Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

এখনও অনিশ্চিয়তায় পাক-ভারত ম্যাচ!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ আগস্ট, ২০১৮, ১২:০১ এএম


বিশ্ব ক্রিকেটে ভারত-পাকিস্তান লড়াই মানেই এক অন্যরকম দ্বৈরথ, এক সুদীর্ঘ প্রতিদ্ব›দ্বীতা। সারাবিশ্ব বাদ দিয়ে শুধু দুই দেশের কথা চিন্তা করলেও মাঠের ক্রিকেট ছাপিয়ে দুই দলের লড়াইটা রূপ নেয় এক জাতিগত লড়াইয়ে। তবে খেলার বাইরে ছড়ায় না সেই সংঘাত, লড়াইয়ের সমাপ্তি ঘটে খেলার ফলাফলের মাধ্যমে। দুই দেশের মধ্যকার ধ্রæপদী লড়াইয়ের সুযোগ হয়ে এসেছিল আসন্ন এশিয়া কাপ ক্রিকেট। যেখানে ‘এ’ গ্রæপে রয়েছে ভারত ও পাকিস্তান। প্রকাশিত সূচিতে ১৯ সেপ্টেম্বর মুখোমুখি হওয়ার কথা রয়েছে দুই দলের। কিন্তু ভারতীয় ক্রিকেট দলের ব্যস্ত সূচির কারণে সংশয় জেগেছে এই ভারত-পাকিস্তান লড়াইটা মাঠে গড়ানোর বিষয়ে।
প্রকাশিত সূচিতে দেখা যাচ্ছে ১৯ ও ২০ তারিখ পরপর দুইদিন খেলা রয়েছে ভারতের। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলে আবার বিরতি ছাড়াই দুইদিন দুইটি ওয়ানডে খেলা কঠিন বলেই মন্তব্য করেছিলেন ভারতের সাবেক ওপেনার বীরেন্দ্র শেবাগ।
দুবাইয়ের তীব্র গরমের মধ্যে টানা দুটি ম্যাচ খেলা অসম্ভব বলেই জানিয়েছিলেন এই ওপেনার, ‘আমি সূচি দেখে ভীষণ ধাক্কা খেয়েছি। এখনকার দিনে কোন দেশ টানা ম্যাচ খেলে? ইংল্যান্ডে টি-টোয়েন্টি ম্যাচের মধ্যেও দুদিন বিরতি থাকে। আর এখানে আপনি দুবাইয়ের গরম আবহাওয়ায় খেলবেন ওয়ানডে, সেটা আবার বিরতি ছাড়া! তাই আমি মনে করি না, সূচিটা সঠিকভাবে হয়েছে।’ সে সময় ভারতকে এই টুর্নামেন্ট বর্জনের আহŸবান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এশিয়া কাপ খেলার জন্য এত কান্নাকাটি কেন? এশিয়া কাপ খেলো না। হোম অথবা অ্যাওয়ে সিরিজ খেলার প্রস্তুতি নাও। টানা ম্যাচ খেলা আসলেই খুব কঠিন।’
সময় যত গড়াচ্ছে, ততই জটিল আকার ধারণ করছে ব্যপারটি। শেবাগের মত কঠোর না হলেও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শীর্ষ বিসিসিআই কর্মকর্তাও ইঙ্গিত দিলেন তেমনই কিছুর, ‘সূচির (এশিয়া কাপ) গোড়াতেই গলদ, নির্বুদ্ধিতার সামিল। কোন সুচিন্তিত লোক এ কাজ করতে পারে বলে আমরা বিশ্বাস করি না। আপনি কিভাবে মেনে নেন যে ভারত আজও এবং আগামীকাল পর পর দুই দিনে দুটো ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে, যেখানে আমাদের প্রতিপক্ষ চির প্রতিদ্ব›দ্বী পাকিস্তান? এটা মানা যায় না এবং পরিবর্তন করতে হবে। আয়োজকদের জন্য হতে পারে শুধুই টাকা কামানোর একটি ম্যাচ কিন্তু আমাদের জন্য এটা সমান সুযোগের প্রশ্ন।’
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতের টেস্ট সিরিজ শেষ হবে ১১ তারিখ। এশিয়া কাপ শুরু হবে ১৫ তারিখ। এশিয়া কাপের জন্য কোনোরকম প্রস্তুতি ছাড়াই আরব আমিরাতে উড়াল দেবে ভারত। সেখানে আবার দুইদিনে দুই ম্যাচ খেলাটা যে তাদের জন্য সহজ হবে না সেই বোধোদয় হয়েছে এসিসিরও। তাই বহুল প্রতীক্ষিত ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের সূচির ব্যাপারে নতুন করে ভাবার ইঙ্গিত দিয়েছে এসিসি। যদি তা না হয় এবং ভারতের মতো একটি দল যদি এশিয়া কাপ বর্জন করে তাহলে বাণিজ্যিক ও মাঠের লড়াইয়ের দিক থেকে অনেকটাই রঙ হারাবে টুর্নামেন্ট। তাই নিজেদের প্রকাশিত সূচি নিয়ে নতুন করে ভাবতে শুরু করেছে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি)।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর