Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৩ মাঘ ১৪২৭, ১৩ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

আ. লীগের দুই গ্রুপের তীব্র উত্তেজনা

নেছারাবাদ (পিরোজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩ আগস্ট, ২০১৮, ১২:০২ এএম

নেছারাবাদে আওয়ামীলীগে দু‘গ্রুপের উত্তেজনায় উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি শশাঙ্কর রঞ্জন সমদ্দার, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম রিপন ও বর্তমান ছাত্রলীগের সভাপতি রণি দত্তকে গ্রেফতার করে দু‘জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। গত বুধবার বিকেলে উপজেলার দক্ষিণপাড় বন্দরের তেতুলতলা এলাকায় দু‘গ্রুপের চরম উত্তেজনা বিরাজ করে। পুলিশ খবর পেয়ে পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থল থেকে শমাঙ্কর, রণিদত্ত সহ পরে রিপনকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসেন। রাতে সাবেক এমপি অধ্যক্ষ শাহ্ আলমের জিম্মায় কৃষক লীগের সভাপতি শশাঙ্কর রঞ্জন সমদ্দার ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রণি দত্তকে ছেড়ে দেয়া হয়। এবং শহিদুল ইসলাম রিপনকে ওয়ারেন্টের আসামি দেখিয়ে পুলিশ বৃহস্পতিবার সকালে কোর্টে চালান করেন।
কৃষক লীগের সভাপতি শশাঙ্কর রঞ্জন সমদ্দার অভিযোগ করে বলেন, ১লা আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস পালনে শোক র‌্যালী বের করার জন্য কৃষক লীগ, আওয়ামী যুব মহিলা লীগ, ছাত্রলীগ জড়ো হয়ে র‌্যালীর প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। এসময় হঠাৎ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসে আমাদের উপর লাঠি চার্জ করে আমাকে সহ ছাত্রলীগের সভাপতি রণি দত্তকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে অনেক বকাঝকা করেন।
থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) কে, এম তারিকুল ইসলাম বলেন, সভাপতি শশাঙ্কর রঞ্জন সমদ্দারের কথাগুলো বানোয়াট। তারা গ্রুপিংজনিত কারন নিয়ে ওখানে জড়ে[ হয়ে উত্তেজনার সৃষ্টি করছিল। ঘটনাস্থলে আমি ফোর্স নিয়ে না গেলে বড় ধরনের মার্ডার বা রক্তপাতের ঘটনা ঘটতে পারত। তাৎক্ষনিক ঘটনা সামাল দিতে তাকে সহ ছাত্রলীগ নেতা রণিদত্তকে গ্রেফতার করতে বাধ্য হয়েছি। এছাড়া গ্রেফতারকৃত শহিদুল ইসলাম রিপনকে ওয়ারেন্টের আসামী হিসাবে চালান করা হয়েছে।
জানা যায়, গত ৩০ জুলাই (সোমবার) প্রশান্ত দাসকে সভাপতি ও বেল্লাল হোসেন-কে সম্পাদক করে উপজেলার শহিদ স্মৃতি ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষিত হয়। আর সে কমিটিতে একটা অশং জায়গা না পেয়ে বিক্ষোভ মিছিল বের করলে উভয় পক্ষের মধ্যে ওই গন্ডগোল সৃষ্টি হয়। পরে ওই দিনই সন্ধ্যায় কমিটি থেকে পদ বঞ্চিতরা আবারও একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এ নিয়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে পাল্টা-পাল্টি কর্মসূচী চলে আসছিল। এ নিয়ে ক্রমেই উপজেলা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগে গ্রুপিংয়ের মাত্রাটা বেড়েই চলছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আওয়ামীলীগ


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ