Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৮, ৮ কার্তিক ১৪২৫, ১২ সফর ১৪৪০ হিজরী

এবারো দুই ভেন্যুতে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ আগস্ট, ২০১৮, ১২:০৬ এএম

আসন্ন বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্টের খেলা হবে দেশের দুই ভেন্যুতে। এবার ঢাকার ভেন্যু ঠিক থাকলেও বদলে গেছে রাজধানীর বাইরের ভেন্যু। আগের আসরে ঢাকার সঙ্গে যশোরে খেলা হলেও এবার হবে সিলেটে। গতকাল এমন তথ্যই জানান বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন।
এক বছরের বিরতিতে কে-স্পোর্টসের পৃষ্ঠপোষকতায় আগামী ১ অক্টোবর মাঠে গড়াবে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের পঞ্চম আসর। চলবে ১২ অক্টোবর পর্যন্ত। টুর্নামেন্টে স্বাগতিক বাংলাদেশ ও এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের (এএফসি) পাঁচটি জোনের পাঁচ দেশসহ মোট ছয়টি জাতীয় দলের খেলার কথা রয়েছে। বাফুফে মুখে জাতীয় দলগুলোর অংশগ্রহণের কথা বললেও আগের আসরগুলোর মতো এবারো বিভিন্ন দেশের বয়স ভিত্তিক দল খেলার শংকা রয়েছে। ২০১৬ সালে সর্বশেষ আটটি দল খেলেিেছল এই টুর্নামেন্টে। এবার দু’টি কমেছে। এশিয়ার পাঁচ অঞ্চলের মধ্যে ইতোমধ্যে তিন অঞ্চলের দল নিশ্চিত হয়েছে বলে বাফুফে সূত্র জানায়। এছাড়া আসিয়ান থেকে ফিলিপাইন, মধ্যপ্রাচ্য থেকে ফিলিস্তিন এবং দক্ষিণ এশিয়া থেকে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন নেপালের অংশ নেয়ার কথা রয়েছে। বাকি রয়েছে দূরপ্রাচ্য এবং মধ্য এশিয়ার দেশ। যা এখনো নির্ধারণ হয়নি। আগামী ১০/১৫ দিনের মধ্যে এ দুই দলও নিশ্চিত হবে বলে কাল বাফুফে ও কে স্পোর্টসের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে জানান বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন। অনুষ্ঠানে বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি আবদুস সালাম মুর্শেদী এবং কে স্পোর্টসের প্রধান নির্বাহী অফিসার ফাহাদ এমএ করিমের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হয়। চুক্তি অনুযায়ী টুর্নামেন্টের সব খরচই বহন করবে ‘কে স্পোর্টস’। আর বাফুফেকে তারা দেবে এক কোটি টাকা। অনুষ্ঠানে কাজী সালাহউদ্দিন বলেন, ‘ কে স্পোর্টসের সঙ্গে আপাতত এই বছরের টুর্নামেন্টের জন্য চুক্তি হচ্ছে। যদি তারা সফল হয়, তাহলে আগামীতে দীর্ঘমেয়াদী চুক্তিতে যাব আমরা। এই বছরে কে স্পোর্টসের সঙ্গে একটি টেস্ট কেস হিসেবে দেখছি আমরা।’ কে স্পোর্টসের সিইও ফাহাদ করিম বলেন, ‘আমরা ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান হিসেবে অবশ্যই চাইবো ব্যবসা হোক। কিন্তু জাতির জনকের নামের এই টুর্নামেন্টে আমাদের কাছে ব্যবসাটা মূখ্য নয়। তবে প্রথম আসর থেকেই আমরা লাভের চিন্তা করছি। লাভ না হলেও সমান-সমান হলেই সন্তুষ্ট। ’
বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ নিয়ে কে স্পোর্টসের প্রাথমিক পরিকল্পনা, ‘মাত্র চুক্তি হলো। দেশীয় টিভি চ্যানেলের সঙ্গে কথা বলব সম্প্রচার নিয়ে। আমরা টুর্নামেন্টটি দেশের বাইরেও ছড়িয়ে দিতে চাই। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ দক্ষিণ এশিয়ার সেরা টুর্নামেন্ট হিসেবে গড়ে তোলাই হবে আমাদের লক্ষ্য। টুর্নামেন্ট উপলক্ষ্যে আমরা বিভিন্ন ইভেন্ট করব। লোগো, ট্রফি উন্মোচন সহ আরো অনেক কিছু থাকবে।’ সম্প্রচার স্বত্ত¡টা কে স্পোর্টসের কাছে থাকলেও টিকিটের স্বত্বটা থাকবে বাফুফের অধীনে। এক কোটি টাকার পাশাপাশি টিকিট থেকেও বাফুফে অর্থ পাবে। ভেন্যু, রেফারিজ, দল চূড়ান্তকরণ এই বিষয়গুলো বাফুফে নির্ধারন করবে। ঢাকার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম এবং সিলেট এই দু’ভেন্যুতে টুর্নামেন্টের ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে। গ্রæপপর্বের ম্যাচগুলো সিলেটে এবং ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে সেমিফাইনাল ও ফাইনাল।
টুর্নামেন্টের বাজেট নিয়ে ফাহাদ বলেন,‘ আমরা এখনো সুনির্দিষ্টভাবে বাজেট করতে পারেনি। কোন দেশ থেকে কোন দল আসবে এটা নিশ্চিত হলে পুরো বাজেট নির্ধরণ করা যাবে।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর