Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার , ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৮ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

জয় দিয়েই শুরুর স্বপ্নে কিশোরীরা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ আগস্ট, ২০১৮, ১২:০১ এএম

জয় দিয়েই সাফ অনুর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের আসর শুরু করতে চায় বাংলাদেশের কিশোরীরা। আজ ভুটানের থিম্পুতে মাঠে গড়াচ্ছে টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় আসর। উদ্বোধনী দিনেই অপেক্ষাকৃত দূর্বল পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ। থিম্পুর চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায় শুরু হবে ম্যাচটি। একই দিন বিকাল ৪টায় গত আসরের রানার্সআপ ভারত মুখোমুখী হবে শ্রীলঙ্কার।
মাত্র আট মাসের ব্যবধানে একই টুর্নামেন্টে দ্বিতীয়বার খেলতে নামছেন মারিয়া, আঁখি, মনিকা চাকমারা। গত ডিসেম্বরে ঢাকার কমলাপুরস্থ বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে টুর্নামেন্টের প্রথম আসরে শিরোপা জিতেছিল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ কিশোরী দল। ফাইনালে তারা হারিয়েছিল ভারতকে। এবার ভুটান মিশন। তবে থিম্পুর আবহাওয়া নিয়ে কিছুটা শঙ্কায় ছিল বাংলাদেশ দল। সেখানে বেশ ঠান্ডা। তাপমাত্রা ১২ থেকে ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। থেমে থেমে বৃষ্টিও হচ্ছে। তাই মারিয়াদের নিয়ে কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনের ভয় ছিল। তবে এরই মধ্যে মানিয়ে নিয়েছে লাল-সবুজের কিশোরীরা।
বাংলাদেশ ও পাকিস্তান- দুই দেশ সিনিয়র পর্যায়ে একাধিকবার মুখোমুখি হলেও কিশোরীদের দেখা এবারই প্রথম। ফেভারিট হিসেবে পাকিস্তানকে হারিয়েই শিরোপা ধরে রাখার মিশন শুরু করতে চায় বাংলাদেশ। গতকাল থিম্পুতে ম্যাচ পূর্ববর্তী এক সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানান বাংলাদেশ কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানের বিপক্ষে লড়তে প্রস্তুত আমরা। গত সাত মাস ধরে মেয়েরা যে কঠোর অনুশীলন করছে, তা এবার দেখানোর পালা। মানসিক ও শারীরিকভাবে দলের সবাই সুস্থ রয়েছে। জিততে মুখিয়ে আছে ওরা। কেবল পাকিস্তানই নয়, টুর্নামেন্টে অংশ নেয়া বাকি পাঁচটি দেশই শক্তিশালী। আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ জিততে চাই।’ ছোটন যোগ করেন, ‘আমাদের মেয়েরা জানে কিভাবে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে হয়। ক’মাস আগেই তারা হংকংয়ে অনুষ্ঠিত হকি কাপে শিরোপা জিতে এসেছে। মেয়েদের সাফল্যের জন্য সবাই দোয়া করবেন।’ অধিনায়ক মারিয়া মান্ডা বলেন, ‘আমরা এখানে চ্যাম্পিয়ন হতে এসেছি। অনেক কঠিন পরিশ্রম করেছি। আত্মবিশ্বাস রয়েছে যে, পাকিস্তানের সঙ্গে আমরা জিতবো। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন হিসেবে আমাদের উপর কোন চাপ নেই। সবাই জেতার জন্যই কাল (আজ) মাঠে নামবে।’
পাকিস্তানের কোচ মোহাম্মদ রশিদ বলেন, ‘বাংলাদেশ অনেক শক্তিশালী ও ভারসাম্যপূর্ণ দল। তারা এই টুর্নামেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। যদিও আমরা নতুন দল এবং প্রথমবার এই টুর্নামেন্টে খেলতে এসেছি, তবে আমরা সেরা খেলা খেলেই জিততে চেষ্টা করবো।’
গত ডিসেম্বরে ঢাকায় অনুষ্ঠিত সর্বশেষ আসরে নেপালকে ৬-০ হারিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করে বাংলাদেশ। পরের ম্যাচে ভুটানকে ৩-০ গোলে এবং একই ব্যবধানে ভারতকে হারিয়ে ফাইনালে জায়গা পায় বাংলাদেশ। আর শিরোপা নির্ধারনী ম্যাচে ভারতকে ১-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় লাল-সবুজরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নারী ফুটবল

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
১৯ অক্টোবর, ২০১৮
১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ