাবালিয়ায় একটি কবরস্থানের কাছে জড়ো হওয়া মানুষদের ওপর এই বিমান হামলা চালানো হয়। তবে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের এই দাবি সম্পর্কে তাৎক্ষণিক কোনও মন্তব্য করেনি ইসরাইলি প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ)। ইসরাইলি বার্তা সংস্থা ওয়াইনেট নিউজ জানিয়েছে, হামলাস্থলে ২৪ বছরের দুই ফিলিস্তিনি যুবকের লাশ পাওয়া গেছে। এক বিবৃতিতে ইসরাইলের সেনাবাহিনী জানিয়েছে, বিদেশি সংবাদমাধ্যমের খবরের বিষয়ে আইডিএফ প্রতিক্রিয়া জানায় না। ২০১৪ সালের পর বিগত কয়েক সপ্তাহে ইসরাইল ও গাজা উপত্যকার নিয়ন্ত্রক দল হামাসের মধ্যে উত্তেজনা বেড়েছে। শনিবার ফিলিস্তিনি সংবাদমাধ্যমে গাজার দক্ষিণাঞ্চলে একদল ফিলিস্তিনির ওপর ইসরাইলি বিমানের হামলার খবর প্রকাশিত হয়। তবে ইসরাইলি সেনাবাহিনী ওই হামলার বিষয়ে কিছু জানে না বলে দাবি করে। এর আগে বৃহস্পতিবার তিন ইসরাইলিকে ছুরিকাঘাতের পর এক ফিলিস্তিনি তরুণকে গুলি করে হত্যা করে ইসরাইলি সেনারা। পরদিন শুক্রবার ফিলিস্তিনি বিক্ষোভে গুলি চালিয়ে আরও দুই ফিলিস্তিনিকে হত্যা করা হয়। ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ বলছে, ফিলিস্তিনি ভূমি থেকে ওড়ানো জ্বলন্ত বেলুন ও ঘুড়িতে পাঠানো আগুনে পুড়ে গেছে প্রায় সাত হাজার একর জমির ফসল। ফলে এই বেলুন ও ঘুড়ি ওড়ানোদের বিরুদ্ধে অভিযান জোরালো করেছে তারা। তবে শনিবার ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে ইসরাইলি নাগরিকেরাও তাদের কৃষি জমিতে আগুন ধরিয়ে দিচ্ছে। জেরুজালেম পোস্ট, রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ