Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

ক্যালিফোর্নিয়ায় ভয়াবহ দাবানল

বন্ধে কাজ করছে ১৪ হাজার দমকল কর্মী

দি মার্কারি নিউজ : | প্রকাশের সময় : ৮ আগস্ট, ২০১৮, ১২:০১ এএম

ক্যালিফোর্নিয়া রাজ্যে এখন দাবানলের সময়। রাজ্য জুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে ভয়াবহ দাবানল। এর মধ্যে ১৬টি প্রধান দাবানলের জায়গায় আগুন নেভাতে ১৪ হাজার দমকল কর্মী লড়াই করছেন। এ দাবানলে ইতিমধ্যে ২ হাজার বাড়ি পুড়ে গেছে ও ৯ জন নিহত হয়েছে। এবং আগের একটি অশুভ রেকর্ড ভঙ্গ হয়েছে।
সোমবার সন্ধ্যা নাগাদ মেনডোসিনো কমপ্লেক্স অগ্নিকান্ডে লেক, কলুসা ও মেনডোসিনোতে ক্লিয়ার লেকের চারপাশের তৃণভূমির বেশিরভাগই পুড়ে গেছে। এর পরিমাণ ২ লাখ ৮৩ হাজার ৮শ’ একর যা সান জোসে, সানফ্রান্সিসকো, ওকল্যান্ড ও স্যাক্রামেন্টো নগরীর সমন্বিত আয়তনের চেয়েও বৃহৎ। ক্যালিফোর্নিয়ার ইতিহাসের রেকর্ডে এটাই সবচেয়ে বড় দাবানল।
দমকল কর্মর্তারা বলেন, এ আগুন সপ্তাহান্তে দ্বিগুণ এলাকায় পরিব্যাপ্ত হয়েছে। ৭৫টি বাড়ি ভস্মীভূত হয়েছে। তারা বলেন, এ দাবানল ডিসেম্বরে সান্তা বারবারা ও ভেনচুরা কাউন্টিতে সংঘটিত টমাস অগ্নিকান্ডকে ছাড়িয়ে গেছে। এত এক হাজার অবকাঠামো ভস্মীভূত ও এক ব্যক্তি নিহত হয়।
ক্যালিফোর্নিয়া দমকল বিভাগ ক্যাল ফায়ার-এর মুখপাত্র স্কট ম্যাকলিন বলেন, রাজ্য জুড়ে অগ্নিকান্ড পরিস্থিতির অবনতি ঘটছে।
গতমাসে কার অগ্নিকান্ডে রেডিং-এর পশ্চিম প্রান্তে ১০৮০টি বাড়ি ধ্বংস ও ৭ ব্যক্তি নিহত হয়। ২৩ জুলাই একটি ট্রেলার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফুটপাতের ওপর উঠে পড়লে অগ্নিকান্ডের শুরু হয়। সোমবার নাগাদ তা ১ লাখ ৬৩ হাজার ২০৭ একর এলাকা ভস্মীভ‚ত করে।
আরো অগ্নিকান্ডের আশংকা আছে। দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়া বরাবরএকটি তাপদাহ আসন্ন হওয়ার প্রেক্ষিতে জাদীয় আবহাওয়া দফতর মঙ্গলবার সান্তা বারবারা, ভেনচুরা ও লস এঞ্জেলেসের বৃহত্তর অংশে এক লাল পতাকা সতর্কতা জারি করেছে। লস এঞ্জেলেসের কেন্দ্রস্থলে তাপমাত্রা ৯৫ ডিগ্রি ও সান ফার্নান্ডো উপত্যকায় ১০৮ ডিগ্রি তাপমাত্রার পূর্বাভাস দিয়েছে। পূর্বাভাসে বলা হয়, উচ্চ তাপমাত্রা, কম আর্দ্রতা ও ঘন্টায় ৫০ মাইল গতিবেগ পর্যন্ত উন্নীত দমকা হাওয়া লস পেডারস ন্যাশনাল ফরেস্ট ও এঞ্জেলস ন্যাশনাল ফরেস্টসহ দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ার পাহাড়ি এলাকায় চরম দাবানল ঝুঁকি সৃষ্টি করতে পারে।
ইউসি বার্কেলের অগ্নি বিজ্ঞান-এর অধ্যাপক স্কট স্টিফেন্স বলেন, পাঁচ বছর ব্যাপী খরার কারণে ঝোপঝাড় ও অন্যান্য তুণগুল্ম বিলীন হয়ে যাওয়ায় এ বছর খারাপ গ্রীষ্মকাল এসেছে। অক্টোবব থেকে দাবানল মওসুম শুরু হয়েছে বলে তিনি জানান।
তবে সব খবরই খারাপ নয়।
দমকল কর্মীরা সোমবার কয়েকটি জায়গায় আগুনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কিছু সাফল্য পেয়েছেন। ইয়োসেমাইট ন্যাশনাল পার্কের ওয়াওয়োনা কম্যুনিটির লোকদের তাদের বাড়িতে ফেরার উপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হয়েছে।
রোববার ন্যাশনাল পার্ক কর্মকর্তারা ইয়োসেমাইট উপত্যকা, ওয়াওয়োনা, গেøসিয়ার পয়েন্টও হেচ হেচিসহ পার্কের অধিকাংশ অংশ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেন। শুধু টুয়োলোমনি মিডোসের কাছে টিয়োগা রোড ও হাই কাউন্টি এখনো খোলা আছে। পার্কের চারপাশের কম্যুনিটির জন্য পর্যটন মওসুমে কিছু অর্থ আয়ের ক্ষেত্রে এ এক বিরাট ধাক্কা।
ইয়োসেমাইটের এক মুখপাত্র স্কট গেডিম্যান জানান, বছরের এ সময় যেখানে ৭শ’ কর্র্মী থাকে সেখানে এখন মাত্র ৪০ জন আছে। এরা অতি জরুরি সেবা সচল রেখেছে।
ইয়োসেমাইট উপত্যকার ধোঁয়ার মাত্রা ক্ষতিকর পর্যায় অতিক্রম করেছে। দৃশ্যমানতা ক্ষীণ। দমকলের ট্রাকগুলো পার্কে অভিমুখী ৪১, ১৪০ ও ১২০ নম্বর মহাসড়ক প্রতিদিন আটকে রাখছে। পার্কের অধিকাংশ কর্মচারী কর্মস্থলে আসতে না পেরে আশপাশের এলাকায় অবস্থান করে কাজ করছে। গেডিম্যান বলেন, আমরা যত দ্রæত পারি , রাস্তা খোলার চেষ্টা করছি। তবে পর্যটক ও কর্মচারীদের নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্য আমাদের কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।
ইয়োসেমাইটের জন্য হুমকি সৃষ্টিকারী অগ্নিকান্ডের নাম দেয়া হয়েছে ফার্গুসন ফায়ার। আগুনের জন্য ২৫ জুলাই পার্ক বন্ধ করে দেয়া হয়। এ আগুনে ইতিমধ্যে ৯১ হাজার ৫০২ একর এলাকা পুড়ে গেছে। তবে ইয়োসেমাইটের পর্যটন আকর্ষণ হাফ ডোম, এল ক্যাপ্টেইন বা অন্য কোনো স্থাপনার প্রতি আশু হুমকি নেই।
তবে উত্তরের কয়েকটি দাবানল মহাসড়ক ১০৮ সনোরা পাস এলাকায় একটি বিখ্যাত স্থান পুড়ে গেছে। গোনওয়েল দাবানলে সোনোরা পাসের কাছে দারদানেলি অবকাশ কেন্দ্র রোববার ভস্মীভ‚ত হয়ে গেছে। এ অবকাশ কেন্দ্রে অনেকগুলো কেবিন নিয়ে কম্পাউন্ড, একটি মোটেল ও ১৯২৩ সালে চালু ৫হাজার ৭শ’ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত আর ভি সাইট ছিল। অবকাশ কেন্দ্রের মালিক বলেন, ব্যাপক অবকাঠামো ক্ষতি হয়েছে যা আমার হৃদয় ভেঙে দিয়েছে। মার্কিন বন বিভাগের কর্মকর্তারা বলেন, দমকল কর্মী ও সরঞ্জামের খুব অভাব।
রাজ্য জুড়ে ধোঁয়ার বিস্তার সিয়েরা ও সেন্ট্রাল ভ্যালিতে বাতাসের পরিচ্ছন্নতা হ্রাস করেছে। বে এরিয়া এয়ার কোয়ালিটি ম্যানেজমেন্ট ডিস্ট্রিক্ট বৃহস্পতিবার বায়ু দূষণ সতর্কতা জারি করে। ধোঁয়ার শিকার লোকজনকে দরজা-জানালা বন্ধ করে ঘরের ভিতর থাকতে বলা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর