Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার , ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৮ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

গ্রুপ সেরা হতে চায় কিশোরীরা

স্পোর্টস রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ১৩ আগস্ট, ২০১৮, ১২:০০ এএম

সাফ অনুর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে গ্রুপ সেরা হয়েই সেমিফাইনালে পা রাখতে চায় বাংলাদেশের কিশোরীরা। টুর্নামেন্টের ‘বি’ গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ নেপাল। ভুটানের রাজধানী থিম্পুর চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাতটায় শুরু হবে ম্যাচটি।
উড়ন্ত সূচনা। গ্রুপের শেষ ম্যাচটাও দুর্দান্ত করতে চান মারিয়ারা। প্রতিপক্ষ নেপাল। তাই কোন শংকা নয়, নির্ভরতা নিয়েই আজ মাঠে নামতে চায় কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনের দল।
পাকিস্তানকে ১৪-০ গোলে বিধ্বস্ত করে তিনদিনের বিরতিতে আবারো মাঠে নামছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা দল। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে নেপালের বিপক্ষে পাকিস্তান ৪-০ গোলে হারায় এক ম্যাচ হাতে রেখেই সেমিফাইনাল নিশ্চিত হয় বাংলাদেশের। একই সঙ্গে শেষ চারে ওঠে নেপালেরও। আর টানা দুই ম্যাচ হেরে গ্রুপপর্ব থেকেই বিদায় নেয় নবাগত পাকিস্তান। বাংলাদেশ ও নেপালের লড়াইটা এখন শুধু গ্রুপ সেরা হওয়ার। যে দল জিতবে তারাই ‘বি’ গ্রুপ থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে পা রাখবে সেমিফাইনালে।
প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানকে উড়িয়ে দিয়ে আয়েশি সময় কাটায়নি কিন্তু বাংলাদেশ দল। দ্বিতীয় ম্যাচের আগে অনুশীলনে কোন ঘাটতি রাখেননি কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। বরং নেপালের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচের আগে আরও কঠোর অনুশীলন করেন মারিয়া মান্ডারা। গতকাল ভুটানের চাংজুই ফুটবল একাডেমির অ্যাস্ট্রো টার্ফে প্রায় দেড় ঘন্টা অনুশীলন করেছে লাল-সবুজের মেয়েরা। বিকেল সেশনে জিমও করেছে মারিয়া বাহিনী। দলে কোন ইনজুরি সমস্যা নেই। নেপাল বলেই জয়ের প্রত্যাশা নিয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। কারণ গেল বছর ডিসেম্বরে ঢাকায় অনুষ্ঠিত এই টুর্নামেন্টের প্রথম আসরে গ্রæপ পর্বে নেপালকে ৬-০ গোলে হারিয়েছিল স্বাগতিকরা।
কাল অনুশীলন শেষে কোচ ছোটন বলেন, ‘মেয়েরা নিবিড় অনুশীলন করেছে। গতি ফিরে পেয়েছে তারা। নেপাল ম্যাচে ভালো খেলার প্রতিজ্ঞা এবং প্রতিশ্রুতি রয়েছে তাদের। নেপালের বিপক্ষে সেরাটা মাঠে ঢেলে দিয়ে ম্যাচ জিততে চেষ্টা করবে আমার দল। জয় ছাড়া অন্য কিছুই নেই আমাদের ভাবনায়।’ স্ট্রাইকার তহুরা বলেন, ‘ডিসেম্বরে ঢাকায় অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টের প্রথম আসরে নেপালের বিপক্ষে আমি হ্যাটট্রিক করেছিলাম। এছাড়া এবারের আসরে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে আমার দু’গোল রয়েছে। এবারো নেপালের বিপক্ষে আমি গোল করতে চাই এবং ম্যাচ জিততে চাই। আমরা জানি পাকিস্তানের চেয়ে বেশ শক্তিশালী দল নেপাল। তারপরও চেষ্টা থাকবে ওদের হারানোর।’ ডিফেন্ডার আনাই মোগিনীর কথা, ‘শনিবার পাকিস্তানের বিপক্ষে নেপালের ম্যাচটি দেখেছি। তাদের বেশ কিছু দুর্বলতা খুঁজে পেয়েছি। তাই আমরা বুঝতে পেরেছি কিভাবে নেপালের বিপক্ষে খেলতে হবে। সর্বাত্বক চেষ্টা করবো ম্যাচ জিতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে।’ এদিকে নেপালের প্রধান কোচ গঙ্গা গুরুং বলেন, ‘বাংলাদেশ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। শক্তিশালী এবং ভারসাম্যপূর্ণ একটি দল। আমাদের কিছু ভালোমানের ফুটবলার রয়েছে। আমাদের সেরাটা দিয়েই ম্যাচ জিততে চেষ্টা করবো।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নারী ফুটবল

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
১৯ অক্টোবর, ২০১৮
১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ