Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫, ১২ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

ইহুদি রাষ্ট্র ঘোষণার প্রতিবাদে ইসরাইলে বিক্ষোভ সমাবেশ

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ১৩ আগস্ট, ২০১৮, ১২:০১ এএম

ইসরাইলকে ইহুদি রাষ্ট্র ঘোষণা করায় খোদ ইসরাইলেই বিশাল বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ হয়েছে। ইহুদিবাদী দেশটির রাজধানী তেলআবিবের রবিন স্কোয়ারে শনিবার আরব ইসরাইলিরা ওই বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। ইসরাইলি পার্লামেন্ট নেসেটে গত মাসে দেশটিকে ‘ইহুদি রাষ্ট্র’ হিসেবে ঘোষণা দিয়ে আইন পাস করার প্রতিবাদে দেশটিতে বসবাসকারী ফিলিস্তিনিদের তদারকি করা আরব নাগরিক কমিটি ওই প্রতিবাদসভার ডাক দেয়। ইসরাইলি পার্লামেন্টের একাধিক ফিলিস্তিন বংশোদ্ভূত এমপি ওই প্রতিবাদসভায় অংশ নেন। এদের মধ্যে জামাল জাহালকা, মাসুদ ঘানাইম, সাবেক এমপি মো. বারাকেহ ও দেশটির আরব কমিউনিটি কাউন্সিলের নেতা ইভা ইলোজসহ গুরুত্বপূর্ণ নেতৃবৃন্দ বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ নেন। এমপি মাসুদ ঘানাইম বলেন, নতুন এ আইনটি দ্রæত রহিত করতে হবে। কারণ এতে দেশটিতে অন্য ধর্মাবলম্বীরা বৈষম্যের শিকার হবেন। দেশের নাগরিকদের এ বৈষম্য দূর করতে বিতর্কিত আইনটি বাতিল করতে হবে। এ প্রতিবাদসভা থেকে আমরা সরকারকে এ বার্তাই দিলাম। নেসেটে পাস করা নতুন আইনে ইসরাইলকে ইহুদি রাষ্ট্র ঘোষণার পাশাপাশি অবিভক্ত জেরুজালেমকে দেশটির রাজধানী এবং হিব্রুকে রাষ্ট্র ভাষা হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয়। ইসরাইলে জনসংখ্যার ২০ শতাংশ ফিলিস্তিনি। এরা সেখানে আরব ইসরাইলি হিসেবে পরিচিত। এদের মধ্য থেকে দেশটির পার্লামেন্ট নেসেটের সদস্যও নির্বাচিত হন। রাষ্ট্রভাষার মর্যাদা থেকে আরবিকে নামিয়ে দেওয়া ও কেবলমাত্র ইহুদিদেরই আত্ম-নিয়ন্ত্রণের অধিকার দেওয়া আইনটির পক্ষে নিজের অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। ইহুদিদের আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকারের ক্ষেত্রে ফিলিস্তিনিদের ছুড়ে দেওয়া চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় এ ধরনের বিধান জরুরি হয়ে পড়েছিল বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। ক্ষমতাসীনদের ‘চাপিয়ে দেওয়া এ আইনের’ বিরুদ্ধে শনিবার তেল আবিবের রাস্তায় ফিলিস্তিনি পতাকা উড়িয়ে প্রতিবাদ জানায় ইসরাইলি আরবরা; তাদের হাতে থাকা নিদর্শনগুলোতে আরবি ও হিব্রু ভাষায় লেখা ছিল ‘সমতা’র কথা। “এ আইন বর্ণবাদকে স্বীকৃতি দিল। আমরা যে এর বিরুদ্ধে এখানে প্রতিবাদ করতে এসেছি, তা দেখানো খ্বুই গুরুত্বপূর্ণ,” বলেন দক্ষিণ ইসরাইলের নেগেব মরুভূমির একটি বেদুইন গ্রাম থেকে আসা ১৯ বছর বয়সী লাইলা আল-সানা। আনাদোলু, রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর