Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৪ ফাল্গুন ১৪২৫, ১০ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

তৃতীয় দফা ভূমিকম্প নিহতের সংখ্যা দ্বিগুণ

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ১১ আগস্ট, ২০১৮, ১২:০৫ এএম

তৃতীয় দফায় শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছে ইন্দোনেশিয়া। লম্বক দ্বীপে এ নিয়ে এক সপ্তাহে তিনবার ভূমিকম্প আঘাত হানল। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ভূমিকম্পের আঘাতে নিহতের সংখ্যা আগের চেয়ে দ্বিগুণ হয়েছে। প্রথম ভূমিকম্পটি আঘাত হানে রোববার রাতে। ৬ দশমিক ৯ মাত্রার ওই ভূমিকম্পে লম্বক দ্বীপে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির ঘটনা ঘটেছে। সেনাবাহিনীর বরাত দিয়ে গার্ডিয়ানের এক খবরে বলা হয়েছে, ভূমিকম্পে এখন পর্যন্ত ৩৮১ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থা কেন্দ্র বলছে, ভূমিকম্পে ২৫৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। অপরদিকে, বৃহস্পতিবার ইন্দোনেশিয়ার শীর্ষ নিরাপত্তামন্ত্রী উইরানতো জানিয়েছেন, লম্বক দ্বীপে ভূমিকম্পের আঘাতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩১৯ জন। বৃহস্পতিবার দুপুরের পরে আঘাত হানা ৫ দশমিক ৯ মাত্রার ওই ভূমিকম্পে আতঙ্কিত লোকজন বাড়ি-ঘর থেকে রাস্তায় নেমে আসে। ইন্দোনেশিয়ার ভূতাত্তি¡ক জরিপ জানিয়েছে, লম্বক দ্বীপ থেকে ৬ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। এর গভীরতা ছিল ১২ কিলোমিটার। ভূমিকম্পে নতুন করে আরও বেশ কিছু ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। রোববারের ভূমিকম্পে বহু বাড়ি-ঘর ধসে পড়ে। এরপর কয়েক দফা ভূমিকম্পে লম্বক দ্বীপ যেন ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে। ইন্দোনেশিয়ার দুর্যোগ প্রশমন সংস্থা জানিয়েছে, রোববার রাতে আঘাত হানা ৬ দশমিক ৯ মাত্রার ভূমিকম্পের পর থেকেই লম্বকের ভবনগুলো দুর্বল হয়ে পড়েছিল। তাছাড়া এর আগে গত মাসের ২৯ তারিখে ৬ দশমিক ৪ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পেও অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ওই ভূমিকম্পও বিভিন্ন স্থাপনা ও বাড়ি-ঘরকে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে এবং অনেক ভবনই পুরোপুরি ধসে না পড়লেও অনেকটাই দুর্বল হয়ে পড়েছিল। বিবিসি, রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভূমিকম্প

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
১২ নভেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ