Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫, ১৫ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

ভৈরবে সংঘর্ষ ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ

ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১১ আগস্ট, ২০১৮, ১২:০৪ এএম

হত্যা মামলায় জামিন নিয়ে এসে প্রতিপক্ষের বাড়িঘর ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করায় দুপক্ষের লোকজনের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষের সময় উভয় পক্ষের ২৫ নারী পুরুষ আহত হয় বলে আহতদের স্বজন ও স্থানীয়রা জানান। গুরুতর আহতদেরকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। বৃহষ্পতিবার দুপুরে কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার সাদেকপুর ইউনিয়নের মেন্দিপুর ও মোঠুপি গ্রামের দুই পক্ষে লোকজনের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
জানাগেছে, চলতি বছরের ১৫ জুলাই মেন্দিপুর সিএনজি (অটোরিক্সা) স্টেশনে ভাড়া নিয়ে তর্কবিতর্কের জের ধরে সিএনজি চালিত অটোরিক্সার চালক সিদ্দিক নিহত হয়। নিহতের ঘটনায় সাদেকপুর ইউপি চেয়ারম্যান সাফায়েত উল্লাকে প্রধান অভিযুক্ত আসামী করে ৫৩ জনের বিরুদ্ধে নিহতের স্বজনরা মামলা দায়ের করেন। ওই হত্যা মামলায় বুধবার বিজ্ঞ আদালত থেকে জামিন পায় অভিযুক্ত আসামীরা। গত বুধবার অভিযুক্ত আসামীরা আদালত থেকে জামিন পেয়ে ক্ষোব্দ হয়ে বৃহষ্পতিবার দুপুর একটার দিকে দেশীয় অস্ত্রেসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে (হত্যা মামলার স্বাক্ষী) প্রতিপক্ষের বাড়িতে ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করার ঘটনায় দুপক্ষের লোকজনের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। এসময় হত্যা মামলার অভিযুক্তদের পক্ষের লোকজন প্রতিপক্ষের বাড়িঘর ভাংচুরসহ ৫টি ঘরে ও ৩০টি খরের গাদায় আগুন দেয়। ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনা স্থলে পৌঁছে আগুন নেভায়।
সংঘর্ষের খবর পেয়ে ভৈরব থানা পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসন ঘটনাস্থলে গিয়ে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে আনেন। এঘটনায় এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর