Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫, ১৫ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

লোডশেডিং কমান

| প্রকাশের সময় : ১৫ আগস্ট, ২০১৮, ১২:০৪ এএম

লোডশেডিংয়ের মাত্রা দিন দিন বেড়েই চলছে কাপাসিয়া উপজেলায়। দিনে ৫-৬ বার বিদ্যুৎ যাওয়া-আসা করা যেন স্বাভাবিক একটি ব্যাপার। উপজেলার বিভিন্ন স্থানে নতুন বিদ্যুৎ লাইন সংযোগ দিয়ে গ্রাহক সংখ্যা বাড়ানো হলেও কোনোভাবে কমেনি লোডশেডিংয়ের মাত্রা। বিদ্যুৎ একবার চলে গেলে আসার কোনো নাম থাকে না। ২-৩ ঘণ্টা বিদ্যুৎ ছাড়া মানুষকে পড়তে হয় নানা ধরনের ভোগান্তিতে। লোডশেডিংয়ের তীব্রতা যেন রাতে চরম আকারে ধারণ করে। ৫-৬ ঘণ্টা বিদ্যুৎ না থাকাটা রাতের একটি রুটিনে পরিণত হয়েছে। রাতে বিদ্যুৎ না থাকায় দৈনন্দিন কাজ করার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের পড়তে হয় অপ্রত্যাশিত বহু ভোগান্তিতে। বিদ্যুৎহীনতায় পুরো গ্রাম আঁধারে পরিণত হয়ে দোকানগুলোতে জোনাকি পোকার মতো টিপটিপ করে বাতি জ্বলতে থাকে। কাপাসিয়া আবাসিক এলাকা হয়েও এমন মাত্রায় লোডশেডিং বৃদ্ধি প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে। অন্যদিকে বিদ্যুৎ অফিসের অভিযোগ কেন্দ্রে গ্রাহকদের ফোন রিসিভ না করার মতো অভিযোগ রয়েছে। এ ধরনের ভোগান্তি থেকে মুক্তির জন্য বিদ্যুৎ সংশ্নিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
শামীম শিকদার
কাপাসিয়া, গাজীপুর



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর